বুধবার, ০৩ মার্চ ২০২১, ০১:৪৮ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
রেডক্রিসেন্টের নাম ভাঙ্গিয়ে প্রতারণার ফাঁদ ॥ নবীগঞ্জে দরিদ্রদের মাঝে ত্রাণ বিতরণের নামে টাকা হাতিয়ে নেয়ার চেষ্টা ব্যর্থ

রেডক্রিসেন্টের নাম ভাঙ্গিয়ে প্রতারণার ফাঁদ ॥ নবীগঞ্জে দরিদ্রদের মাঝে ত্রাণ বিতরণের নামে টাকা হাতিয়ে নেয়ার চেষ্টা ব্যর্থ

এম এ বাছিত, নবীগঞ্জ থেকে ॥ নবীগঞ্জে আন্তর্জাতিক দাতব্য সংস্থা রেডক্রিসেন্টের নাম ভাঙ্গিয়ে হতদরিদ্রদের ত্রাণ ও আর্থিক সহায়তা দেয়ার নামে অভিনব প্রতারণায় তোলপাড় চলছে। বন্যাকবলিত ও হতদরিদ্রদের প্রতারণার ফাঁদে ফেলে কয়েক লক্ষাধিক টাকা হাতিয়ে নেয়ার মিশন ব্যর্থ হয়েছে। কুর্শি ইউনিয়ন পরিষদের শিক্ষা ও স্বাস্থ্য বিষয়ক স্থায়ি কমিটির সভাপতি সাংবাদিক এম এ বাছিত প্রতারক চক্রের মুখোশ উন্মোচন করেন। পাল্টা ফাঁদ পেতে ওই চক্রকে ধরাশায়ি করতে অল্পের জন্য ব্যর্থ হন তিনি।
সূত্রে জানা গেছে, শনিবার রাত থেকে উপজেলার কুর্শি ইউনিয়নের ৯টি ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য এবং সংরক্ষিত সদস্যদের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করে রেডক্রিসেন্ট নামধারী প্রতারক চক্র। পরিষদের চেয়ারম্যান আলী আহমদ মুসা যুক্তরাজ্য যাবার প্রাক্কালে তার সাথে যোগাযোগ করে হতদরিদ্রদের তালিকা সরবরাহের জন্য অনুরোধ করে। এব্যাপারে প্যানেলের দায়িত্বে থাকা ইউপি সদস্য পারছু মিয়া ওয়ার্ডভিত্তিক নামের তালিকা দেয়ার জন্য সদস্যদের নিকট একটি মোবাইল নাম্বার সরবরাহ করেন। শনিবার রাতের মধ্যে তালিকা দেয়ার জন্য তাগিদ দেয়া হয়। ওই নাম্বারে তালিকা দেয়ার পর অতিরিক্ত নামের জন্য রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির এর নাম্বারের যোগাযোগ করতে বলা হয়। ওই নাম্বারে যোগাযোগ করা হলে জিএম নামধারী প্রতারক প্রতিটি অতিরিক্ত কার্ডের জন্য ৫শত টাকা দাবি করে। এনিয়ে কারো সাথে যোগাযোগ করতে নিষেধ করে বিকাশে টাকা প্রেরণের জন্য একটি নাম্বার দেয়া হয়। আগামী বৃহস্পতিবার তালিকাভূক্ত দরিদ্রদের প্রত্যেককে নগদ সাড়ে চার হাজার টাকা, একবস্তা চাল, লুঙ্গি ও শাড়ি, ৫লিটার সোয়াবিন তৈল, ৫কেজি পিয়াজ দেয়া হবে বলে জানানো হয়। অতিরিক্ত তালিকাভূক্ত লোকজনের মালামাল উপজেলা থেকে সংগ্রহের প্রলোভন দেয়া হয়। গতকাল রবিবার সকাল এগারটার দিকে ইউনিয়ন পরিষদে সংস্থার লোকজন এসে মতবিনিময় করবে মর্মে আশ্বাস দেয়া হয়। সেই অনুযায়ি যথা সময়ে সদস্য ও সংরক্ষিত সদস্যরা উপস্থিত হলেও প্রতারক চক্রের কাউকে খোঁজে পাওয়া যায়নি। আগামী বৃহস্পতিবার তালিকাভূক্তদের নিকট মালামাল বিতরণের আশ্বাস দিয়ে বাড়তি নামের টাকা বিকাশে প্রেরণের জন্য বিভিন্ন সদস্যদের সাথে যোগাযোগ করে ওই চক্র। আলোচিত ঘটনা যাচাই-বাচাই না করেই বিভিন্ন ওয়ার্ড সদস্যদের নিকট প্রতারক চক্রের নাম্বার সরবরাহ এবং নামের তালিকা প্রণয়নে তাগিদ দেয়ায় প্যানেল চেয়ারম্যান পারছু মিয়ার অনভিজ্ঞতাকে দায়ি করে ক্ষোভ প্রকাশ করেন বিভিন্ন ওয়ার্ড সদস্যবৃন্দ। এনিয়ে তালিকাভূক্ত হতদরিদ্রদের মধ্যে তীব্রক্ষোভ বিরাজ করছে।
এনিয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার তাজিনা সারোয়ার বলেন, রেডক্রিসেন্ট একটি আন্তর্জাতিক সংস্থা। এধরণের উদ্যোগ নেয়া হলে বিধি মোতাবেক আমার জানার কথা। আমি কিছুই জানিনা। ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকেও এবিষয়ে আমাকে অবহিত করা হয়নি। ইউপি সচিব মোঃ শাহজাহান মিয়া বলেন, আগামী বৃহস্পতিবার মালামাল বিতরণের জন্য তালিকা চাওয়ায় ওয়ার্ড সদস্যদের তালিকা দেয়ার জন্য বলা হয়েছে। উপজেলা প্রশাসনের তরফ থেকে এনিয়ে আমাদের কিছু জানানো হয়নি। এনজিও সংস্থার পক্ষ থেকে কোন কিছু বিতরণ করা হলে বিধি মোতাবেক উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে অবহিত করেই তা করতে হয়। প্রতারণার এ বিষয়টি খতিয়ে দেখার জন্য আইনপ্রয়োগকারীর সংস্থার প্রতি দাবি জানিয়েছেন বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার লোকজন।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com