বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ১১:২৭ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
সবাইকে কাঁদিয়ে না ফেরার দেশে ছোট্ট ছোঁয়া দাফন সম্পন্ন ॥ পরিবারে চলছে শোকের মাতম প্রধানমন্ত্রী অবহেলিত মানুষের কাছে স্বাস্থ্য সেবা পৌছে দিচ্ছেন-ডাঃ মুশফিক চৌধুরী নবীগঞ্জে বিভিন্ন স্কুলে এসএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণে অতিরিক্ত ফি আদায় বাহুবলে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ডাকাতি ॥ আটক ১ বারাপৈলের জয়নাল মিয়ার বিরুদ্ধে মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করায় প্রতিবাদ সমাবেশ নবীগঞ্জে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে বিএনপি নেতা আব্দুল হাই বহিষ্কার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকদের নিয়ে মোতাচ্ছিরুল ইসলামের মতবিনিময় দক্ষিণ তেঘরিয়া থেকে এক মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার চান্দপুর ও মির্জাপুরে মাদক ও দাঙ্গা প্রতিরোধে সচেতনতামূলক সভা বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস হবিগঞ্জ জেলা শাখার প্রশিক্ষণ বৈঠক অনুষ্ঠিত
মওসুমের শুরুতেই পর্যটক আসতে শুরু করেছে সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানে

মওসুমের শুরুতেই পর্যটক আসতে শুরু করেছে সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানে

চুনারঘাট প্রতিনিধি ॥ মওসুমের শুরুতেই পর্যটক আসতে শুরু করেছে চুনারুঘাটের সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানে। ডিসেম্বর মাসে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বার্ষিক পরীক্ষা শেষ হওয়ার পর এবং শীত বাড়ার সাথে সাথে প্রতিদিন বাড়ছে পর্যটকদের ভিড়। ভ্রমন পিপাসুদের বাড়তি আনন্দ দিতে নানা সাজ সজ্জায় সাজানো হয়েছে পর্যটন এলাকা। পর্যটকদের নিরাপত্তার স্বার্থে পর্যটন পুলিশের পাশা পাশি উদ্যান এলাকায় বাড়তি নিরাপত্তার ব্যবস্থাও রয়েছে বলে জানান কর্তৃপক্ষ।
স্কুলের পরীক্ষা শেষ হওয়ায় শিক্ষক ছাত্র/ছাত্রী সহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ নগর জীবনের যান্ত্রিকতা থেকে একটু মুক্তির লক্ষ্যে প্রকৃতিকে উপভোগ করতে ছুটে আসছেন জাতীয় উদ্যানের পিকনিক স্পটে। সারাদিন ছোটাছোটি, খেলাধুলা আর হই হুল্লোর শেষে ক্লান্ত দেহ মন নিয়ে সন্ধ্যায় নীড়ে ফিরছেন প্রকৃতি প্রেমী মানুষগুলো। ৭টি ছড়ার একটি মোহনার নাম সাতছড়ি। পর্যটন এলাকার চার পাশে রয়েছে নয়নাভিরাম চা বাগান যা সহজেই প্রকৃতি প্রেমী পর্যটকদের হাতছানি দিয়ে ডাকে। পাশাপাশি সাতছড়ি উদ্যান এলাকার ছড়া ও চা বাগানের লেকগুলোতে সুদুর সাইবেরিয়া সহ বিভিন্ন দেশ থেকে ছুটে আসা অতিথি পাখির কিচিরমিচির শব্দ ছাড়াও পাহাড়ের জীব বৈচিত্র পশুপাখির কলতান ভ্রমন পিপাসুরা মন ভরে উপভোগ করেন। পর্যটন মৌসুম ছাড়াও বছর জুড়েই পর্যটকরা পরিবার পরিজন নিয়ে পাহাড়ি লতাপাতা নয়নাভিরাম চা বাগান আর জীব বৈচিত্রের সান্নিধ্য পেতে ছুটে আসেন সাতছড়ি পর্যটন এলাকায়। এ নিয়ে কথা হয় সাতছড়ি পর্যটন এলাকায় বেড়াতে আসা বি-বাড়িয়া জেলার বিজয় নগর থানার সজিব আহমেদের সাথে, তিনি জানান, এ উদ্যানে আগেও আমার একবার আসা হয়েছিল। এবারও এসেছি সবুজ প্রকৃতিকে উপভোগ করতে। কিন্তু উদ্যান এলাকায় তেমন একটি পরিবর্তন দেখতে পাইনি। তবে পর্যটকদের আকৃষ্ট করতে সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানকে আরও পরিকল্পিত ভাবে গড়ে তুলা প্রয়োজন বলে মনে করছেন পর্যটকরা।
এ ব্যাপারে সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানে কর্মরত হিসাব রক্ষক জসিম উদ্দিন জানান, উদ্যান এলাকাকে দ্রুত পর্যটক মুখি হিসেবে গড়ে তুলতে নানা পরিকল্পনা কর্তৃপক্ষের রয়েছে। তিনি বলেন, ডিসেম্বরের শেষ থেকে উদ্যানে পর্যটক বাড়ছে। আগামী মার্চ মাস পর্যন্ত পর্যটকদের এমন ভীর থাকবে। থাকবে বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পিকনিক পার্টিরও।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com