বুধবার, ২৭ মে ২০২০, ০২:৪৫ পূর্বাহ্ন

নবীগঞ্জে প্রেমিকের প্রতারণা অপমানে কিশোরীর আত্মহত্যা

নবীগঞ্জে প্রেমিকের প্রতারণা অপমানে কিশোরীর আত্মহত্যা

নবীগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ নবীগঞ্জ উপজেলার বাউসা ইউনিয়নের আবদা গ্রামের দুবাই প্রবাসী রমজান আলীর কিশোরী কন্যা সুলতান আক্তার গলায় ফাস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। প্রেমিকের প্রতারণার অপমান সইতে না পেরে গতকাল ২৭ আগষ্ট বিকেলে সে আত্মহত্যা করে বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে।
অনুসন্ধানে জানা যায়, উপজেলার বাউসা ইউনিয়নের আবদা গ্রামের রমজান আলীর সপ্তম শ্রেণী পড়ূয়া কিশোরী কন্যা সুলতানা আক্তার (১৫) এর সাথে একই ইউনিয়নের বিলপাড় গ্রামের হায়দর আলীর পূত্র আক্কাছ আল ী(২০) এর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। গত ২৫ ফেব্র“য়ারী সন্ধ্যায় আক্কাছ আলী সিএনজি অটো রিক্সাতে উঠিয়ে সুলতানা আক্তারকে বাহুবলের মির্জাপুর চা বাগানের যায়। সেখানে লোকজন আক্কাছ আলী ও তার সঙ্গীয় মোস্তফা মিয়াকে মারপিট করে তাড়িয়ে দেয়। পরে আক্কাছ আলী, বন্ধু মোস্তফার বাড়ী ভরপুর গ্রামে উঠে। সেখানে লোকজন জড়ো হলে উভয় পক্ষের পরিবারকে বিষয়টি জানানো হয়। খবর পেয়ে উভয় পক্ষের লোকজন উপস্থিত হলে স্থানীয় ইউপি মেম্বার ফিরোজ মিয়াসহ মুরব্বীরা উভয়ের মধ্যে বিয়ের সিদ্ধান্ত নিলে ছেলের মা রাজিয়া বেগম তার ছেলেকে বিয়ে করাতে অসম্মতি প্রকাশ করলে তা আর সম্ভব হয়নি। পরে নিরূপায় হয়ে মেয়ের মা তাহমিনা আক্তার হবিগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুন্যাল আদালতে মামলা দায়ের করেন। তদন্তকারী কর্মকর্তা মোঃ জিয়াউল হক গত ৫ মে তদন্ত শেষে আক্কাছ আলী ও তার সহযোগী মোস্তফা মিয়ার বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ (সংশোধিত/২০০৩) এর ৭ এর ৩০ ধারায় অপরাধ প্রমানিত হওয়ায় চার্জসীট দাখিল করেন।
এদিকে প্রেমিক আক্কাছ আলীর আহ্বানে ঘর ছাড়ার পরও আক্কাছ আলী ও তার পরিবার সুলতানা আক্তারকে বধু হিসেবে ঘরে তুলে না নেয়ায় সুলতানা আক্তার মানসিকভাবে ভেঙ্গে পড়েন। প্রেমিকের প্রতারণার অপমানের যন্ত্রনা সইতে না পেরে ঘরের তীরের সাথে গলায় ওড়না পেছিয়ে সুলতানা আত্মহত্যা করে বলে স্থানীয় সূত্র জানায়।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com