শনিবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৯, ০৮:৩২ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
গবেষণায় সফল বাংলাদেশী বিজ্ঞানী ড. নূর চৌধুরী ॥ পেঁয়াজের বিকল্প ‘চিভ’ নবীগঞ্জে মাকে বাড়ি আনতে গিয়ে লাশ হয়ে ফিরলেন পুত্র শায়েস্তাগঞ্জ জংশনে বিচারক চোরের কবলে ॥ আটক ১ খেলাধূলার প্রসারে সকলে মিলে কাজ করতে হবে ॥ এমপি আবু জাহির নবীগঞ্জে সাংবাদিক সোহেল এর দাফন সম্পন্ন ॥ শোক কবসায় ট্রেন দুর্ঘটনায় আহতদের দেখতে নবীগঞ্জ হাসপাতালে এমপি মিলাদ গাজী অপরাধ নির্মুলে সাংবাদিকদের সহযোগিতা প্রয়োজন ওসি-রঞ্জন কুমার সামন্ত চুনারুঘাটের আমরোড বাজারে কবিরাজের ঘরে যুবতীর মৃত্যু ধান কাটতে গিয়ে নবীগঞ্জে বিষধর সাপের কামড়ে কৃষকের মৃত্যু আজমিরীগঞ্জের জলসুখায় পানিতে ডুবে গৃহবধূর মৃত্যু
নবীগঞ্জে কলেজ ছাত্রী তন্নী রায় হত্যা ॥ বান্ধবীসহ ৩ জনকে জিজ্ঞাসাবাদ প্রেমিক রানুর বাড়ীতে অভিযান

নবীগঞ্জে কলেজ ছাত্রী তন্নী রায় হত্যা ॥ বান্ধবীসহ ৩ জনকে জিজ্ঞাসাবাদ প্রেমিক রানুর বাড়ীতে অভিযান

এটিএম সালাম, নবীগঞ্জ থেকে ॥
নবীগঞ্জের বরাক নদী থেকে হাত-পা বাধা বস্তাবন্দি কলেজ ছাত্রী তন্নী রায় (১৮) হত্যা মামলায় তন্নীর ঘনিষ্ট বান্ধবী কান্তা রায়, আইসিটি সেন্টারের প্রিন্সিপাল ফয়সল ও প্রশিক্ষক নাজনীন আক্তারকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে পুলিশ। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে তাদের থানায় খবর দিয়ে এনে তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। পুলিশ ওই ৩ জনেরও মোবাইল কল লিষ্ট সংগ্রহ করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়েছে। এদের জিজ্ঞাসাবাদকালে উপস্থিত ছিলেন হবিগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আ.স.ম সামছুর রহমান ভুইয়া, থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আব্দুল বাতেন খান, ওসি (তদন্ত) কামরুল হাসান ও তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মোবারক হোসেন।
ranu-2-copy-jpgd

