সোমবার, ২৫ মে ২০২০, ০৩:৩৭ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
শ্রীমঙ্গলে যুবলীগ নেতা সেলিমের উদ্যোগে সাড়ে ৫শ অসহায় মানুষের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ নবীগঞ্জের বিভিন্ন গ্রামে ড. রেজা কিবরিয়ার পক্ষে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ হবিগঞ্জে শেষ হয়েছে ৫দিন ব্যাপি ইয়ূথ এসোসিয়েশন অব ইউকে এর খাদ্য সহায়তা বিতরণ নবীগঞ্জে গৃহহীন দুই বীর সেনা মুক্তিযোদ্ধাকে সেনাবাহিনীর বাসস্থান উপহার আলমগীর চৌধুরীর সৌজন্যে নবীগঞ্জে ১৬৫ পরিবারকে ঈদ উপহার প্রদান নবীগঞ্জে স্বাস্থ্য বিধি অমান্য করায় ভ্রাম্যমান আদালতের জরিমানা “বঙ্গবন্ধু ছাত্র একতা পরিষদ” নেতা রায়হান এর উদ্যোগে ইফতার বিতরণ এখন প্রমান করার সময় মানুষ মানুষের জন্য-মোতাচ্ছিরুল ইসলাম অনাহারী মুখ খাবার তুলে দিচ্ছেন হবিগঞ্জ ছাত্র সমন্বয় ফোরাম বাগুনিপাড়া ডিফেন্স হোল্ডার এ্যাসোসিয়েশন ঈদ উপহার বিতরন
পৌর কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়াই টমটম ভাড়া বৃদ্ধি ॥ ‘কার বাড়ির মরা, কে দেয় ধোঁয়া’

পৌর কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়াই টমটম ভাড়া বৃদ্ধি ॥ ‘কার বাড়ির মরা, কে দেয় ধোঁয়া’

স্টাফ রিপোর্টার ॥ হবিগঞ্জ পৌর কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়াই টমটম ভাড়া বাড়ানো হয়েছে। যেখানে বিভিন্ন শহরে টমটম উঠিয়ে দেয়া হয়েছে সেখানে হবিগঞ্জ পৌর কর্তৃপক্ষ টমটমকে লাইসেন্স দিয়ে শহরে চলাচলের সুযোগ করে দিয়েছে। আর এখন লাইসেন্স প্রদানকারী কর্তৃপক্ষই বলছে, তারা জানেনা কিভাবে কারা ভাড়া বাড়িয়েছে। এতে করে পৌর কর্তৃপক্ষের সীমাবদ্ধতা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। তাহলে কি পৌর কর্তৃপক্ষ  অসহায়, এমন মন্তব্য করছেন শহরবাসী। এ ব্যাপারে রশিকজনদের মন্তব্য হচ্ছে ‘কার বাড়ির মরা, কে দেয় ধোঁয়া’।
এ ব্যাপারে হবিগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব জিকে গউছ এর নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন-আমাদের সাথে আলোচনা করে ভাড়া বাড়ানো হয়নি। এ ব্যাপারে আমরা কিছু জানিনা। আমরা ৫টাকা ভাড়া নির্ধারণ করে দিয়েছি। তিনি বলেন, কিছুদিন আগে তারা ভাড়ানোর জন্য এসেছিল, আমি বলে দিয়েছি জেলা প্রশাসকসহ জনসাধারণের সাথে আলোচনা মতামতের ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। এ ক্ষেত্রে পার্শ্ববর্তী জেলাকেও অনুসরণ করা হবে।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, হবিগঞ্জ পৌর কর্তৃপক্ষের লাইসেন্স নিয়ে শহরে প্রায় ১২’শ টম-টম চলাচল করছে। এছাড়া লাইসেন্সবিহীন ও দু’নম্বরী নম্বর প্লেট ব্যবহার করে আরো চলছে সমপরিমাণ টমটম। এ সুযোগকে কাজে লাগিয়ে টমটম মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ গঠন করে সুবিধাভোগী কতিপয় ব্যক্তি ফায়দা হাসিল করছেন। ইতোপূর্বেও টমটম ভাড়া বাড়ানোর ঘোষণা দিয়ে অনেক টমটম চালকের নিকট থেকে একটি চক্র বিপুল পরিমাণ টাকা হাতিয়ে নেয়। এ ব্যাপারে স্থানীয় সংবাদপত্রে সংবাদও প্রকাশ হয়েছে।
গতকাল শুক্রবার থেকে মনগড়াভাবে আবারো টমটম ভাড়া বাড়ানো হয়েছে। প্রত্যেক চালককে টমটমে মূল্য তালিকা রাখার জন্য বলা হয়েছে। এই মূল্য তালিকার বিনিময়ে প্রত্যেক চালকের নিকট থেকে ২১০ টাকা করে আদায় করা হচ্ছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জনৈক ব্যক্তি বলেন, গতকালই কমপক্ষে ৫শতাধিক মূল্য তালিকা চালকের নিকট বিক্রি করা হয়েছে। যার মূল্য লক্ষাধিক টাকা।
এদিকে আকস্মিক টমটম ভাড়া বাড়ানোর ফলে গতকাল চালক ও যাত্রীদের মধ্যে অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছে। অপরদিকে শহরবাসী ও যাত্রীদের মধ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। বেশ কিছু ব্যবসায়ীর সাথে আলাপ হলে তারা জানান, টমটমের কারণে শহরে প্রচণ্ড যানজট হয়। এছাড়া টমটম ব্যাটারি চার্জ দিতে বিদ্যুতের উপর  চাপ পড়ে। অনেকে চোরাই পথে ব্যাটারি চার্জ দিয়ে থাকেন। এতে সরকারী রাজস্ব ফাঁকি দেয়া হচ্ছে। শহর থেকে টমটম উঠিয়ে দেয়ার পক্ষেও অনেকে মতপ্রকাশ করেন।
এ ব্যাপারে জেলা টমটম মালিক -শ্রমিক ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক নুরুল আমিন ভূইয়া জানান, ভাড়া বৃদ্ধির বিসয়ে আমরা সমিতির পক্ষ থেকে পৌর মেয়রের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি ভাড়া বৃদ্ধির প্রস্তাবের সাথে দ্বিমত পোষন করে নেতৃবৃন্দকে বিদায় করে দেন। এর তিনি পার্কিং ফি ২ হাজার টাকার স্থলে ৫ হাজার টাকা আদায় করেন। ফলে আমরা বাধ্য হয়ে শহরের আংশিক অংশে ভাড়া বৃদ্ধি করেছি।
এদিকে ভাড়া বাড়ানোর বিষয়টি সহজভাবে মেনে নিতে পারছেনা হবিগঞ্জ পৌর টমটম মালিক-শ্রমিক কল্যাণ পরিষদ নেতৃবৃন্দ। তারা এ ভাড়া বৃদ্ধির সাথে জড়িত নন উল্লেখ করে সংবাদপত্রে বিবৃতি প্রদান করেছেন।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com