বৃহস্পতিবার, ১৮ Jul ২০১৯, ০৬:৫৯ পূর্বাহ্ন

বানিয়াচঙ্গের মহিলাকে সৌদি আবর মাফিয়া চক্রের নিকট বিক্রির অভিযোগ

বানিয়াচঙ্গের মহিলাকে সৌদি আবর মাফিয়া চক্রের নিকট বিক্রির অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বানিয়াচঙ্গের এক মহিলাকে সৌদি আরব পাটিয়ে মাফিয়া চক্রের হাতে তুলে দিয়ে ৩ লাখ ৮০ হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগে মানব পাচার আইনে ২ ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। গতকাল হবিগঞ্জ মানব পাচার দমন ট্রাইব্যুনল-১ এ মামলাটি দায়ের করা হয়েছে। মামলার অভিযুক্তরা হচ্ছে বানিয়াচং উপজেলার কাগাপাশা ইউনিয়নের নজিপুর গ্রামের ক্ষিতিশ দাসের পুত্র স্কুল শিক্ষক কৃপেন্দ্র দাস ও একই ইউনিয়নের চান্দপুর গ্রামের মোছাব্বির চৌধুরীর পুত্র টিপু চৌধুরী। মামলাটি ৭ কার্যদিবসের মধ্যে স্বাক্ষীদের জবানবন্দি সহ প্রতিবেদন দেয়ার জন্য হবিগঞ্জ পিবিআইর নিকট প্রেরনের নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে।
মামলার বাদী কাগাপাশা ইউনিয়নের ইছবপুর গ্রামের গ্রামের আরজ আলীর স্ত্রী রাসিদা আক্তার সেবিনা আরজিতে উল্লেখ করেন, অভিযুক্ত কৃপেন্দ্র দাস ও টিপু চৌধুরী ২০১৮ সনের ফেব্র“য়ারী মাসের দিকে তাদের বাড়ি গিয়ে বলে যে, ৮০ হাজার টাকা দিলে লিগ্যাল ভিসায় বাদীনীকে সৌদীআরব পাঠাতে পারবে এবং মাসিক বেতন হবে ৫০ হাজার টাকা। তাদের প্রস্তাবে তারা রাজি হয়ে ২০১৮ সনের ৭ এপ্রিল ৮০ হাজার টাকা তাদের নিকট দেয়া হয়। এ সময় তারা ১৫ দিনের মধ্যে ফ্লাইট হবে বলে জানায়। সে অনুযায়ী অভিযুক্তরা ২১ এপ্রিল তাদের বাড়িতে গিয়ে সেবিনাকে তাদের সাথে ঢাকা নিয়ে যায়। ২দিন পর ২৩ এপ্রিল রাত ১০ টার দিকে বিমানবন্দর নিয়ে কৃপেন্দ্র দাস পাসপোর্ট ও টিকেট হাতে দেয়। রাত ৩ টার দিকে ফ্লাইট হয়। অভিযুক্তদের কথানুযায়ী একজন বাঙ্গালী তাকে বিমানবন্দর থেকে একটি বাসায় নিয়ে যায়। সেখানে ময়মনসিংহের এক মহিলাও ছিল। ৩/৪দিন পর তাদের আরেকটি বাসায় নিয়ে যায়। সেখানে কয়েকজন বাঙ্গালী তার উপর পাশবিক নির্যাতন শুরু করে। প্রতিবাদ করলে শারিরীক নির্যাতন করে। কিছুদিন পর তাকে মাফিয়াচক্রের নিকট বিক্রি করে। তারা আরেকটি বাসায় নিয়ে পাশবিক নির্যাতন শুরু করে। প্রতিবাদ করলে তাকে মারধর করে। এভাবে কয়েকমাস চলার পর মাফিয়াচক্র ৩লাখ টাকা দিলে তাকে ছেড়ে দেয়া হবে বলে জানায়। তাদের কথানুযায়ী সে তার মায়ের সাথে যোগাযোগ করলে তারা বাড়ি-জমি বিক্রি করে ৩ লাখ টাকা অভিযুক্তদের নিকট প্রদান করলে মাফিয়া চক্র তাকে থানার সামনে ছেড়ে দেয়। পরে পুলিশ তাকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। পরে তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করে। এদিকে জেল থেকে এক পুলিশের মাধ্যমে বাড়ি যোগাযোগ করলে তার মা আরো ২২ হাজার টাকা জেলে পাটাইলে গত পৌষ ১২ তারিখ বাংলাদেশ বিমানে দেশে আসে। পরে অভিযুক্তরা টাকা ফেরৎ দেবে বলে জানায়। কিন্তু টাকা না দেয়ায় মামলা দায়ের করা হয়।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com