বুধবার, ২৪ Jul ২০১৯, ০২:১২ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের অভিযোগে ॥ ব্যারিস্টার সুমনের বিরুদ্ধে মামলা ॥ প্রতিবাদে হবিগঞ্জের বিভিন্ন স্থানে মানববন্ধনসহ বিভিন্ন কর্মসূচি ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হবিগঞ্জ সিভিল সার্জনের মৃত্যু মির্জাপুর থেকে প্রেমিক জুটি আটক ॥ কারাগারে প্রেরণ ১০ ইউপি চেয়ারম্যান উপস্থিত না হওয়ায় নবীগঞ্জ উপজেলা সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়নি বার্মিংহামে হবিগঞ্জ নাগরিক সমাজের সাথে মতবিনিময়কালে এমপি আবু জাহির ॥ দেশবিরোধী চক্রান্তকারীদের ব্যাপারে সতর্ক থাকার আহবান মাধবপুরে রাষ্ট্রদূতের বাড়িতে ডাকাতির ঘটনায় গ্রেফতার ১ নবীগঞ্জ ও বাহুবলে অসুস্থ রোগীদেরকে চিকিৎসা সহায়তা দিলেন এমপি মিলাদ গাজী চুনারুঘাটে নিখোঁজ প্রেমিক যুগল প্রেমিকের মা-সহ ৩ জন আটক নবীগঞ্জের দেবপাড়ায় নিহা ফ্যাশন উদ্বোধন করলেন এমপি মিলাদ গাজী বানিয়াচঙ্গে ২৮ মাস বেতন না পেয়ে মানবেতর জীবন কাটাচ্ছেন প্রধান শিক্ষক
বাহুবলে ঘুষ দিয়ে দেড় বছরেও বিদ্যুৎ পায়নি ২৯ পরিবার

বাহুবলে ঘুষ দিয়ে দেড় বছরেও বিদ্যুৎ পায়নি ২৯ পরিবার

বাহুবল প্রতিনিধি ॥ বাহুবলে এক ব্যক্তিকে ঘুষ দিয়ে দেড় বছরেও বিদ্যুৎ পায়নি ২৯ পরিবার। বিদ্যুৎ দেওয়ার নামে ওই পরিবারগুলো কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা নিয়ে সটকে গেলে আব্দুল কাদির নামের ওই ব্যক্তি। এ ব্যাপারে প্রতিকার চেয়ে বঞ্চিত পরিবারগুলোর সদস্যরা বাহুবল উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে আবেদন করেছেন।
বাহুবল উপজেলার স্নানঘাট ইউনিয়নের অমৃতা গ্রামের একাংশ বিদ্যুতের আলোয় আলোকিত হলেও কিছু অংশ বঞ্চিত ছিল। এ অবস্থায় গত বছরের শুরুর দিকে ওই গ্রামের ২৯টি পরিবার বিদ্যুৎ আনার জন্য ঐক্যবদ্ধ হয়। খবর পেয়ে একই গ্রামের মছাদ উল্লার পুত্র মোঃ কাদির মিয়া তাদের সাথে যোগাযোগ করে। সে জানায়, হবিগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কর্মকর্তাদের সাথে তার জানা-শোনা ও যোগাযোগ আছে। টাকা দিলে সে তাদের মাধ্যমে বিদ্যুৎ পাওয়ার ব্যবস্থা করে দেবে। গ্রামের সহজ-সরল মানুষগুলো তাকে বিশ্বাস করে গত বছরের মার্চ মাসে নগদ ৬০ হাজার টাকা তোলে দেয়। এ সময় সে অচিরেই বিদ্যুতের ব্যবস্থা করে দেবে বলে প্রতিশ্র“তি দেয়। কয়েক মাস অতিবাহিত হলেও বিদ্যুৎ লাইন সম্প্রসারণের কোন প্রক্রিয়া শুরু না হওয়ায় উদ্যোক্তারা মোঃ আব্দুল কাদিরের সাথে যোগাযোগ করেন। সে আজ নয়, কাল বলে বলে সময় ক্ষেপন করতে থাকে। এক পর্যায়ে উদ্যোক্তাদের ধৈর্য্যরে বাঁধ ভেঙে গেলে তারা স্থানীয় মুরুব্বী, ইউপি মেম্বার ও চেয়ারম্যানের সাথে যোগাযোগ করেন। কোথাও তারা সুবিচার পাননি। এ অবস্থায় ভুক্তভোগীরা গতকাল রোববার বাহুবল উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে লিখিত অভিযোগ দাখিল করে প্রতিকার প্রার্থনা করেন।
এ ব্যাপারে জানতে অভিযুক্ত আব্দুল কাদিরের ব্যক্তিগত মোবাইল ফোনে বার বার চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com