সংবাদ শিরোনাম : 

 **  আজ মহান বিজয় দিবস ॥ জেলা প্রশাসনের বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ **  নবীগঞ্জে নিখোঁজের ৩ মাস পর হাওর থেকে গৃহবধুর লাশ উদ্ধার ॥ প্রেমিক আটক **  লাখাই উপজেলাকে বদলে দেয়ার অঙ্গীকার এমপি আবু জাহিরের **  জেলা স্বেচ্ছাসেবকদলের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মুশফিক গ্রেপ্তার **  বাহুবলে জাপা প্রার্থী আতিকের প্রচারণা **  বাহুবলে আগুণে পুড়ে সর্বশান্ত বৃদ্ধ রিক্সা চালক হাসন মিয়া **  বানিয়াচঙ্গের কাগাপাশায় হামলায় মৃত্যু পথযাত্রী ৫ মাসের অন্তঃস্বত্ত্বা **  জনগণ ধানের শীষের পক্ষেই অবস্থান নিচ্ছে-জিকে গউছ **  বাবার স্বপ্ন পূরণ করতেই এমপি প্রার্থী হয়েছি-ড. রেজা কিবরিয়া **  নিজামপুরে নির্বাচনী সভায় সহশ্রাধিক নারী ॥ উন্নয়নের ধারা রক্ষায় এমপি আবু জাহিরকে নির্বাচিত করার শপথ **  চুনারুঘাটে জামায়াত নেতা গ্রেপ্তার **  লাখাইয়ে দুই পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৫ জন **  ক্রীড়াঙ্গনের অভিভাবক আবু জাহিরের পাশে সকল খেলোয়ার ও সংগঠক **  নবীগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধা সুলেমান আলীর ইন্তেকাল ॥ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন **  প্রাণ কোম্পানিতে কাজ করার সময় চোঁখে কেমিক্যাল পরে শ্রমিক আহত

বিজয় দিবস উপলক্ষে গোপায়ায় পৃথক আলোচনা সভায় এমপি আবু জাহির জনগণের জন্য কাজ করে শান্তি পাই

স্টাফ রিপোর্টার ॥ হবিগঞ্জ-৩ (সদর-লাখাই-শায়েস্তাগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডঃ মোঃ আবু জাহির বলেছেন, ২০০৫ সালে খুনীদের গ্রেনেড হামলায় অর্থমন্ত্রী শাহ এএমএস কিবরিয়া’র সাথে আমিও মৃত্যুপথযাত্রী ছিলাম। তখন ভাবতেও পারিনি আমি বেঁচে থাকব। আপনাদের দোয়ায় আল্লাহ আমাকে বাঁচিয়ে রেখেছেন। শরীরে শতাধিক ছিটাগুলির যন্ত্রণা নিয়ে কাজ করে যাচ্ছি। বিগত দুইবার আপনারা আমাকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত করেন। বিশেষ করে ২০০৮ সালে প্রায় ১ লাখ ভোটের ব্যবধানে আমাকে বিজয়ী করেছিলেন। বিনিময়ে আমি দিনরাত আপনাদের জন্য পরিশ্রম করে যাচ্ছি। কি কাজ করেছি, তা আপনাদের চোখের সামনেই। আমার চাওয়া-পাওয়ার কিছু নেই। জনগণের জন্য কাজ করতে পারলেই মনে শান্তি পাই। শুধু দোয়া করবেন আমার কাজগুলো যেন ইবাদত হিসেবে কবুল হয়। মানুষ যখন কাজ করে, বিনিময়ে ভালবাসা প্রত্যাশা করতে পারে। আমি দিনরাত কাজ করেছি বলেই আপনারা আমাকে বিভিন্ন সময়ে মূল্যায়ন করেছেন। মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে গোপায়া ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে আয়োজিত পৃথক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি’র বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।
এমপি আবু জাহির বলেন, বিএনপি’র আমলে সাইফুর রহমান অর্থমন্ত্রী ছিলেন। হবিগঞ্জে দূরে থাক, তার এলাকা মৌলভীবাজারেও একটি মেডিকেল কলেজ করতে পারেননি। আমি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিকট থেকে উপহার হিসেবে আপনাদের জন্য একটি মেডিকেল কলেজ নিয়ে এসেছি। হবিগঞ্জ আধুনিক জেলা সদর হাসপাতালকে আড়াইশ’ শয্যায় উন্নীত করেছি। মেডিকেল কলেজের সম্পূর্ণ কাজ শেষ হলে সেখানে আরো ৫শ’ শয্যার হাসপাতাল হবে। তখন আর হবিগঞ্জবাসীকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা-সিলেটে উদ্দেশ্যে রওয়ানা দিয়ে পথিমধ্যে প্রাণ হারাতে হবে না। বরং দেশের বিভিন্ন স্থানের লোকজন এখানে এসে উন্নত চিকিৎসা গ্রহণ করবে। এর মাধ্যমে ব্যবসা-বাণিজ্যের উন্নয়নসহ ব্যাপক কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হবে। কিছুদিনের মধ্যেই আপনাদের জন্য একটি কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করা হবে। হবিগঞ্জের সর্বত্র উন্নয়ন হয়েছে। পিছিয়ে নেই গোপায়া ইউনিয়নও। এখানে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং রাস্তাঘাট ও ব্যাপক অবকাঠামোগত উন্নয়ন করেছি। বিশেষ করে একাধিক ব্রীজ এবং রাস্তা নির্মাণের ফলে গোপায়া ইউনিয়ন শহরে পরিণত হয়েছে। বাকী যেগুলো রয়েছে সেগুলো পর্যায়ক্রমে করব ইনশাল্লাহ। উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মশিউর রহমান শামীম, উপ-দপ্তর সম্পাদক এডঃ শাহ ফখরুজ্জামান, জেলা যুবলীগ সভাপতি আতাউর রহমান সেলিম, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডঃ আব্দুল আহাদ ফারুক, সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রশিদ তালুকদার ইকবাল, আব্দুল্লাহ সরদার, নুরুজ্জামান চৌধুরী, চেয়ারম্যান মোঃ আক্তার হোসেন, আব্দুল মালেক, জালাল মেম্বার, এডঃ আবুল কালাম, নজরুল ইসলাম শামীম, জাকারিয়া চৌধুরী, জাহির আহমেদ, হাজী চেরাগ আলী, আরফান হাজী, জালাল সরদার, অধ্যক্ষ রফিক আলী, কুতুব উদ্দিন, সিরাজ খান, নজরুল ইসলাম সিদ্দিকী, এডঃ আজিজুর রহমান খান সজল, ফরিদ আহমেদ, শেখ সেবুল আহমেদ, মনির হোসেন সুমন, আব্দুল গণি সরদার, তানভীর আহমেদ জুয়েল, আলমগীর আলম, আছকির মিয়া, লস্কর গাজী, আব্দুল করিম, জালাল মিয়া, খালেক মেম্বার, ফজল মেম্বার, অনু মিয়া মেম্বার, সাবেক মেম্বার ফারুক মিয়া, ছাব্বির আহমেদ রনি, ডাঃ কামাল, গউছ মিয়া, নওশের আহমেদ, রিপন মিয়া প্রমুখ।

Powered by WordPress | Designed by: search engine rankings | Thanks to seo services, denver colorado and locksmiths

Design & Developed BY PopularServer.Com