বৃহস্পতিবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২০, ০৩:৩৫ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
নবীগঞ্জের দীঘলবাকে কুশিয়ারা নদীর চর কেটে বালু বিক্রি ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক চার লেনে উন্নীতকরণ বিষয়ে মতবিনিময় যুক্তরাজ্যস্থ বৃন্দাবন কলেজ এলামনাই এসোসিয়েশনের উদ্যোগে কম্বল বিতরণ শহরে সরকারী বৈদ্যুতিক তার পাচারকালে জব্দ ॥ চালক পলাতক ‘নবীগঞ্জে কৃষি ব্যাংকের অনিয়ম তদন্তে নেমেছে হেড-অফিস নবীগঞ্জে ইয়াবাসহ তিন মাদক ব্যবসায়ী আটক মানসিক রোগে আক্রান্ত ঢাবির মেধাবী ছাত্র নবীগঞ্জের শহিদুল মারা গেছেন জাতীয় পার্টি (এরশাদ) এর কেন্দ্রীয় কমিটির বিভিন্ন পদে স্থান পেয়েছেন হবিগঞ্জের ৫ নেতা নবীগঞ্জে চেক জাতিয়াতি মামলায় মাখন গ্রেফতার বরুন সিকদার এর “কবি হইব” প্রকাশিত হতে যাচ্ছে একুশে গ্রন্থমেলা থেকে
শহরে দুর্ঘটনায় স্কুলছাত্র নিহত ভাবিয়ে তুলেছে শহরবাসীকে ॥ প্রশাসন ও অভিভাবকদের দায়ী করছেন সচেতন মহল

শহরে দুর্ঘটনায় স্কুলছাত্র নিহত ভাবিয়ে তুলেছে শহরবাসীকে ॥ প্রশাসন ও অভিভাবকদের দায়ী করছেন সচেতন মহল

স্টাফ রিপোর্টার ॥ হবিগঞ্জ শহরে মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় স্কুলছাত্র নিহত হওয়ার ঘটনায় ভাবিয়ে তুলেছে শহরবাসীকে। সেই সাথে প্রশাসন এবং কিছু অভিভাবকের ভূমিকা নিয়েও শহরবাসীর মধ্যে নানা প্রশ্নের সৃষ্টি হয়েছে।
শহরের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে স্থানীয় বাসিন্দা এবং সচেতন মহলের সাথে আলাপ করে জানা গেছে, জেলা এবং সদর উপজেলার মাসিক সভায় শহরে দিনের বেলায় ট্রাকসহ ভারী যানবাহন চলাচল বন্ধ এবং দুই জনের অধিক বেপরোয়া গতির মোটরসাইকেল আরোহীদের ব্যাপারে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য সিদ্ধান্ত হয়। কিন্তু বাস্তবে দেখা যাচ্ছে, শহরে দিনের বেলায় যখন তখন ট্রাকসহ ভারী যানবাহন চলাচল করছে। এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নকারী কর্তৃপক্ষ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কার্যকরী কোন পদক্ষেপ পরিলক্ষিত হয়নি। এছাড়া শহরে কিছু মোটরসাইকেল দুইয়ের অধিক আরোহী নিয়ে বেপরোয়া গতিতে চলাচল করছে। বিশেষ করে শহরের পিছনের সড়কেই এইসব বেপরোয়া মোটরসাইকেল চলাচল করতে দেখা যায়। এছাড়া কোন কোন পাড়া-মহল্লার রাস্তা দিয়েও তাদের যাতায়াত রয়েছে।
স্থানীয়দের অভিযোগ, এইসব বেপরোয়া মোটরসাইকেল আরোহীরা বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সামনে এসে চিৎকাত হয়ে বিভিন্ন অঙ্গভঙ্গিতে চলাচল করে থাকে। এসময় পথচারিরা অসহায়ের মত রাস্তার পাশে দাড়িয়ে তাদেরকে রাস্তা ফাঁকা করে দিতে হয়। কেউ প্রতিবাদ করলে হেনস্তা হতে হয়। এসব মোটরসাইকেল আরোহীর বেশীর ভাগই স্কুল ও সদ্য ভর্তি হওয়া কলেজ ছাত্র। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সন্ধ্যার পর এরা বিভিন্ন স্থানে জড়ো হয়ে আড্ডা জমিয়ে তুলে। এ অবস্থায় পথচারীদেরকে বিব্রত অবস্থায় পড়তে হয়।
এদিকে টিনএজ বয়সের এসব ছাত্রদের এধরণের চলাফেরার জন্য অভিভাবকদেরও দায়ী করছেন সচেতন মহলটি। সচেতন মহলের মতে, তাদের সন্তানদের মোটরসাইকেল কিনে দিয়ে সন্তান কোথায় যাচ্ছে, কি করছে সেই ব্যাপারে খোজ খবর নেয়া প্রয়োজন। সন্ধ্যায় ছাত্ররা পড়া-লেখা করতে বসবে, কিন্তু তা না করে বিভিন্ন স্থানে আড্ডা দিতে দেখা যায়।
এইসব ব্যাপারে অভিভাবকদের সচেতন হওয়া এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে কার্যকর পদক্ষেপ নেয়া প্রয়োজন বলে শহরবাসী মনে করেন। স্কুলছাত্র জিসান আহমেদের মত আর যেন কাউকে ভাগ্যবরণ করতে না হয় সে ব্যাপারে অভিভাবকদের আরো বেশী করে সচেতন হওয়া প্রয়োজন রয়েছে।
উল্লেখ্য, শহরের নাতিরাবাদ এলাকার আব্দুস সহিদের ছেলে হবিগঞ্জ হাইস্কুল এন্ড কলেজের নবম শ্রেণির ছাত্র জিসান আহমেদ দুর্ঘটনার শিকার হয়ে নিহত হয়। মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে জিসান তার এক বন্ধুকে নিয়ে মোটরসাইকেলযোগে পিছনের সড়ক দিয়ে চৌধুরী বাজারের দিকে আসছিলেন। মহিলা কলেজের সামনে পৌছুলে বালু বোঝাই একটি ট্রাক জিসানের মোটরসাইকেলকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই জিসানের মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় উত্তেজিত জনতা সড়ক অবরোধ করে ও ঘাতক ট্রাকে আগুন দেয়। পরে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়।
জিসানের অকাল মৃত্যুতে মুষড়ে পড়েছে তার পরিবার। এই ধরণের মৃত্যুকে কোনভাবেই মেনে নিতে পারছেননা তার মা-বাবাসহ আত্মীয়-স্বজনরা।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com