বৃহস্পতিবার, ২৮ মে ২০২০, ০৩:৪০ পূর্বাহ্ন

নবীগঞ্জে শিক্ষিকা ও নবজাতকের মৃত্যুর ঘটনায় নমিতা বদলী পুনরায় তদন্তের দাবী

নবীগঞ্জে শিক্ষিকা ও নবজাতকের মৃত্যুর ঘটনায় নমিতা বদলী পুনরায় তদন্তের দাবী

স্টাফ রিপোর্টার ॥ নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নার্স ও আয়ার ভুল চিকিৎসায় স্কুল শিক্ষিকা প্রসূতি ও নবজাতকের মৃত্যুর ঘটনায় গত ১০ মে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করা হয়েছে। অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় অভিযুক্ত আয়া নমিতা আচার্য্যকে আজমিরীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বদলি করা হয়েছে। সেই সাথে অভিযুক্ত দুই নার্স আরতী দেবনাথ ও চন্দ্রনা দে কে সতর্ক করে দেয়া হয়। কিন্তু ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার ও নবীগঞ্জের সচেতন মহল তা মেনে না নিয়ে ঘটনাটি পুনরায় তদন্ত পূর্বক দোষীদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী তুলেছেন। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ দেয়া হয়েছে। উল্লেখ্য, নবীগঞ্জ পৌর এলাকার শিবপাশা গ্রামের বাসিন্ধা এবং উপজেলার রোকনপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা সুফলা রাণী দাশ (৩৩) কে গভবর্তী অবস্থায় গত ২৮ শে মার্চ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আয়া নমিতা রানী আচার্য্যর পরামর্শ মতে ভর্তি করা হয়। সব ধরণের পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে হাসপাতালেই ভালভাবে সন্তান প্রসব হবে এতে কোন ডাক্তারের প্রয়োজন হবে না বলে আয়া নমিতা আচার্য্য, সিনিয়র স্টাফ নার্স আরতি বালা ও চন্দনা দেব তাদেরকে নিশ্চয়তা দেন। বিষেশজ্ঞ কোন চিকিৎসক ছাড়াই তারা তিন জনের সমন্বয়ে শুরু করেন ওই প্রসূতির ডেলিভারীর কাজ।
এক পর্যায়ে প্রসূতির অতিরিক্ত রক্ত ক্ষরণ হয়। তার অবস্থার বেগতিক দেখে দীর্ঘ প্রায় ৩ ঘন্টা অতিবাহিত হওয়ার পর দায়ভার এড়াতে কৌশলে তারা সন্ধ্যা ৭টার দিকে রোগীকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। পথিমধ্যে আউশকান্দি সংলগ্ন স্থানে পৌছলে প্রসূতি মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন।
এ ঘটনায় গত ৪ এপ্রিল মৃত্যুবরনকারী শিক্ষিকার ভাই সুজন দাশ বাদী হয়ে সুবিচার চেয়ে হবিগঞ্জ জেলা সিভিল সার্জনের নিকট লিখিত অভিযোগ দায়েরের ফলে গত ২৩ এপ্রিল হবিগঞ্জের ডেপুটি সিভিল সার্জন সত্যজিত রায় বিষয়টি তদন্ত করেন।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com