রবিবার, ২৪ মে ২০২০, ০৭:২৩ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
শ্রীমঙ্গলে যুবলীগ নেতা সেলিমের উদ্যোগে সাড়ে ৫শ অসহায় মানুষের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ নবীগঞ্জের বিভিন্ন গ্রামে ড. রেজা কিবরিয়ার পক্ষে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ হবিগঞ্জে শেষ হয়েছে ৫দিন ব্যাপি ইয়ূথ এসোসিয়েশন অব ইউকে এর খাদ্য সহায়তা বিতরণ নবীগঞ্জে গৃহহীন দুই বীর সেনা মুক্তিযোদ্ধাকে সেনাবাহিনীর বাসস্থান উপহার আলমগীর চৌধুরীর সৌজন্যে নবীগঞ্জে ১৬৫ পরিবারকে ঈদ উপহার প্রদান নবীগঞ্জে স্বাস্থ্য বিধি অমান্য করায় ভ্রাম্যমান আদালতের জরিমানা “বঙ্গবন্ধু ছাত্র একতা পরিষদ” নেতা রায়হান এর উদ্যোগে ইফতার বিতরণ এখন প্রমান করার সময় মানুষ মানুষের জন্য-মোতাচ্ছিরুল ইসলাম অনাহারী মুখ খাবার তুলে দিচ্ছেন হবিগঞ্জ ছাত্র সমন্বয় ফোরাম বাগুনিপাড়া ডিফেন্স হোল্ডার এ্যাসোসিয়েশন ঈদ উপহার বিতরন
যত্রতত্র গড়ে উঠেছে অবৈধ টমটমের গ্যারেজ ॥ ৩ মালিককে জরিমানা

যত্রতত্র গড়ে উঠেছে অবৈধ টমটমের গ্যারেজ ॥ ৩ মালিককে জরিমানা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ হবিগঞ্জ শহরের বিভিন্ন এলাকায় ব্যাঙের ছাতার মত গড়ে উঠেছে অবৈধ টমটমের গ্যারেজ। এসব গ্যারেজে টমটমের ব্যাটারি চার্জের জন্য নামমাত্র মিটার ব্যবহার করে অবৈধ সংযোগ দিয়ে গ্যারেজ ব্যবসা পরিচালনা করে যাচ্ছে কতিপয় গ্যারেজ মালিক। আর এ কারণে হবিগঞ্জ শহরে বিদ্যুত বিভ্রাট হচ্ছে। গত ১২ নভেম্বর হবিগঞ্জ শহর ও শহরতলীর তিন অবৈধ টমটম গ্যারেজ মালিকের বিরুদ্ধে মামলা ও জরিমানা করেছে বিদ্যুত বিভাগ। ওই দিন আলমবাজারের তাজ উদ্দিনের গ্যারেজ, উমেদনগর বানিয়াচং সড়কের আব্দুল খালেক কাজলের গ্যারেজ ও একই এলাকার লস্কর মিয়ার গ্যারেজকে বিভিন্ন অংকের আর্থিক জরিমানা করা হয়। হবিগঞ্জ বিদ্যুত উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী শামস-ই আরেফীন জানান, অবৈধভাবে বিদ্যুত সংযোগের কারণে আব্দুল খালেক কাজল ও লস্কর মিয়ার বিরুদ্ধে বিদ্যুত আইনে মামলা চলমান আছে এবং তাজ উদ্দিনের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত অনুসারে বিরুদ্ধে মামলা করা হবে।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে-হবিগঞ্জ শহরে ৫ হাজারের বেশী ব্যাটারী চালিত টমটম চলাচল করে থাকে। এসব টমটমের ব্যাটারি চার্জ দেয়ার জন্য ছোট বড় মিলিয়ে শহরের বগলাবাজার, চিড়াকান্দি, মাছুলিয়া ব্রীজের পূর্ব পাড়ের একটি মার্কেট, খাদ্য গুদাম রোড, পুরানমুন্সেফী, ২নং পুল, তেঘরিয়া আবাসিক এলাকা, বহুলা এবং কোর্ট স্টেশন এলাকা, পোদ্দার বাড়ি, মোহনপুর, তেঘরিয়া, পৈল রোড, অনন্তপুর, মাহমুদাবাদ, শ্যামলী, শ্মশানঘাট, নোয়াবাদ, উমেদনগর, রাজনগর, জালালাবাদ, আনোয়ারপুর, পাতাড়িয়া, আলমপুরসহ বিভিন্ন স্থানে ১শ’র বেশী গ্যারেজ স্থাপন করা হয়েছে। এসব গ্যারেজে টমটম চার্জ দেয়ার ফলে অতিরিক্ত চাপ সামলাতে না পেরে বিদ্যুতের লোডশেডিং সৃষ্টি হয়। প্রায় সময়ই দেখা যায় অতিরিক্ত লোডের কারণে মেইন লাইনের তার ছিড়ে যায়। এতে করে প্রতিদিনই ১ থেকে ২ ঘন্টা বিদ্যুতবিহীন অবস্থায় থাকতে হয় শহরবাসীকে।
টমটম গ্যারেজের মালিকরা প্রভাবশালী হওয়ায় ভূক্তভোগী এলাকাবাসী মুখ খুলতেও ভয় পাচ্ছেন। হবিগঞ্জ পৌরসভা থেকে ১২শ টমটমের অনুমতি দেয়া হলেও বর্তমানে শহরে টমটমের সংখ্যা ৫ হাজারেরও বেশী ছাড়িয়েছে। তবে ১২শ টমটমই কোথায় চার্জ দেয়া হবে তারও নির্ধারিত স্থান নির্ণয় করা হয়নি।
এক জরিপে দেখা গেছে, গরুরবাজার, কামড়াপুর থেকে কিবরিয়া ব্রীজ পর্যন্ত ছোট বড় ব্যাঙের ছাতার মত অর্ধশতাধিক টমটম গ্যারেজ রয়েছে। এছাড়া পোদ্দারবাড়ি এলাকায়ও বেশ কয়েকটি এ ধরনের টমটম গ্যারেজ রয়েছে। ওইসব এলাকায় মোবাইল কোর্ট গেলে নিমিষেই গ্যারেজ হয়ে যায় গুদাম ঘর হয়ে যায়।
টমটম গ্যারেজ মালিকদের বিরুদ্ধে শহরবাসী ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছেন। এ ব্যাপারে শিগগির ব্যবস্থা নেয়া না নিলে জনবিস্ফোরণ ঘটতে পারে বলে আশংকা করছেন শহরবাসী।
এ ব্যাপারে বিদ্যুত উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী শামস-ই আরেফীন জানান, হবিগঞ্জ শহরে কোন বৈধ টমটম গ্যারেজ নেই। বানিজ্যিকভাবে লাইন নিয়ে অনেকে ব্যবসা পরিচালনা করছেন।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com