রবিবার, ০৭ মার্চ ২০২১, ০৮:০৭ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
আজ ঐতিহাসিক ৭ মার্চ হবিগঞ্জে ড্যান্ডি নেশায় ঝুঁকছে টোকাই শিশুরা প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলীর সাথে মেয়র সেলিমের শুভেচ্ছা বিনিময় নয়া জেলা প্রশাসক ইসরাত জাহানের দায়িত্ব গ্রহণ এমপি পুত্র ইফাত জামিলের আইন বিষয়ে ¯œাতকোত্তর ডিগ্রী অর্জন হবিগঞ্জ পৌর নির্বাচন ৭দিন আগে অনুষ্ঠিত হলেও শহরে বিরাজ করছে নির্বাচনী আমেজ! পোষ্টারে পোষ্টারে ছেয়ে আছে হবিগঞ্জ শহর ! এগুলো পরিস্কারের দায়িত্ব কার ? জন দূর্ভোগ ॥ নবীগঞ্জ-মুক্তাহার ব্রীজ বানিয়াচংয়ে প্রেমিকের ব্যবসা প্রতিষ্টানে প্রেমিকার অনশন ॥ সালিশে নিষ্পত্তির শর্তে মুরুব্বীদের জিম্মায় নবীগঞ্জে খোলা জায়গায় পশু জবাই করে বিক্রি ॥ পরিবেশ দুষিত হচ্ছেন পত্রিকায় লিখে কোন লাভ হবে না। কর্তারা তাদের ম্যানেজ নবীগঞ্জে অসহায় ব্যক্তির অর্ধশতাধিক গাছ কর্তন
বালিকান্দি গ্রামে জলপাই পাড়া নিয়ে স্কুল ছাত্র খুন ॥ নিহত লায়েছ চৌধুরীর শরীরের বিভিন্ন স্থানে ৩৩টি ছুরিকাঘাত ॥ ঘাতক রিপনের ভাবী পারভিন আটক

বালিকান্দি গ্রামে জলপাই পাড়া নিয়ে স্কুল ছাত্র খুন ॥ নিহত লায়েছ চৌধুরীর শরীরের বিভিন্ন স্থানে ৩৩টি ছুরিকাঘাত ॥ ঘাতক রিপনের ভাবী পারভিন আটক

কাজী মিজানুর রহমান ॥ হবিগঞ্জ সদর উপজেলার বালিকান্দি গ্রামে জলপাই পাড়া নিয়ে বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষে ছুরিকাঘাতে লায়েছ চৌধুরী (১৩) নামে এক স্কুলছাত্র খুন হয়েছে। এ ঘটনা জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ঘাতক রিপন ভাবী পারভিনকে আটক করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় এ ঘটনাটি ঘটে। নিহত লায়েছ চৌধুরী বালিকান্দি গ্রামের সৌদি প্রবাসী নয়ন চৌধুরী পুত্র ও উচাইল উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণীর ছাত্র। নিহত পারিবারিক ও পুলিশ সূত্র জানায়, নিহত লায়েছ চৌধুরী সাথে পাশ্ববর্তীর বাড়ীর মাহরাজ মিয়ার পুত্র রিপন মিয়া (২২) সাথে তুচ্চ বিষয় নিয়ে প্রায়ই ঝগড়া হতো। গতকাল দুপুরে জলাপাই পড়াকে কেন্দ্র তাদের মধ্যে ঝগড়া হয়। পরবর্তীতে বাড়ীর লোকজন তাদের এ বিরোধ নিষ্পতি করে দেন। বিকেলে তারা আবারও মিলিত হয়ে খেলাধুলা করে। সন্ধ্যায় কৌশলী রিপন মিয়া লায়েছ চৌধুরীকে বাড়ী পাশের জমিতে নিয়ে গিয়ে রিপন ও তার সহযোগীরা তাকে ছুরিকাঘাত করতে থাকে। এ সময় তৌহিদ মিয়া নামে লায়েছের এক সহপাটি এ দৃশ্য দেখে তার মা-বাবাকে জানায়। পরবর্তীতে তার মা-বাবাও পরিবারের লোকজন চলে আসলে রিপন মিয়া তার সহযোগীরা পালিয়ে যায়। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে বাড়ী নিয়ে আসলে সে নিজেই তার মা-বাবার কাছে তার ঘাতকদের নাম বলে যায়। এরপরই তার মৃত্যু ঘটে।
সন্ধ্যা ৭টার দিকে তার চাচা উজ্জল মিয়া হবিগঞ্জ সদর থানায় এসে কান্না জড়িত ভাবে এ ঘটনাটি জানালে ওসি নাজিম উদ্দিনের নেতৃত্বে একদল পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে সদর আধুনিক হাসপাতালে মর্গে নিয়ে আসে। সেখানে এসআই ওয়াহেদ গাজী লায়েছের লাশের ময়না তদন্ত করতে গিয়ে দেখেন শরীরের বিভিন্ন স্থানে ৩৩টি ছুরিকাঘাত। এসব ছরিকাঘাতের দৃশ্য দেখে অনেকেই মাথা ছিটকে পড়ে যান। এ ব্যাপারে হবিগঞ্জসদর মডেল থানার ওসি নাজিম উদ্দিন জানান, এটি একটি পরিকল্পিত হত্যাকান্ড। ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ঘাতক রিপনের ভাবীকে আটক করা হয়েছে। ঘাতক রিপনকে ধড়া জন্য পুলিশ অব্যাহত অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com