tonni-1-copy-jpgtএদিকে লাশের সাথে বস্তায় ব্যবহৃত ছামিন কোং ইট জব্দ করেছে পুলিশ। ছামির কোং এর ইট দিয়ে জয়নগর এলাকায় সৈয়দ জাহির মিয়ার বাড়ির নির্মাণ কাজ চলছে। ওই বাড়ি থেকে ইট চুরি করে এনে বস্তায় বাধা হয় বলে অনেকে ধারণা করছেন।
এদিকে নির্মম এ হত্যাকান্ডের সংবাদ গুলো হবিগঞ্জ এক্সপ্্েরসসহ স্থানীয় পত্রিকায় ফলাও করে প্রকাশিত হলে দুপুরের আগেই পত্রিকা শেষ হয়ে যায় বলে জানিয়েছেন হকার সমিতি। এছাড়া গতকাল বৃহস্পতিবার প্রকাশিত সংবাদের সাথে রানু রায়’র ছবি’র পরিবর্তে ভুল বশত রানু দাশ নামের অন্য এক যুবকের ছবি ছাপা হয়েছে। যা তন্নী রায়ের প্রেমিক রানু রায়ের ছবি নয়। আজ প্রকৃত রানু রায়ের ছবি পাওয়া গেছে। অন্যদিকে পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে থানায় নিয়ে আসা তন্নীর বান্ধবীসহ ৩ জনের কাছ থেকে কোন তথ্য পাওয়া গেছে কি-না মামলার তদন্তের স্বার্থে তা জানাতে অপারগতা জানিয়েছেন তদন্ত কর্মকর্তা মোবারক হোসেন। তিনি বলেন, অপরাধীদের গ্রেফতারে পুলিশ সর্বাত্মক চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে। নিহত কলেজ ছাত্রী তন্নীর লাশ উদ্ধার এবং মামলা দায়েরের পর থেকেই পুলিশ ঘটনাস্থল এবং রানু রায়ের বাড়িসহ আশপাশের সম্ভাব্য ঘরবাড়িতে তল্লাশী অব্যাহত রয়েছে। ঘটনার তদন্তে হবিগঞ্জ থেকে ডিবি পুলিশও মাঠে কাজ করছে বলে জানা গেছে।
একটি সুত্র দাবী করছে, তন্নী রায় নিখোঁজ হওয়ার দিন বিকালে বান্ধবী কান্তা রায়ের সাথে যোগাযোগ করে প্রেমিক রানু রায় প্রেমিকা তন্নীর খোজখবর নেয়। এ সময় রানু রায় কম্পিউটার সেন্টারের প্রিন্সিপাল ফয়সলের মোবাইল নম্বারটিও সংগ্রহ করে। রানু ওই দিন ফয়সলকে ফোন দিয়েছে কি-না তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। যা যাচাই এর প্রক্রিয়া চলছে। তবে ফয়সল আহমদ দাবী করেছেন, রানু রায়ের সাথে তার কোন প্রকার যোগাযোগ বা ফোনে কথা হয়নি। অপর দিকে বস্তাবন্দি নবীগঞ্জ ডিগ্রী কলেজের মেধাবী ছাত্রী তন্নী রায়ের মৃত দেহ নদী থেকে উত্তোলনের সময় বস্তার ভিতরে ছামিন কোং ইট পাওয়া যায়। পুলিশ ঘটনাস্থল, প্রেমিক রানু রায়ের বাড়ি ও আশপাশ এলাকায় ওই কোম্পানীর ইট কোথায় রয়েছে কি-না তার সন্ধানকালে জয়নগর এলাকায় সৈয়দ জাহির মিয়ার নতুন বিল্ডিং নির্মাণ কাজে ব্যবহার করতে দেখতে পায়। যা ঘটনাস্থল নদী থেকে প্রায় দেড় শত ফুট এবং রানু রায়ের বাড়ি থেকে প্রায় ৭০ ফুট দুরত্বে হবে। ফলে এই লোমহর্ষক হত্যাকান্ডের তীর ধীরে ধীরে তন্নীর প্রেমিক রানু রায়ের দিকেই যাচ্ছে বলে অবস্থা দৃষ্টে ধারনা করা যাচ্ছে। রানু রায়কে গ্রেফতার করলেই হত্যাকান্ডের মূল রহস্য উদঘাটিত হতে পারে বলে দাবী সুশীল সমাজ। রানু রায় ব্যতিত তন্নী রায়ের অন্য কারো সাথে সম্পর্ক ছিল কি না তাও খতিয়ে দেখার প্রয়োজন বলে অনেকেই মত প্রকাশ করেন।
প্রকাশ, গত শনিবার বেলা দেড় টার দিকে তন্মী রায় ইউ.কে আই,সিটি কম্পিউটার ট্রেনিং সেন্টারে যাওয়ার জন্য বাসা থেকে বেড় হয়ে আর ফিরেনি। এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ থানায় সাধারণ ডায়েরী করার ৩ দিনের মাথায় উক্ত কলেজ ছাত্রী তন্মী রায়ের বস্তাবন্দি লাশ নদী থেকে উদ্ধার করে পুলিশ।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com