সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৯:০৫ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
সিলেট এমসি কলেজে স্বামীকে বেধে স্ত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় ॥ হবিগঞ্জ থেকে ধর্ষক অর্জুন রনি ও রবিউল গ্রেফতার মাধবপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় চালক ও হেলপার নিহত নবীগঞ্জের প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সাইফুলের অনিয়মের তদন্ত শুরু নবীগঞ্জে ৭ মামলার পলাতক আসামী ইয়াহিয়া অধরা বানিয়াচঙ্গের নয়াপাথারিয়া গ্রামের ডাবল মার্ডার মামলার আসামী যুবদল নেতা কুহিনুর আলম কারাগারে ডাঃ মুশফিক হুসেন চৌধুরীকে সংবর্ধনা সিলেট বিভাগের শ্রেষ্ট উপজেলা চেয়ারম্যান মোতাচ্ছিরুল ইসলামকে গণসংবর্ধনা প্রদান হবিগঞ্জ জীবন বীমা কর্পোরেশন সেলস অফিসের ব্যবসা উন্নয়ন সভা অনুষ্ঠিত শহরে নাম্বার প্লেইটের দাবিতে শ্রমিকের বিক্ষোভ ও সমাবেশ দাবী আদায়ে অনশনের হুমকি লাখাইয়ে মেম্বারের বিরুদ্ধে চাল আত্নসাতের অভিযোগ
বাহুবলে ৯ দফা দাবীতে চা-শ্রমিকদের মানববন্ধন

বাহুবলে ৯ দফা দাবীতে চা-শ্রমিকদের মানববন্ধন

বাহুবল প্রতিনিধি ॥ বাহুবলে চা-শ্রমিক জণগোষ্ঠির ন্যায্য অধিকারের দাবীতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শুক্রবার সকাল ১১টায় উপজেলা পরিষদের সামনে বাহুবলের বিভিন্ন বাগান থেকে আগত চা-শ্রমিক ছাত্র ও নেতাকর্মীরা তাদের ভূমি অধিকার নিশ্চিতকরণ, ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্টীর তালিকায় অন্তর্ভূক্তকরণ, শিক্ষা ও চাকুরী ক্ষেত্রে কোটা ব্যবস্থা চালুকরণ সহ ৯ দফা দাবীতে এ কর্মসূচী পালন করে।
এ সময় মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ দলিত বঞ্চিত জনগোষ্ঠীর অধিকার আন্দোলন হবিগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি সুবাশ রবিদাশ, ইউপি সদস্য মিনতী রাণী যাদব, রশিদপুর চা বাগানের সভাপতি পিয়ারী চন্দ্র রবিদাস, বৃন্দাবন চা বাগানের সভাপতি ধীরেন গোয়ালা, সুক সাগর গোয়ালা, অজয় নুনিয়া, চাম্পা লাল রবিদাস, অজয় সিং প্রমুখ।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, চা-শ্রমিকরা দেশের বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত। আর এ বঞ্চিত অধিকার আদায়ে তারা আজ রাস্তায় নেমেছেন। সরকারের কাছে তাদের দাবী দেশের সকল উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সরকারি চাকুরিতে চা-শ্রমিক কোটা সংরক্ষণ করতে হবে। সকল চা-শ্রমিক জনগোষ্ঠীকে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর তালিকায় অন্তর্ভূক্ত করতে হবে। ভাষা, সংস্কৃতি, ঐতিহ্য ইত্যাদি সংরক্ষণের জন্য চা বাগান অধ্যুষিত প্রতিটি উপজেলায় একটি করে কালচারাল একাডেমি প্রতিষ্ঠাত করতে হবে। শিক্ষার মান উন্নয়নের জন্য পর্যাপ্ত সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও কলেজ প্রতিষ্ঠা করতে হবে। জাতীয় বাজেটে চা-শ্রমিক জনগোষ্ঠী জন্য পৃথক বরাদ্দ দিতে হবে। চা-বাগানের বিদ্যমান বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে একটি কমিশন বা মন্ত্রণালয় গঠন করতে হবে। চা-বাগান এলাকায় পর্যাপ্ত সরকারি হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা করতে হবে। ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য কারিগরী প্রতিষ্ঠানসহ বিশেষ বৃত্তির ব্যবস্থা করতে হবে।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com