মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ০৭:২৮ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
ফেইসবুকে সরকার ও রাষ্ট্রবিরোধী প্রচারণা ॥ লাখাইর সাবেক কৃষি কর্মকর্তা আহসান হাবিবের বিরুদ্ধে তদন্ত কমিটি গঠন নবীগঞ্জের চেয়ারম্যান মুকুলের বরখাস্তের আদেশ বহাল সমৃদ্ধ দেশ গড়তে যুব সমাজকে কাজে লাগাতে হবে-এমপি আবু জাহির চাঁদাবাজির মামলায় স্বাক্ষী হওয়ায় বাস শ্রমিককে হুমকির অভিযোগ দুই লন্ডনীর বিরুদ্ধে মামলা বিএনপি নেতা নাজমুল হুদা এখন স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা পইলে সৈয়দ আহমদুল হক ফুটবল টুর্নামেন্টের কোয়ার্টার ফাইনাল শুরু পাঁচপাড়িয়া গ্রামে মরহুম আরফান আলী ব্যাডমিন্টন টুর্ণামেন্ট ও আলোচনা সভা বানিয়াচঙ্গের হিয়ালায় জুয়া খেলার অপরাধে ৪ জনের প্রত্যেককে ১৫ দিন করে বিনাশ্রম কারাদ- প্রদান নবীগঞ্জের বাউসি গ্রামে দুর্বৃত্তের হামলায় রবি পরিবার গৃহহারা হবিগঞ্জ জেলা ট্রাক ও ট্যাংকলড়ী শ্রমিক ইউনিয়ন নির্বাচনে মনোনয়ন ফরম বিতরণ
শহরের চাঁদের হাসি হাসপাতালে রোগীর সাথে অভিনব প্রতারণা

শহরের চাঁদের হাসি হাসপাতালে রোগীর সাথে অভিনব প্রতারণা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ হবিগঞ্জ শহরে গড়ে উঠেছে অর্ধশতাধিক প্রাইভেট ক্লিনিক। ঢাকাসহ দেশের নামিদামী হাসপাতালের নাম ব্যবহার করে ওই সকল হবিগঞ্জের প্রাইভেট ক্লিনিকগুলো সাধারণ মানুষের সাথে চালিয়ে যাচ্ছে অভিনব প্রতারণার। শুধু মাত্র নামের আগের দি বা নিউ শব্দ ব্যবহার করে দেশের স্বনামধন্য প্রাইভেট হাসপাতালের নাম ব্যবহার করে নিত্যনতুন প্রতারনা করে যাচ্ছেন কতিপয় ক্লিনিক মালিক। আর এ সব ক্লিনিকে রোগী দেখার নাম করে সপ্তাহের বৃহস্পতি ও শুক্রবারে বসছে ডাক্তারের হাট। হাতেগুণা কয়েকজন ভাল ডাক্তার আসলেও অধিকাংশ ক্লিনিকেই আসছেন ভূয়া ডিগ্রীধারী এফসিপিএস প্রথম পর্ব, দ্বিতীয় পর্ব আর শেষ পর্বে অধ্যায়নরত ডাক্তাররা। কোন কোন ডাক্তার এফসিপিএসে ভর্তি না হয়েও সাইন বোর্ডে এফসিপিএস শেষ পর্ব লিখে প্রতারনার আশ্রয় নিয়ে রোগীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত ফি নিচ্ছে। এতে করে ক্লিনিক মালিক ও ডাক্তাররা হাতিয়ে নিচ্ছেন লাখ লাখ টাকা। এক ডাক্তারের নাম দিয়ে ভিজিট নিয়ে অন্য ডাক্তার দেখিয়ে রোগীদের বিদায় দিচ্ছেন প্রাইভেট ক্লিনিক মালিকরা। এমনই এক অভিনব প্রতারণার প্রমাণ মিলেছে হবিগঞ্জ শহরের জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে অবস্থিত চাঁদের হাসি হাসপাতালে। সম্প্রতি চাঁদের হাসি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এক ডাক্তারের নামে ভিজিটি নিয়ে অন্য ডাক্তারকে দিয়ে রোগীর চিকিৎসা দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে করে প্রতারণার শিকার হচ্ছেন গ্রাম-গঞ্জ থেকে আসা সাধারণ মানুষ। শুক্রবার এমনই একটি ঘটনা ঘটেছে চাঁদের হাসি হাসপাতালে।
রোগীর নাম খুরশেদ মিয়া-বয়স ৬২, হবিগঞ্জ শহরের মোহনপুর এলাকার বাসিন্দা। তিনি হার্টের সমস্যায় ভোগছিলেন। গতকাল শুক্রবার তিনি ডাঃ সোলায়মানকে দেখাতে শহরের চাঁদের হাসি হাসপাতালে যান। রিসিপশনে ৬শ টাকা ভিজিট দিয়ে ডাঃ সোলায়মানের সিরিয়াল নেন। যথারিতি ডাক্তার সাহেবকে দেখিয়ে বাহিরে চলে আসেন। এসে তিনি দেখেন প্রেসক্রিপশনে ডাঃ সোলায়মানের স্থলে ডাঃ সিরাজুর রহমান সারওয়ারের নাম লিখা। খুরশেদ আলীর ছেলে জসিম উদ্দিন তা দেখে হতবাক হয়ে যান। সাথে সাথে তিনি চাঁদের হাসি হাসপাতালের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করেন। কিন্তু চাঁদের হাসি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জসিম উদ্দিনকে সন্তোষজনক কোনো জবাব দেননি। বরং ডাঃ সিরাজুর রহমান সারওয়ারকেই দেখাতে এসেছেন, তা জায়েজ করার চেষ্টা করেন। এতে কিংকর্তব্যবিমুর হয়ে বাড়ি ফিরেন খুরশেদ আলী ও তার ছেলে জসিম উদ্দিন।
এ ব্যাপারে জসিম উদ্দিন বলেন, হবিগঞ্জে এমন হয় তা আমার জানা ছিল না। আমার বাবা ডাঃ সোলাইমানের পরামর্শ নিতে গিয়েছিলেন। কিন্তু ডাঃ সোলায়মানের নাম দিয়ে ডাঃ সিরাজুর রহমান সারোয়ারকে দিয়ে চাঁদের হাসিতে রোগী দেখানো হচ্ছে। এ কেমন প্রতারণা? আমি যখন বললাম উনি কি ডাঃ সোলাইমান, প্রথমে স্বীকার করলেও পরবর্তীতে অস্বীকার করে চাঁদের হাসির লোকজন। তিনি এমন প্রতারনার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবিগঞ্জের সিভিল সার্জনসহ প্রশাসনের নিকট দাবী জানান।
এ ব্যাপারে চাঁদের হাসি হাসপাতালের পরিচালক মোঃ নুর উদ্দিন বলেন, হবিগঞ্জের অনেক রোগী ডাক্তার দেখাতে এসে মাস্তান সেজে যায়। তাই আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি এখন থেকে তাদের ধরে ধরে থানায় পাঠিয়ে দেবো। আর ডাক্তার সোলায়মান সাহেবের চেয়ে ডাক্তার ডাঃ সিরাজুর রহমান সারোয়ার অনেক বড় ডাক্তার। তাই রিসিপশনে যারা ছিল তারা বিষয়টি ভাল মনে করে হয়তো এটা করেছিল। এখন রোগী যদি বিষয়টি ভালভাবে না নেয় তাহলে টাকা ফিরত দিয়ে দেবো।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com