শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৪:২৬ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
বানিয়াচং-হবিগঞ্জ সড়কে সিএনজি ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে শিশুর মৃত্যু ॥ আহত ৩ গণভবনে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে কৃতজ্ঞতা জানালেন জেলা আওয়ামীলীগের নতুন সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নবীগঞ্জে কম দামে পেঁয়াজ ক্রয় করতে থানার সামনে ভীড় হবিগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে অ্যাডভোকেট আলমগীর চৌধুরীর চমক মাথায় কাপনের কাপড় ও হাতে লাঠি নিয়ে জেলা ছাত্রদলের বিক্ষোভ হবিগঞ্জ লায়ন্স ক্লাবের নেতৃবৃন্দ ভারতের চেন্নাইয়ে মিনি ইন্টারন্যাশনাল লায়ন্স কনভেনশনে যোগদান করবেন হবিগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের নয়া সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আলমগীর চৌধুরীর কৃতজ্ঞতা প্রকাশ সাংবাদিক ইমদাদকে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে বানিয়াচংয়ে মানববন্ধন মাধবপুর পৌরসভা ও চৌমুহনী ইউনিয়নে তরুণ শিল্পপতি সৈয়দ সাজ্জাদ আহমেদের দরিদ্রদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ নবীগঞ্জ পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ড বিএনপির নির্বাচন কমিশন গঠন
সরকারী বৃন্দাবন কলেজের ডিগ্রি পরীক্ষার্থীকে স্ত্রী দাবী করে তুলে নেয়ার চেষ্টা ব্যর্থ

সরকারী বৃন্দাবন কলেজের ডিগ্রি পরীক্ষার্থীকে স্ত্রী দাবী করে তুলে নেয়ার চেষ্টা ব্যর্থ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ হবিগঞ্জ শহরের সরকারি বৃন্দাবন কলেজের ডিগ্রি পরীক্ষার্থী (২০) কে স্ত্রী দাবি করে জোরপূর্বক ধরে নিয়ে যাওয়া চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়েছে শাহনুর (২৫) নামের এক যুবক। এ সময় ওই ছাত্রীকে রক্ষা করতে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এলে তাদের সাথে ওই যুবকের ধস্তাধস্তি হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে ওই যুবক পালিয়ে যায়। শাহনুর হবিগঞ্জ সদর উপজেলার দক্ষিণ বনগাঁও গ্রামের আব্দুস সহিদের পুত্র।
পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গতকাল মঙ্গলবার বিকালে ওই ছাত্রী সরকারি মহিলা কলেজে পরীক্ষা শেষে বের হয়ে বাড়ি ফিরছিল। এ সময় রাজনগর এলাকায় শাহনুর তার গতিরোধ করে। এ সময় দুইজনের মাঝে বাদানুবাদের সৃষ্টি হলে শাহনুর ওই ছাত্রীকে জোরপূর্বক তুলে নেয়ার চেষ্টা করে। তখন ওই ছাত্রীর চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে শাহনুর লোকজনকে জানায়, মেয়েটি তার স্ত্রী। কিন্তু তার কথায় সন্দেহ হলে স্থানীয় লোকজন তাকে আটক করে পুলিশে খবর দেন। পুলিশ আসার খবর শুনে শাহনুর লোকজনের সাথে ধস্তাধস্তি করে পালিয়ে যায়। এ সময় ওই ছাত্রীও কিছুটা আঘাত প্রাপ্ত হয়। খবর পেয়ে এসআই পার্থ রঞ্জন চক্রবর্তীর নেতৃত্বে পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে যায়। এ সময় ওই ছাত্রী পুলিশকে জানায়, শাহনুরের সাথে তার বিয়ে হয়েছিল। কিন্তু বনিবনা না হওয়ায় ২ বছর আগে সে ওই যুবককে তালাক দেয়। ইতোপূর্বেও শাহনুর সুফলাকে তুলে নিয়ে যাবার চেষ্টা করেছিল বলে জানান ওই ছাত্রী। সুফলা হবিগঞ্জ শহরের মোহনপুর এলাকার মৃত মন্নর আলীর কন্যা ও শাহনুর দুবাই প্রবাসি বলে জানা গেছে।
এ ব্যাপারে সদর থানার এসআই পার্থ রঞ্জন চক্রবর্তী জানান, খবর পেয়েই পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছার আগেই ওই যুবক সটকে পড়ে।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com