সোমবার, ০৮ মার্চ ২০২১, ০২:২৬ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
আজ ঐতিহাসিক ৭ মার্চ হবিগঞ্জে ড্যান্ডি নেশায় ঝুঁকছে টোকাই শিশুরা প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলীর সাথে মেয়র সেলিমের শুভেচ্ছা বিনিময় নয়া জেলা প্রশাসক ইসরাত জাহানের দায়িত্ব গ্রহণ এমপি পুত্র ইফাত জামিলের আইন বিষয়ে ¯œাতকোত্তর ডিগ্রী অর্জন হবিগঞ্জ পৌর নির্বাচন ৭দিন আগে অনুষ্ঠিত হলেও শহরে বিরাজ করছে নির্বাচনী আমেজ! পোষ্টারে পোষ্টারে ছেয়ে আছে হবিগঞ্জ শহর ! এগুলো পরিস্কারের দায়িত্ব কার ? জন দূর্ভোগ ॥ নবীগঞ্জ-মুক্তাহার ব্রীজ বানিয়াচংয়ে প্রেমিকের ব্যবসা প্রতিষ্টানে প্রেমিকার অনশন ॥ সালিশে নিষ্পত্তির শর্তে মুরুব্বীদের জিম্মায় নবীগঞ্জে খোলা জায়গায় পশু জবাই করে বিক্রি ॥ পরিবেশ দুষিত হচ্ছেন পত্রিকায় লিখে কোন লাভ হবে না। কর্তারা তাদের ম্যানেজ নবীগঞ্জে অসহায় ব্যক্তির অর্ধশতাধিক গাছ কর্তন
নবীগঞ্জ শহরে দিন দুপুরে কম্পিউটারের দোকানে চুরি

নবীগঞ্জ শহরে দিন দুপুরে কম্পিউটারের দোকানে চুরি

নবীগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ নবীগঞ্জ শহরের মরিয়ম সুপার মার্কেটের নোহা কম্পিউটার এন্ড ফটোস্ট্যাট এর দোকানে আবারো দিন দুপুরে চুরি সংঘটিত হয়েছে। রবিবার যোহরের আযানের পরে সাটারের তালা ভেঙ্গে কম্পিউটার ও তার সরঞ্জাম নিয়ে যায় চোরেরা। উক্ত প্রতিষ্ঠানটির মালিক পৌর এলাকার বাসিন্দা সাংবাদিক মোহাম্মদ শওকত আলী। তিনি দৈনিক সংগ্রামের নবীগঞ্জ প্রতিনিধি। এ ঘটনায় ব্যবসায়ী মহলে প্রশ্ন জেগেছে এ কেমন চুরি?
গত ৫/৬ মাস পূর্বেও তালাবদ্ধ দোকান থেকে কম্পিউটার উধাও হয়েছিল। অনেকের ধারনা নকল চাবি তৈরি করে চোর এ কাজ করেছিল। তবে এবার দিন দুপুরে তালা ভেঙ্গে এমন চুরির ঘটনায় ব্যবসায়ী মহলে আতংক বিরাজ করছে।
জানা যায়, নবীগঞ্জ শহরের মরিয়ম সুপার মার্কেটে প্রায় ১৪ থেকে ১৫টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। এর মধ্যে প্রথমেই বিশ্ব সংবাদ পত্র বিতান। এর পিছনেই নোহা কম্পিউটার এন্ড ফটোস্ট্যাট। সাংবাদিক মোহাম্মদ শওকত আলীর মালীকানাধীন উক্ত নোহা কম্পিউটার এন্ড ফটোস্ট্যাট দীর্ঘদিন যাবৎ রেনেসা অফসেট প্রেস এর সকল পোস্টার, লিফলেটের ডিজাইন, ই-মেইল, কম্পোজসহ যাবতীয় সব কাজ করে আসছিলেন। অন্যান্য দিনের মতো শওকত আলী যোহরের আযানের পর নামাজে চলে যান। এ সময় শুধু পাশের সন্টু শুক্ল বৈদ্ধ্য নামের এক লোকের লন্ডির দোকান খোলা ছিল। সন্টু দোকানেও ছিলেন। নামাজ শেষে শওকত ও আরো কয়েক জন দোকানে ফিরে আসেন। এসে দেখেন দোকানের তালা ভাঙ্গা। যা দেখে তারা অবাক হয়ে যান। ভিতরে প্রবেশ করে দেখেন সব কিছু ঠিকটাক, শুধু কম্পিউটার নেই। লেমেনেটিং মিশিন, ফটোস্ট্যাট মেশিন, প্রিন্টারসহ নগদ টাকা পয়সা সবই ঠিকঠাক আছে। নেই শুধু মনিটর, সিপিইউ, মাউজ আর কি-বোর্ড। দিন দুপুরে কিভাবে এ চুরি সংঘটিত হলো এ নিয়ে নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। অনেকেরই ধারণা করছেন মাস্টার প্লান করে চুরি করা হয়েছে। কারণ শওকত আলীর কম্পিউটারে গুরুত্বপূর্ণ অনেক ডকুমেন্ট ছিল। সাংবাদিক শওকত নামাজে থাকার সময় এক লোক তাকে খোঁজে এসেছিল, এ সময় ওই লোক সন্টুুর লন্ডির দোকানে ২/৩ জন লোককে দেখতে পান বলে জানান। যদিও সন্টু অস্পষ্ট কথা বার্তা বলছে। সন্টুর নানা কথা বার্তায়ও সন্দেহ হচ্ছে স্থানীয়দের মাঝে। স্থানীয়রা জানিয়েছেন বিদ্যুৎ না থাকায় চোর চক্র সুযোগ কাজে লাগিয়েছে। এদিকে, এর আগেও একি কায়দায় চুরি হয়েছিল এই প্রতিষ্টান। এ ঘটনার পর পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। এ ব্যাপারে তিনি আইনশৃংখলা বাহিনীর সহযোগিতা চেয়েছেন তিনি।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com