সোমবার, ২৫ মে ২০২০, ০৭:০৫ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
শ্রীমঙ্গলে যুবলীগ নেতা সেলিমের উদ্যোগে সাড়ে ৫শ অসহায় মানুষের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ নবীগঞ্জের বিভিন্ন গ্রামে ড. রেজা কিবরিয়ার পক্ষে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ হবিগঞ্জে শেষ হয়েছে ৫দিন ব্যাপি ইয়ূথ এসোসিয়েশন অব ইউকে এর খাদ্য সহায়তা বিতরণ নবীগঞ্জে গৃহহীন দুই বীর সেনা মুক্তিযোদ্ধাকে সেনাবাহিনীর বাসস্থান উপহার আলমগীর চৌধুরীর সৌজন্যে নবীগঞ্জে ১৬৫ পরিবারকে ঈদ উপহার প্রদান নবীগঞ্জে স্বাস্থ্য বিধি অমান্য করায় ভ্রাম্যমান আদালতের জরিমানা “বঙ্গবন্ধু ছাত্র একতা পরিষদ” নেতা রায়হান এর উদ্যোগে ইফতার বিতরণ এখন প্রমান করার সময় মানুষ মানুষের জন্য-মোতাচ্ছিরুল ইসলাম অনাহারী মুখ খাবার তুলে দিচ্ছেন হবিগঞ্জ ছাত্র সমন্বয় ফোরাম বাগুনিপাড়া ডিফেন্স হোল্ডার এ্যাসোসিয়েশন ঈদ উপহার বিতরন
নবীগঞ্জে স্কুল ছাত্র শাহনাজ হত্যাকান্ড ॥ হবিগঞ্জ ডিবি পুলিশের খাচাঁয় আটক তোফায়েল

নবীগঞ্জে স্কুল ছাত্র শাহনাজ হত্যাকান্ড ॥ হবিগঞ্জ ডিবি পুলিশের খাচাঁয় আটক তোফায়েল

নবীগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ নবীগঞ্জের বহুল আলোচিত দীঘলবাক ইউনিয়নের বোয়ালজুর গ্রামের স্কুল ছাত্র শাহনাজ হত্যাকান্ডের ৪ মাস ২০দিনের মাথায় এজাহার নামীয় পলাতক আসামী তোফায়েল আহমদ (তোয়েল মিয়া) কে গতকাল রবিবার সন্ধ্যায় নবীগঞ্জ রসুলগঞ্জ বাজার থেকে গ্রেফতার করেছে হবিগঞ্জের ডিবি পুলিশ। শাহনাজ হত্যা মামলার আসামী তোয়েল উপজেলার বোয়ালজুর গ্রামের আব্দুল জলিলের ছেলে। জানা যায়, নবীগঞ্জ উপজেলার ক্রাইমজোন হিসাবে খ্যাত বোয়ালজুর গ্রামে দু‘পক্ষের মধ্যে যুগ যুগ ধরে পূর্ব শক্রতার জের ধরে একের পর এক প্রভাব বিস্তার করে জোর পূর্বক ঘর-বাড়ি, সহায় সম্পত্তি দখল, খুন, রাহাজানি, লুটপাট ও হামলার ঘটনায় একাধিক মামলা রয়েছে। এ সব মামলার অনেকেই হাজত বাস করে জামিনে রয়েছেন। সর্বশেষ গেল বছরের ৪ ডিসেম্বর রবিবার একই গ্রামের কৃষক ইউনুছ মিয়ার পুত্র আউশকান্দি রশিদিয়া পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয় এন্ড কলেজের ৮ম শ্রেনীর ছাত্র শাহনাজ (১৬) কে ফুটবল খেলার পোষ্ঠার লাগানোর কথা বলে ঘর থেকে ডেকে নিয়ে যায় একই গ্রামের জসিম সহ কয়েকজন লোক। এর পর থেকে শাহনাজ আর বাড়িতে ফিরে আসেনি। সারা রাত গ্রামের বিভিন্ন স্থান সহ আত্মীয় স্বজনের বাড়িতে খোজাখুজির পর এক পর্যায়ে পরদিন সোমবার সকাল ৭টার দিকে স্থানীয় লোকজনের মাধ্যমে খবর পাওয়া যায় স্থানীয় জোয়াল ভাঁঙ্গা হাওরের পাশে শাহনাজের গলা কাটা ক্ষতবিক্ষত মৃত দেহ পড়ে আছে। পরে নবীগঞ্জ থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে হবিগঞ্জ মর্গে ময়না তদন্ত শেষে নিহতের স্বজনদের কাছে লাশ হস্তান্তর করে। এই নির্মম হত্যাকান্ডের ঘটনায় বহুল আলোচিত একই গ্রামের গিয়াস উদ্দিনের পুত্র জসিম ওরপে রিজু, তার ভাই সাজু আহমদ, একই গ্রামের আব্দুর রহিমের পুত্র ফরহাদ আহমদ, জলিলের পুত্র তোয়েল আহমদ, মাসুক মিয়ার পুত্র খালেদ মিয়ার নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো কয়েকজনের বিরুদ্ধে নবীগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন নিহতের বড় ভাই সাহিদ মিয়া। বর্তমানে আলোচিত স্কুল ছাত্র শাহনাজ হত্যাকান্ডের মামলাটি হবিগঞ্জ ডিবি পুলিশের কাছে তদন্তাধীন রয়েছে। ডিবি’র এসআই আব্দুল করিম তদন্তেরভার পেয়ে পলাতক আসামীদের গ্রেফতারে নানা স্থানে অভিযান শুরু করেন। এক পর্যায়ে গত মার্চ মাসের ১৬ তারিখে হত্যাকান্ডের মুল হুতা সুজনকে হবিগঞ্জ থেকে গ্রেফতার করে। তাকে গ্রেফতারের পর অনেক চাঞ্চল্যকর তথ্য বের হয়ে আসে বলে দাবী ডিবি পুলিশের। গতকাল রবিবার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এসআই আব্দুল করিমের নেতৃত্বে হবিগঞ্জের ডিবি পুলিশ তোফায়েল আহমদ ওরপে তোয়েল মিয়াকে নবীগঞ্জ-হবিগঞ্জ সড়কের রসুলগঞ্জ (নতুন বাজার) এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করেছে। এলাকাবাসীর দাবী স্কুল ছাত্র শাহনাজ হত্যাকান্ডের মূল নায়ক জসিম ওরপে রিজুকে গ্রেফতার করলেই থলের বিড়াল বের হয়ে আসবে।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com