বুধবার, ২৪ Jul ২০১৯, ০২:৩৫ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের অভিযোগে ॥ ব্যারিস্টার সুমনের বিরুদ্ধে মামলা ॥ প্রতিবাদে হবিগঞ্জের বিভিন্ন স্থানে মানববন্ধনসহ বিভিন্ন কর্মসূচি ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হবিগঞ্জ সিভিল সার্জনের মৃত্যু মির্জাপুর থেকে প্রেমিক জুটি আটক ॥ কারাগারে প্রেরণ ১০ ইউপি চেয়ারম্যান উপস্থিত না হওয়ায় নবীগঞ্জ উপজেলা সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়নি বার্মিংহামে হবিগঞ্জ নাগরিক সমাজের সাথে মতবিনিময়কালে এমপি আবু জাহির ॥ দেশবিরোধী চক্রান্তকারীদের ব্যাপারে সতর্ক থাকার আহবান মাধবপুরে রাষ্ট্রদূতের বাড়িতে ডাকাতির ঘটনায় গ্রেফতার ১ নবীগঞ্জ ও বাহুবলে অসুস্থ রোগীদেরকে চিকিৎসা সহায়তা দিলেন এমপি মিলাদ গাজী চুনারুঘাটে নিখোঁজ প্রেমিক যুগল প্রেমিকের মা-সহ ৩ জন আটক নবীগঞ্জের দেবপাড়ায় নিহা ফ্যাশন উদ্বোধন করলেন এমপি মিলাদ গাজী বানিয়াচঙ্গে ২৮ মাস বেতন না পেয়ে মানবেতর জীবন কাটাচ্ছেন প্রধান শিক্ষক
সরকারী বৃন্দাবন কলেজের ডিগ্রি পরীক্ষার্থীকে স্ত্রী দাবী করে তুলে নেয়ার চেষ্টা ব্যর্থ

সরকারী বৃন্দাবন কলেজের ডিগ্রি পরীক্ষার্থীকে স্ত্রী দাবী করে তুলে নেয়ার চেষ্টা ব্যর্থ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ হবিগঞ্জ শহরের সরকারি বৃন্দাবন কলেজের ডিগ্রি পরীক্ষার্থী (২০) কে স্ত্রী দাবি করে জোরপূর্বক ধরে নিয়ে যাওয়া চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়েছে শাহনুর (২৫) নামের এক যুবক। এ সময় ওই ছাত্রীকে রক্ষা করতে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এলে তাদের সাথে ওই যুবকের ধস্তাধস্তি হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে ওই যুবক পালিয়ে যায়। শাহনুর হবিগঞ্জ সদর উপজেলার দক্ষিণ বনগাঁও গ্রামের আব্দুস সহিদের পুত্র।
পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গতকাল মঙ্গলবার বিকালে ওই ছাত্রী সরকারি মহিলা কলেজে পরীক্ষা শেষে বের হয়ে বাড়ি ফিরছিল। এ সময় রাজনগর এলাকায় শাহনুর তার গতিরোধ করে। এ সময় দুইজনের মাঝে বাদানুবাদের সৃষ্টি হলে শাহনুর ওই ছাত্রীকে জোরপূর্বক তুলে নেয়ার চেষ্টা করে। তখন ওই ছাত্রীর চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে শাহনুর লোকজনকে জানায়, মেয়েটি তার স্ত্রী। কিন্তু তার কথায় সন্দেহ হলে স্থানীয় লোকজন তাকে আটক করে পুলিশে খবর দেন। পুলিশ আসার খবর শুনে শাহনুর লোকজনের সাথে ধস্তাধস্তি করে পালিয়ে যায়। এ সময় ওই ছাত্রীও কিছুটা আঘাত প্রাপ্ত হয়। খবর পেয়ে এসআই পার্থ রঞ্জন চক্রবর্তীর নেতৃত্বে পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে যায়। এ সময় ওই ছাত্রী পুলিশকে জানায়, শাহনুরের সাথে তার বিয়ে হয়েছিল। কিন্তু বনিবনা না হওয়ায় ২ বছর আগে সে ওই যুবককে তালাক দেয়। ইতোপূর্বেও শাহনুর সুফলাকে তুলে নিয়ে যাবার চেষ্টা করেছিল বলে জানান ওই ছাত্রী। সুফলা হবিগঞ্জ শহরের মোহনপুর এলাকার মৃত মন্নর আলীর কন্যা ও শাহনুর দুবাই প্রবাসি বলে জানা গেছে।
এ ব্যাপারে সদর থানার এসআই পার্থ রঞ্জন চক্রবর্তী জানান, খবর পেয়েই পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছার আগেই ওই যুবক সটকে পড়ে।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com