বুধবার, ০৩ মার্চ ২০২১, ০১:১৮ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
হবিগঞ্জে নবনির্মিত চীফ জুডিসিয়াল আদালত ভবন উদ্বোধন শেষে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক ॥ ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে ৫৭ ধারা বাতিল করে নতুন আইন হচ্ছে

হবিগঞ্জে নবনির্মিত চীফ জুডিসিয়াল আদালত ভবন উদ্বোধন শেষে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক ॥ ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে ৫৭ ধারা বাতিল করে নতুন আইন হচ্ছে

স্টাফ রিপোর্টার ॥ আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, বঙ্গবন্ধু হত্যার পর দেশে আইনের শাসন ছিল না। ইন্ডেমনিটি আইন জারী করে আইনের শাসন রোঢ় করা হয়। ২১ বচর এ আইন জারী ছিল। ৯৬ সনে শেখ হাসিনার সরকার ক্ষমতায় এসে এই বাতিলে বাতিল করা হলে ২১ বচর পর বঙ্গবন্ধু হত্যার অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করা হয়। এর মাধ্যমে আইনের শাসনের বীজ নতুন করে রোপন করা হয়। দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় এসে আমরা যুদ্ধাপরাধীর বিচার শুরু করি। তিনি বলেন, বিচার বিভাগ স্বাধীনভাবে কাজ করছে।বিচার বিভাগের প্রতি জনগনের আস্তা রয়েছে। আমরা জনগণের এ আস্তাকে নষ্ট হতে দেবনা। তিনি বলেন, গনতন্ত্র শক্তিশালী করতে বিচার বিভাগ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তিনি বলেন, তথ্যপ্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারা জনগণের বাক স্বাধীনতা হরণ করছে এমন বিতর্ক উঠায় এটি বাতিল করা হচ্ছে। নতুন ডিজিটাল সিকিউরিটি এ্যাক্টে এ বিষয়টি আরো স্পষ্ট করা হবে। বর্তমানে ৫৭ ধারার অধীনে যে সকল মামলা পরিচালিত হচ্ছে বা তদন্তাধীন রয়েছে, নতুন আইনে সে বিষয়ে নির্দেশনা থাকবে। এ আইনে যাতে করে সকলে ন্যায়বিচার পায় সে ব্যবস্থা করা হবে। ৫৭ ধারাটি অপব্যবহারে চেষ্টা করা হচ্ছিল। তাই ৫৭ ধারা বাতিল করে নতুন আইন করা হচ্ছে। যেখানে সবার ন্যায় বিচার নিশ্চিত হবে। এ আইনটি স্পষ্টকরণে নতুন ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্ট করা হচ্ছে। এতে কারও বিরুদ্ধে অন্যায়ভাবে অহেতুক ব্যবস্থা নেয়ার কোনো ব্যবস্থা থাকবে না। সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এএমএস কিবরিয়া হত্যা মামলার বিচার সম্পর্কে বলেন, এটি যাতে সল্প সময়ের মধ্যে সব আইনি প্রক্রিয়া শেষ করে এবং দ্রুত বিচার শেষ করা হয় সে ব্যাপারে প্রসিকিউশন ব্যবস্থা নেবে।
গতকাল রোববার সকালে হবিগঞ্জে নবনির্মিত চীফ জুডিসিয়াল আদালত ভবন উদ্বোধন শেষে আয়োজিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা বলেন। জেলা পরিষদ মিলনায়তনে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জেলা ও দায়রা জজ মোঃ আতাবুল্লাহ। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন হবিগঞ্জÑ৩ আসনের এমপি এডঃ মোঃ আবু জাহির, হবিগঞ্জ-২ আসনের এমপি এডঃ আব্দুল মজিদ খান, হবিগঞ্জ-৪ আসনের এমপি এডঃ মাহবুব আলী, সংরক্ষিত নারী সংসদ সদস্য আমাতুল কিবরিয়া কেয়া চৌধুরী, আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব আবু সালেহ শেখ মোঃ জহিরুল হক, গণপূর্ত বিভাগ সিলেট জোনের অতিরিক্ত সচিব মোঃ আমিনুল ইসলাম, আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব বিকাশ কুমার সাহা, আইন ও বিচার বিভাগের যুগ্ম সচিব গোলাম সরোয়ার, জেলা প্রশাসক সাবিনা আলম, চীপ জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ সোলায়েমান প্রমুখ।
এর পুর্বে তিনি পায়রা ও বেলুন উড়িয়ে ভবন উদ্বোধন করেন। এরপর আইনমন্ত্রী জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত সুধী সমাবেশ ও জেলা আইনজীবি সমিতি আয়োজিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যোগ দেন।
উল্লেখ্য, ২৩ কোটি ১১ লাখ টাকা ব্যয়ে ১২ তলা ভীত বিশিষ্ট চীফ জুসিডিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের ৫ তলা নির্মাণ করা হয়েছে।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com