সোমবার, ২৬ অগাস্ট ২০১৯, ১২:২৭ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
লাখাইয়ে পারিবারিক বিষয় নিয়ে বাকবিতন্ডা ॥ পুত্রের হাতে পিতা খুন হবিগঞ্জে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী তাজুল ইসলাম ॥ রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে প্রত্যাবর্তনই উত্তম পন্থা শহরের বিভিন্ন স্কুল ও কলেজের সামন থেকে ১২ রোমিও আটক পরিবারের মুছলেখায় মুক্তি ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে চুনারুঘাটের ১ জনের মৃত্যু নবীগঞ্জে বউ-শাশুড়ীর ঝগড়া প্রাণ গেল সবুর হোসেনের বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মধ্য দিয়ে দেশকে পিছিয়ে দিয়েছিল-এমপি মিলাদ গাজী বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বাংলা গড়াই হোক জাতীয় শোক দিবসের অঙ্গীকার-এমপি মজিদ খান পইলে শহীদ এনাম স্মৃতি সংঘের ৭ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত তিতখাই-চান্দপুর সড়কটি সংস্কার কাজ বন্ধ ॥ জনদুর্ভোগ চরমে বানিয়াচঙ্গে চেক ডিজঅনার মামলার সাজা প্রাপ্ত পলাতক আসামী গ্রেপ্তার
২০১১ সালের নবীগঞ্জ পৌর নির্বাচনে আচরণবিধি লংঘনের অভিযোগ ॥ মেয়র প্রার্থী এডভোকেট গোলাপসহ ৭৬ নেতাকর্মীর বেকসুর খালাস

২০১১ সালের নবীগঞ্জ পৌর নির্বাচনে আচরণবিধি লংঘনের অভিযোগ ॥ মেয়র প্রার্থী এডভোকেট গোলাপসহ ৭৬ নেতাকর্মীর বেকসুর খালাস

নবীগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ ২০১১ সালে অনুষ্ঠিত নবীগঞ্জ পৌর নির্বাচন পরবর্তী কর্মসূচীকে কেন্দ্র করে বিএনপি মনোনীত তৎকালীর মেয়র প্রার্থী প্রয়াত এডঃ আব্দুস শহিদ গোলাপ ও উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদকসহ ৭৬ নেতা কর্মীর বিরুদ্ধে পুলিশ কর্তৃক দায়েরকৃত নির্বাচনী আচরণবিধি লংঘনের অভিযোগে দায়েরকৃত মামলার সকল আসামীকে বেকসুর খালাস প্রদান করেছেন বিজ্ঞ আদালত। দীর্ঘ বিচারিক প্রক্রিয়ার পর হবিগঞ্জের সিনিয়র জুটিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বিচার আদালত-২ এর বিজ্ঞ বিচারক তাহমিনা হক গতকাল বৃহস্পতিবার এ রায় প্রদান করেন। সরকার পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন এড. মুজিবুর রহমান কাজল ও আসামী পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন এড. নুরুল হুদা। মামলার প্রধান আসামী তৎকালীর মেয়র প্রার্থী থানা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি এডভোকেট আব্দুস শহিদ গোলাপ মামলা চলাকালীন সময়ে মারা যাওয়ায় তাকে মামলা থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান চৌধুরী সেফুসহ বিএনপি, কৃষকদল, যুবদল, ছাত্রদল, শ্রমিকদলের এজাহারভূক্ত আসামীদের বিরুদ্ধে পুলিশ তদন্ত শেষে আদালতে চার্জশীট দাখিল করে। আদালতে দীর্ঘ বিচার প্রক্রিয়ার পর বিএনপির নেতা কর্মীরা গতকাল আদালত কর্তৃক বেকসুর খালাস লাভ করেন। ২০১১ সালে অনুষ্ঠিত নবীগঞ্জ পৌর নির্বাচনে অনিয়মের অভিযোগ এনে তৎকালীন মেয়র প্রার্থী এডঃ আব্দুস শহিদ গোলাপ নবীগঞ্জ পৌর এলাকার সালামতপুরস্থ হাজারী কমিউনিটি সেন্টারে সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করেন। এ ঘটনাকে নির্বাচনী আচরণবিধি লংঘন হয়েছে মর্মে বিএনপির নেতা কর্মীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করে পুলিশ। মামলায় তৎকালীন মেয়র প্রার্থী এডঃ আব্দুস শহিদ গোলাপ, উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান চৌধুরী সেফু, সাংগঠনিক সম্পাদক শিহাব আহমদ চৌধুরী, তৎকালীন পৌর কাউন্সিলর ও বিএনপি নেতা রুহুল আমিন রফু, তৎকালীন যুবদলের সভাপতি ও পৌর কাউন্সিলর এটিএম সালাম, সাবেক মেম্বার রফিক মিয়া, উপজেলা ছাত্রদল সভাপতি হারুনুর রশিদ হারুন, পৌর ছাত্রদলের সভাপতি মোশাহিদ আলম মুরাদ, নবীগঞ্জ ডিগ্রি কলেজ ছাত্রদল সভাপতি অলিউর রহমান অলি, ছাত্রদল নেতা জুসেফ বখ্ত চৌধুরী, আবুল কালাম মিঠু, জহিরুল ইসলাম সোহেল, জুবায়ের আহমদ সুমন, নুরুল আমিন, হেলাল আহমদ, রায়হান আহমদ, মহিবুর রহমান, সফিকুর রহমান, আব্দুর রউফ রুবেল, ছায়েদ আহমদ, হিফজুর রহমান, আব্দুস সালাম, আব্দুস শহিদ, ইসমাইল হোসেন খোকন, সমাই মিয়া, মেন্টাই মিয়া, আব্দুল কাইয়ুম, নুনু মিয়া, রকিব উল্লাহ, জিলু মিয়া, শাহজাহান মিয়া, কালু মিয়া, সোঃ আব্দুল্লাহ, নফল উদ্দিন সহ বিএনপি, কৃষকদল, যুবদল, ছাত্রদল, শ্রমিকদলের ৭৬ নেতা কর্মীকে আসামী করা হয়।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com