রবিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২১, ০৬:১৯ অপরাহ্ন

জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে মতবিনিময় সভা \ চুনারুঘাটে ইকনোমিক জোন স্থাপনের সমঝোতা হয়নি

জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে মতবিনিময় সভা \ চুনারুঘাটে ইকনোমিক জোন স্থাপনের সমঝোতা হয়নি

স্টাফ রিপোর্টার \ চুনারুঘাটে চান্দপুর-বেগমখান চা বাগানের কৃষিজমিতে স্পেশাল ইকনোমিক জোন স্থাপনের বিষয়ে জেলা প্রশাসনের সাথে চা শ্রমিক নেতৃবৃন্দের এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে সদর-লাখাই আসন ও চুনারুঘাট-মাধবপুর আসনের সংসদ সদস্যদ্বয় উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে প্রশাসন ও চা শ্রমিক নেতৃবৃন্দ উভয়েরই অনড় অবস্থানের কারণে ইকনোমিক জোন স্থাপনের বিষয়ে কোনো সমঝোতা হয়নি। সভায় প্রশাসনের পক্ষ থেকে উন্নয়নের স্বার্থে ইকনোমিক জোন স্থাপনের জন্য জায়গাটি ছেড়ে দেয়ার আহŸান জানালে চা শ্রমিকরা যে কোনো মূল্যে তাদের জমি রক্ষার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। এতে সভাটি কোনো ফলাফল ছাড়াই শেষ হয়। গতকাল রবিবার দুপুর ১২টায় হবিগঞ্জ জেলা প্রশাসন সম্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসক সাবিনা আলমের সভাপতিত্বে উক্ত মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন হবিগঞ্জ সদর-লাখাই আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব এডঃ মোঃ আবু জাহির, চুনারুঘাট-মাধবপুর আসনের সংসদ সদস্য এডঃ মাহবুব আলী, পুলিশ সুপার জয়দেব কুমার ভদ্র, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) সফিউল আলমসহ প্রশাসনের কর্মকর্তাবৃন্দ। অপরদিকে শ্রমিক নেতৃবৃন্দের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন চান্দপুর-বেগমখান বাগানের ভূমি রক্ষা কমিটির আহŸায়ক অভিরত বাকতি, যুগ্ম আহŸায়ক স্বপন সাঁওতাল, সদস্য সচিব নৃপেন পাল, দেওরগাছ ইউপি সদস্য ল²ীচরণ বাকতি, মহিলা চা শ্রমিক ফোরামের সভাপতি গীতা কানু, শ্রমিক নেতা সূর্যকুমার, কাঞ্চন পাত্র, মোহন রবিদাস প্রমুখ। মতবিনিময় সভায় এডঃ মোঃ আবু জাহির এমপি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর উন্নয়ন কর্মসূচিকে এগিয়ে নিতে হবে। চুনারুঘাটে ইকনোমিক জোন স্থাপনের বিষয়ে স্থানীয় সংসদ সদস্যের সঙ্গে আলোচনা করে বিষয়টি সমাধান করা যেতে পারে। স্থানীয় সংসদ সদস্য এডঃ মাহবুব আলী বলেন, ইকনোমিক জোন স্থাপনকে কেন্দ্র করে চুনারুঘাটের সাধারণ মানুষ ও চা শ্রমিকদের বিরোধে জড়ানোর কোন দরকার নেই। আমি আহŸান জানাই উন্নয়নের স্বার্থে সবাই এ বিষয়ে একমত হউন। জেলা প্রশাসক সাবিনা আলম বলেন, যারা এ জমিতে কৃষি কাজ করছেন তাদের সকলকেই উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ দেয়া হবে। আশা করি আমাদেরকে সহযোগিতা করবেন। পুলিশ সুপার জয়দেব কুমার ভদ্র বলেন, আন্দোলন করতে গিয়ে আইন-শৃংখলা পরিস্থিতির অবনতি যেন না ঘটে সেটির প্রতি খেয়াল রাখতে হবে।
চা শ্রমিক নেতা ও ইউপি সদস্য ল²ীচরণ বাকতি বলেন, আমরা প্রায় ১শ’ ৬০ বছর ধরে পুরুষানুক্রমে এই জমিতে চাষবাস করে আসছি। এ জমি আমাদের প্রাণে বাঁচিয়ে রাখছে। কৃষি জমিতে ইকনোমিক জোন হওয়া আইন বিরুদ্ধ। আমরা দৃঢ় কণ্ঠে বলতে চাই, ’৭১ সালে যেভাবে চা শ্রমিক ও সাধারণ জনতা কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে বাংলাদেশ স্বাধীন করেছিল, তেমনিভাবে এ জমি রক্ষার জন্য আমরা শরীরের শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে হলেও লড়াই করবো।
ভূমি রক্ষা কমিটির সদস্য সচিব নৃপেন পাল বলেন, আমাদের কৃষিজমি রক্ষার ব্যাপারে আমাদের আপোষহীন অবস্থান রয়েছে। তবে প্রশাসনের পক্ষ থেকে বিশেষ অনুরোধের প্রেক্ষিতে আগামীকালের ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক অবরোধের কর্মসূচিটি আমরা স্থগিত করছি।
বৈঠক শেষে হবিগঞ্জের বিভিন্ন সামাজিক-রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের সাথে চা-শ্রমিক নেতৃবৃন্দের অপর একটি মতবিনিময় সভা নিমতলায় অনুষ্ঠিত হয়। এতে চা শ্রমিকদের সঙ্গে বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনায় অংশ নেন জেলা সিপিবি সাধারণ সম্পাদক কমরেড পীযূষ চক্রবর্ত্তী, জেলা বাসদ সমন্বয়ক কমরেড এডভোকেট জুনায়েদ আহমেদ, জেলা জাসদ সাধারণ সম্পাদক আবু হেনা মোস্তফা কামাল, যুগ্ম সম্পাদক শাকিল মোহাম্মদ, সাহিত্য ও সংবাদকর্মী সিদ্দিকী হারুন, সংস্কৃতিকর্মী সারোয়ার পরাগ প্রমুখ।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2021 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com