শনিবার, ০৬ Jun ২০২০, ০৪:৪৭ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
শ্রীমঙ্গলে একই ঘরে মা ও মেয়ের রহস্যজনক মৃত্যু নবীগঞ্জে স্বাভাবিক জীবনে ফিরছে মানুষ মুখে মাস্ক বিহীন অবাধে চলাচল শুরু নবীগঞ্জে ঢাকা থেকে বাড়ি ফেরত ব্যক্তি করোনা আতঙ্কে দ্বন্দ্ব, সংঘর্ষে আহত ১৫ নবীগঞ্জে মরহুম সাংবাদিক সোহেলের পরিবারের পাশে এমপি মিলাদ গাজী মাধবপুরে ভারতীয় গাঁজাসহ ৩ পাচারকারী আটক নবীগঞ্জের নহরপুরে জামে মসজিদ নিয়ে বিদ্যমান দু’দশকের বিরোধের অবসান লক্ষাধিক টাকার মাদকদ্রব্যসহ মাধবপুরের ২ ব্যবসায়ীসহ আটক ৪ হবিগঞ্জে বিদ্যুৎকর্মীর মৃত্যুর ৫ দিন পর জানা গেলো তিনি করোনা পজেটিভ চুনারুঘাটে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় ৩জন আহত বাহুবল ও আজমিরীগঞ্জে বজ্রপাতে ৩ কিশোর নিহত
গহীন অরণ্যে র‌্যাবের ৫ম দফা অভিযান ॥ সাতছড়ি থেকে ১০টি রকেট উদ্ধার

গহীন অরণ্যে র‌্যাবের ৫ম দফা অভিযান ॥ সাতছড়ি থেকে ১০টি রকেট উদ্ধার

পাবেল খান চৌধুরী/মোঃ ছানু মিয়া ॥
চুনারুঘাটের সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানের গহীন অরণ্যের একটি টিলা থেকে ১০টি অ্যান্টি ট্যাংক রকেট উদ্ধারের মাধ্যমে উদ্ধার অভিযান সমাপ্তি ঘোষণা করেছে র‌্যাব। এটি র‌্যাবের ৫ম দফা অস্ত্র উদ্ধার অভিযান। ইতোপূর্বে সাতছড়ি গহীন অরণ্যে ৪দফা অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার করে র‌্যাব। শুক্রবার রাত থেকে গতকাল শনিবার দুপুর পর্যন্ত এই অভিযান চালায় র‌্যাব। যে টিলা থেকে অস্ত্রগুলো উদ্ধার করা হয়েছে সেই টিলাটির অবস্থান সাতছড়ি ত্রিপুরা পল্লীর পূর্ব-উত্তর দিকে। ওই টিলার আশপাশে কোন জনবসতি নেই।
অস্ত্র উদ্ধার সমাপ্তির পর গতকাল শনিবার ৩টার দিকে প্রেস ব্রিফিং করেন র‌্যাবের লিগ্যাল এন্ড মিডিয়া উইং এর প্রধান লেঃ কর্ণেল মুফতি মাহমুদ খান। প্রেস ব্রিফিংয়ে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) এর ডিজি অংশ নেয়ার কথা থাকলেও তিনি আবহাওয়া খারাপ থাকার কারণে আসেননি।
মুফতি মাহমুদ খান জানান, গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে শুক্রবার রাত থেকে অস্ত্র উদ্ধার অভিযানে নামে র‌্যাব। গতকাল শনিবার দুপুর পর্যন্ত এই অভিযান চলে। অভিযানকালে ট্যাংকবিধ্বংসী ১০টি রকেট প্রোপেল্ড গ্রেনেড (আরপিজি) শেল উদ্ধার করা হয়েছে। আরপিজি রাশিয়া ও চিনের তৈরী অস্ত্র। এটির শেল ভূমিতে প্রতি সেকেন্ডে ১১৫ মিটার গতিতে এবং আকাশে ৩০০ মিটার গতিতে ছুটতে পারে। এটির আঘাতে ট্যাংক, সাজোয়াযান ও আকাশে উড়ন্ত বিমান-হেলিকপ্টার ধ্বংস হয়ে যায়। উদ্ধার করা এসব অ্যান্টি ট্যাংক রকেট খুবই শক্তিশালী যা ১৫ কিলোমিটার দূরবর্তী স্থান পর্যন্ত ট্যাংক বিধ্বংস করার সক্ষমতা রয়েছে।
সংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, অভিযান সমাপ্ত ঘোষণা করা হয়েছে। তবে ওই এলাকাটিতে গোয়েন্দা নজরদারী অব্যাহত থাকবে। দুস্কৃতিকারীরা যাতে এই এলাকাকে ব্যবহার করে কোনো বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে না পারে সে ব্যাপারে র‌্যাব সতর্ক রয়েছে বলেও জানান তিনি।
প্রেস ব্রিফিংকালে অন্যানের মাঝে উপস্থিত ছিলেন র‌্যাব-৯ সিলেট ক্যাম্পের কমান্ডিং অফিসার লেঃ কর্ণেল আলী আয়দার আজাদ আহমেদ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ মনিরুজ্জামান ও বিমান চন্দ্র কর্মকার। এ সময় হবিগঞ্জের জেলা প্রশাসক মনীষ চাকমা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আসম সামছুর রহমান ভূইয়া, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার এসএম রাজু আহমেদ, চুনারুঘাট থানার ওসি কে এম আজমিরুজ্জামান ও মাধবপুর থানার ওসি চন্দন কুমার চক্রবর্তীসহ র‌্যাব এবং পুলিশের শতাধিক সদস্য উপস্থিত ছিলেন।
প্রসঙ্গত, এর আগে ২০১৪ সালে সাতছড়িতে ৪ দফায় ৬ বার বিপুল পরিমাণ অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার করে র‌্যাব। ১ জুন থেকে ১৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ৩ দফায় ৩৩৪টি কামান বিধ্বংসী রকেট, ২৯৬টি রকেট চার্জার, ১টি রকেট লঞ্চার, ১৬টি মেশিনগান, ১টি বেটাগান, ৬টি এসএলআর, ১টি অটো রাইফেল, ৫টি মেশিন গানের অতিরিক্ত খালি ব্যারেল, প্রায় ১৬ হাজার রাউন্ড বুলেটসহ বিপুল পরিমাণ গোলাবারুদ উদ্ধার করে র‌্যাব। পরে ১৬ অক্টোবর থেকে ৪র্থ দফার ১ম পর্যায়ে উদ্যানের গহীণ অরণ্যে মাটি খুড়ে ৪র্থ দফায় ৩টি মেশিন গান, ৪টি ব্যারেল, ১৩টি এমজি এমনেশন বক্স, ৮টি ম্যাগজিন, ২৫০ গুলির ধারণক্ষমতা সম্পন্ন ৮টি বেল্ট ও উচ্চক্ষমতা সম্পন্ন একটি রেডিও উদ্ধার করা হয়। সর্বশেষ ১৭ অক্টোবর দুপুরে এসএমজি ও এলএমজি’র ৮ হাজার ৩৬০ রাউন্ড, ত্রি নট ত্রি রাইফেলের ১৫২ রাউন্ড, পিস্তলের ৫১৭ রাউন্ড, মেশিনগানের ৪২৫ রাউন্ডসহ মোট ৯ হাজার ৪৫৪ রাউন্ড বুলেট উদ্ধার করা হয়।
এছাড়া এসএমজি’র ২০টি, এলএমজি’র ৫টি, এসএলআর-এর ৬টি, ত্রি নট ত্রি’র ৪টি, এমএমজি ২টি, পিস্তলের ২৯টি ও জি থ্রি’র ১২টিসহ মোট ৮০টি ম্যাগজিন, ৫টি ওয়াকিটকি ও উচ্চক্ষমতা সম্পন্ন একটি রেডিও সেট উদ্ধার করা হয়।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com