সোমবার, ২৫ মে ২০২০, ০৬:৩০ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
শ্রীমঙ্গলে যুবলীগ নেতা সেলিমের উদ্যোগে সাড়ে ৫শ অসহায় মানুষের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ নবীগঞ্জের বিভিন্ন গ্রামে ড. রেজা কিবরিয়ার পক্ষে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ হবিগঞ্জে শেষ হয়েছে ৫দিন ব্যাপি ইয়ূথ এসোসিয়েশন অব ইউকে এর খাদ্য সহায়তা বিতরণ নবীগঞ্জে গৃহহীন দুই বীর সেনা মুক্তিযোদ্ধাকে সেনাবাহিনীর বাসস্থান উপহার আলমগীর চৌধুরীর সৌজন্যে নবীগঞ্জে ১৬৫ পরিবারকে ঈদ উপহার প্রদান নবীগঞ্জে স্বাস্থ্য বিধি অমান্য করায় ভ্রাম্যমান আদালতের জরিমানা “বঙ্গবন্ধু ছাত্র একতা পরিষদ” নেতা রায়হান এর উদ্যোগে ইফতার বিতরণ এখন প্রমান করার সময় মানুষ মানুষের জন্য-মোতাচ্ছিরুল ইসলাম অনাহারী মুখ খাবার তুলে দিচ্ছেন হবিগঞ্জ ছাত্র সমন্বয় ফোরাম বাগুনিপাড়া ডিফেন্স হোল্ডার এ্যাসোসিয়েশন ঈদ উপহার বিতরন
বানিয়াচঙ্গে ছাত্রীকে যৌন হয়রানীর সংবাদে ফেইজবুকে তোলপাড়

বানিয়াচঙ্গে ছাত্রীকে যৌন হয়রানীর সংবাদে ফেইজবুকে তোলপাড়

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বানিয়াচং সুফিয়া মতিন টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজের ভারপ্রাপ্ত সুপার বশির আহমদ কর্তৃক ছাত্রীকের যৌন হয়রানীর সংবাদে সামাজিক যোগাযোগ ফেইজবুকে তোলপার শুরু হয়েছে। বানিয়াচঙ্গের জনৈক আজহার উদ্দিন শিমুল তার ফেইজবুক আইডিতে একটি ষ্ট্যাটাজ দিয়েছেন। ষ্ট্যাটাজের শিরোনাম ‘শিক্ষক যখন যৌন নিপীড়ক!” আজহার উদ্দিন শিমুলের ষ্ট্যাটাজটি হুবহু তুলে ধরা গল ‘মায়ের পরে যাদের আমি সবচেয়ে বেশি সম্মান করি তারা হচ্ছেন আমার প্রিয় শিক্ষক। তাঁরা শুধু শিক্ষক নন, তারা আমার কাছে নিজের বাবা-মা।
কিন্তু তখনই মনে আঘাত পাই যখন শুনি কোনো শিক্ষক কোনো ছাত্রীকে যৌন নির্যাতন করেছেন।
যৌন নির্যাতন! শব্দটির সাথে মিশে আছে এক ধরণের ঘৃণা, অভিশাপ। আমার প্রিয় বানিয়াচংয়ে একজন শিক্ষক তারই মেয়ের বয়সী ছাত্রীকে যৌন হয়রানি করেছেন। বিষয়টি শোনার পর থেকেই ঐ শিক্ষকের প্রতি চরম ঘৃণা জন্ম নিয়েছে। একজন শিক্ষক হয়ে এমন গর্হিত কাজ। ছিঃ আমি লজ্জিত।
যে শিক্ষকের নামে যৌন হয়রানির অভিযোগ এসেছে তিনি হচ্ছেন বানিয়াচং এর অন্যতম শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সুফিয়া মতিন টেকনিক্যাল স্কুল এণ্ড কলেজের ভারপ্রাপ্ত সুপার বশির আহমেদ। জনৈকা ছাত্রীকে অফিস কক্ষে নিয়ে গিয়ে যৌন হয়রানির চেষ্টা করেছেন; এমনকি মেয়েটিকে কুপ্রস্তাবও দিয়েছেন। যৌন হয়রানির শিকার ঐ ছাত্রী বাধ্য হয়ে অন্য একজন শিক্ষিকার মাধ্যমে স্কুল পরিচালনা কমিটির কাছে তার সাথে ঘটে যাওয়া যৌন হয়রানি অভিযোগ দেন। অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় জেলা প্রশাসকের বরাবর আইনুনাগ ব্যবস্থার সুপারিশ করা হয়েছে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে। এজন্য উপজেলা প্রশাসনকে আমি সাধুবাদ জানাই।
শান্তিপূর্ন বানিয়াচংয়ে এক ধরণের ভাইরাস সৃষ্টি করলেন এই শিক্ষক নামের ভক্ষক!
আসুন তার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াই। আজ ঐ মেয়ে! কাল আমার আপনার বোন যে ঐ রকম লম্পট শিক্ষক দ্বারা যৌন নির্যাতনের শিকার হবে না তার নিশ্চয়তা কিসের। অনতিবিলম্বে তাকে স্কুল থেকে বহিষ্কার করা হোক এবং গ্রেফতার করে আইনের আওতায় নিয়ে আসা হোক।
আজ যদি আপনার মা/বোন এভাবে যৌন নির্যাতনের শিকার হতেন তাহলে আপনি কি বসে থাকতেন?
প্রশ্ন রেখে গেলাম!
প্রতিবাদী হোন। প্রতিরোধ গড়ে তোলেন শিক্ষক নামধারী লম্পট বশির আহমেদ’র বিরুদ্ধে।
ঝঃড়ঢ়থঝবীঁধষথঐধৎধংংসবহঃ?
লেখক ঃ ব্লগার এণ্ড অনলাইন অ্যাকটিভিস্ট।
আজহার উদ্দিন শিমুল এর ষ্ট্যাটাজে বিভিন্ন জন বিভিন্ন ধরনের কমান্ড করেন। এর মধ্যে-
রহমান নাবিল ঃ অনতিবিলম্বে অপরাধীকে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টাষ্টমূলক শাস্তি দেওয়া হউক।
জসিম উদ্দিন ঃ নিউজটি পড়ে খুবই লজ্জা লাগলো।
হৃদয় ঃ এই লুইচ্ছা শিক্ষককে যৌন জায়গা কর্তন করে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দেওয়া হউক যেন আর কাউকে যৌন হয়রানি না করে।
এস এম জিল্লুর ঃ এসব লোক শিক্ষক নামক মহান পেশাকে কলঙ্কিত করেছে। অপরাধীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির আশা করছি।
মামুন আমিন ঃ ধিক্কার জানাই।
আহমেদ রিপন ঃ ওই লুইচ্ছা শিক্ষকের উপযুক্ত বিচার চাই।
মিছবাহ উদ্দিন ঃ তার সবচেয়ে ভাল শাস্তি হলো যদি লম্পট মার্কা শিক্ষক কে তাঁর পরিবার ছেড়ে চলে যায়। আচছা এমন মানুষ কি কখনও পিতা হতে পারে?? মানে তাকে কি তার সন্তানরা বাবার সেই আসনে রাখবে???
প্রশ্ন ত হাজার???
সহজ কথা ঃ এ ধরনের নেককার জনক ঘটনার মূল উৎপাটন কবে হবে আমাদের সমাজ থেকে???

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com