সংবাদ শিরোনাম : 

 **  চুনারুঘাটে সড়ক নির্মাণে টাকা লুটের নমুনা ॥ অভিনব দুর্নীতি ॥ নিচে খড় বিছিয়ে উপরে কার্পেটিং **  আটক চেয়ারম্যান মধু’র বিরুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ **  সদর হাসপাতালে দালালদের দৌরাত্ব বৃদ্ধি ॥ পুলিশের অভিযান **  খোশ আমদেদ মাহে রমজান **  সততার সাথে কাজ করায় এগিয়ে যাচ্ছে দেশ-এমপি আবু জাহির **  হবিগঞ্জ ব্যাংকার্স এসোসিয়েশনের উদ্যোগে ইফতার মাহফিল **  হবিগঞ্জ মেডিকেল টেকনোলজিস্টের দোয়া ও ইফতার মাহফিল অনুষ্টিত **  বনিয়াচংয়ে ধান মাড়াই মেশিনের বেল্টের আঘাতে কৃষকের মৃত্যু **  শহরের কামড়াপুর থেকে দুই মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার **  হবিগঞ্জে মাতৃদুগ্ধ ব্যবহারে সচেতনতা বাড়ানোর উদ্যোগ **  নবীগঞ্জের আমড়াখাই গ্রামে বিদ্যুৎ উদ্বোধন করলেন এমপি বাবু **  নবীগঞ্জের মজলিশপুরে মানবসেবা ইউ.কে ট্রাষ্ট (ইউ.কে) এর ৬ষ্ট বার্ষিক ত্রাণ সামগ্রী বিতরণী **  বাহুবলে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

বাঁধ ভাঙার গুজবে শহরবাসীর আতঙ্ক ॥ পানি বৃদ্ধি অব্যাহত ॥ বাঁধ ভেঙ্গে দেওয়ার আশংকায় লাটিসোটা হাতে পাহারা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ পানি আইছে, ভাইস্যা গেছে, খোয়াই নদীর বাঁধ ভেঙে গেছে, শহর তলিয়ে যাবে। এমন গুজবে শহরবাসীকে আতঙ্কে কাটাতে হয়েছে কয়েক ঘণ্টা। কেউ বলছেন গরুর বাজার, কেউ বলছেন কামড়াপুর আবার কেউ-বা বলছেন তেতৈয়া এলাকা দিয়ে খোয়াই নদীর বাঁধ ভেঙ্গে গেছে।
এদিকে গতকাল রাত ১২ টা পর্যন্ত খোয়াই নদীর পানি বিপদসিমার ২৪০ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল। যে কোন সময় বাঁধ ভেঙ্গে যেতে পারে এ আশংকায় শহরের চার পাশে অবস্থিত খোয়াই নদীর বাঁধে শত শত মানুষ নির্ঘুম রাত কাটায়। বাঁধ ভেঙ্গে দিতে পারে এ আশংকায় লাটিসোটা নিয়ে মানুষকে বাঁধের উপর অবস্থান নিতে দেখা যায়। রাত ২ টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত পানি বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে।
গতকাল সোমবার রাত প্রায় সাড়ে ৮টার দিকে হঠাৎ শহরে গুজব রটে যে, শহরের কামড়াপুর এলাকায় খোয়াই নদীর বাঁধ ভেঙ্গে গেছে। পানি আসছে ধেয়ে। মূহুর্তেই গোটা শহরে এ গুজব ছড়িয়ে পড়ে। শুরু হয় দৌড়াদৌড়ি। বাসাবাড়ি থেকে নারী-পুরুষ ও শিশুরা বাইরে বেরিয়ে আসে। অনেকেই বাসাবাড়ি থেকে তল্পিতল্পা গুটাতে শুরু করেন। ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেন। সমূহ বিপদ থেকে রক্ষা পেতে প্রস্তুতি নিতে শুরু করেন পুরো শহরবাসী। শহরের বিভিন্ন মসজিদে নামাজরত কিছু মুসল্লি নামাজ ভেঙ্গে বেরিয়ে আসেন। পরে অবশ্য নামাজ আদায় করা হয়। এখবর ছড়িয়ে পড়ে দেশের বিভিন্ন স্থানসহ বিদেশেও। অনেকেই টেলিফোনে আত্মীয়-স্বজনদের সাথে যোগাযোগ করে খোঁজখবর নেন।
শেষ পর্যন্ত সরজমিনে কামড়াপুর মোকামবাড়ি এলাকায় গিয়ে শহর রক্ষা বাঁধের একটি স্থানে ফাটল দেখা যায়। ওই স্থান দিয়ে পানি ছুই ছুই করে আসছে। স্থানীয় লোকজনসহ প্রশাসন তাৎক্ষণিকভাবে মাটি ও বালির বস্তা দিয়ে ফাটল স্থানে ভরাট শুরু করেন। সেখানে শত শত মানুষকে অবস্থান নিতে দেখা যায়।  এদিকে টানা ৩ দিনের ভারী বর্ষণ ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলের পানিতে খোয়াই নদীর পানি সর্বোচ্চ বিপদ সীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়। গতকাল সোমবার রাত ১২ টায় নদীর পানি বিপদ সীমার ২৪০ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল। এতে করে খোয়াই নদীর বাঁধের মশাজান, তেঘরিয়া, শহরের পুরান বাজার, কামড়াপুর, গরুর বাজারসহ শায়েস্তাগঞ্জ থেকে হবিগঞ্জ গরুর বাজার পর্যন্ত প্রায় ২০ স্থান ঝুঁকিপূর্ণ রয়েছে। কিবরিয়া ব্রিজসহ ৩টি ব্রিজে পানি ছুঁই ছুঁই করছে। বিকেল থেকে জেলা প্রশাসন ও পানি উন্নয়ন বোর্ডের পক্ষ থেকে শহরবাসীকে সতর্ক থাকার জন্য মাইকিং করা হয়। রাত ১২ টায় এ রিপোর্ট লিখা পর্যন্ত পানি বৃদ্ধি অব্যাহত ছিল। তবে কোন এলাকায় ভাঙ্গনের খবর পাওয়া যায়নি।

Powered by WordPress | Designed by: search engine rankings | Thanks to seo services, denver colorado and locksmiths

Design & Developed BY PopularServer.Com