মঙ্গলবার, ২৩ Jul ২০১৯, ১১:৫৫ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের অভিযোগে ॥ ব্যারিস্টার সুমনের বিরুদ্ধে মামলা ॥ প্রতিবাদে হবিগঞ্জের বিভিন্ন স্থানে মানববন্ধনসহ বিভিন্ন কর্মসূচি ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হবিগঞ্জ সিভিল সার্জনের মৃত্যু মির্জাপুর থেকে প্রেমিক জুটি আটক ॥ কারাগারে প্রেরণ ১০ ইউপি চেয়ারম্যান উপস্থিত না হওয়ায় নবীগঞ্জ উপজেলা সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়নি বার্মিংহামে হবিগঞ্জ নাগরিক সমাজের সাথে মতবিনিময়কালে এমপি আবু জাহির ॥ দেশবিরোধী চক্রান্তকারীদের ব্যাপারে সতর্ক থাকার আহবান মাধবপুরে রাষ্ট্রদূতের বাড়িতে ডাকাতির ঘটনায় গ্রেফতার ১ নবীগঞ্জ ও বাহুবলে অসুস্থ রোগীদেরকে চিকিৎসা সহায়তা দিলেন এমপি মিলাদ গাজী চুনারুঘাটে নিখোঁজ প্রেমিক যুগল প্রেমিকের মা-সহ ৩ জন আটক নবীগঞ্জের দেবপাড়ায় নিহা ফ্যাশন উদ্বোধন করলেন এমপি মিলাদ গাজী বানিয়াচঙ্গে ২৮ মাস বেতন না পেয়ে মানবেতর জীবন কাটাচ্ছেন প্রধান শিক্ষক
আজ বাঙ্গালীর প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখ

আজ বাঙ্গালীর প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ আজ বাঙ্গালীর প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখ। একটি বছরের গ্লানি মুছে দেয়ার মাধ্যমে বিদায় নিলো ১৪২৫ বঙ্গাব্দ। শুভ নববর্ষ। স্বাগত ১৪২৬। ‘মুছে যাক গ্লানি, ঘুচে যাক জরা/ অগ্নিস্নানে শুচি হোক ধরা’- সকল না পাওয়ার বেদনাকে ধুয়ে মুছে, আকাশ-বাতাস ও প্রকৃতিকে অগ্নিস্নানে সূচি করে তুলতেই আবার এসেছে পহেলা বৈশাখ। নতুন বছরের প্রথম দিনটি চিরায়ত আনন্দ-উদ্দীপনা আর বর্ণাঢ্য উৎসবের মধ্য দিয়ে হাজির হবে প্রতিটি বাঙালির হৃদয়ে। সেই নব প্রভাতে বাঙালি জাতির কায়মনো প্রার্থনা- যা কিছু ক্লেদ, গ্লানি, যা কিছু জীর্ণ-শীর্ণ-বিদীর্ণ, যা কিছু পুরাতন জরাগ্রস্থ-সব বৈশাখের রুদ্র দহনে পুড়ে অঙ্গার হয়ে যাক।
গ্রীষ্মের দাবদাহ এড়িয়ে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের মাঠ-ঘাট, পথে-প্রান্তরে ঢল নামবে লাখো উচ্ছসিত জনতার।
আমাদের জাতিসত্তার মৌলিক ও অনন্য পরিচয় এবং বাঙালির প্রভূত রূপায়ণ ও রাষ্ট্রীয় পরিচয়ের অমোঘ উপাদান এই পহেলা বৈশাখ। দেশের মূল স্তম্ভ কৃষক সমাজ আজও বাংলা বর্ষপঞ্জি অনুসরণ করে, ফসল রোপন ও ঘরে তোলার পালাও চলে সেই পঞ্জিকা ১৬০৮ সালে মোগল স¤্রাট জাহাঙ্গীরের নির্দেশে সুবদোর ইসলাম খাঁ চিশতি ঢাকাকে যখন রাজধানী হিসেবে গড়ে তুলেন, তখন থেকেই রাজস্ব আদায় ও ব্যবসা-বাণিজ্যের হিসাব-নিকাশ শুরু করার জন্য বাংলা বছরকে পহেলা বৈশাখকে উৎসবের দিন হিসেবে পালন শুরু করনে। ঐতিহাসিক তথ্যে আছে যে, সম্রাট আকবরের অনুকরণে সুবেদার ইসলাম চিশতি তাঁর বাসভবনের সামনে সব প্রজার শুভ কামনা করে মিষ্টি বিতরণ এবং বৈশাখ উৎসব পালন করতেন। সেখানে সরকারি সুবেদার হতে শুরু করে জমিদার, কৃষক ও ব্যবসায়ীরা উপস্থিত থাকত। প্রজারা খাজনা নিয়ে আসত সেই উপলক্ষে সেখানে খাজনা আদায় ও হিসাব-নিকাশের পাশাপাশি চলত মেলায় গান-বাজনা, গরু-মোষের লড়াই, কাবাডি খেলা ও হালখাতা অনুষ্ঠান। প্রজারা নতুন জামাকাপড় পরে জমিদার বাড়িতে খাজনা দিতে আসত। জমিদাররা আঙ্গিনায় নেমে এসে প্রজাদের সাথে কুশল বিনিময় করতেন। সবশেষে ভোজপর্ব দিয়ে অনুষ্ঠান শেষ হতো। গ্রাম দেশে এই দিন শেষে সন্ধ্যাবেলা গানের আসর বসত। আসরে পালাগান হত, পুঁথিপাঠ হত। এখন সেই দিন নেই বললেই চলে। সকাল থেকে সন্ধ্যা হয়ে ওঠে উৎসবে মুখরিত। তাই বাঙালি জীবনে এ মাসের গুরুত্ব অপরিসীম। এ ঋতুতে নেমে আসে এক নব আনন্দধারা। এ ধারায় সিক্ত হয়ে মানুষ নব উদ্যমে পরের মাসগুলোর কর্মমুখর জীবনের প্রস্তুতি গ্রহণ করে-এটাই বাঙ্গালি জীবনে বৈশাখের বৈশিষ্ট। বৈশাখে উৎসবের ঢল নেমে আসে যান্ত্রিক শহুরে জীবনেও। মেলাবসে শহরে-নগরে ও গঞ্জে। মেলার দ্রব্যসামগ্রীতে বাংলার মানুষের বৈচিত্র্যময় জীবনধারার একটা স্পষ্ট চিত্র ফুটে ওঠে। এ সকল মেলা যেন গ্রাম-বাংলার মানুষেরই প্রতিচ্ছবি। তাদের জীবন যেন খন্ড খন্ড হয়ে ধরা পড়ে তাদের হাতের কারুকাজে। কোকিলের কুহুতান শেষ হয়ে গেলে বসন্ত পেরিয়ে গ্রীষ্ম আসে। পৌষ-মাঘের শীত আর ফাল্গুন-চৈত্রের বসন্ত যেন এক হয়ে তাদের জীবন আনন্দ হিলে¬ালিত করে তোলে বৈশাখের আগমনে নতুন পথ-পরিক্রমার বার্তা বয়ে আনে। কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বৈশাখের এই রূপের কথা ভেবে লিখেছেন গান- ‘এসো, এসো, এসো হে বৈশাখ।’ পুরাতনের সাথে নতুনের যে যোগাযোগ পহেলা বৈশাখ তারই যোগসূত্র। তাই বাংলার মানুষ হৃদয়ের অমৃত বাণী দিয়ে পহেলা বৈশাখকে বরণ করে সুরেলা কণ্ঠে বলে, স্বাগতম পহেলা বৈশাখ।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com