সোমবার, ০১ Jun ২০২০, ০২:৩৮ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
ভারতীয় নাগরিকের পিটুনীতে বাংলাদেশী খুন ॥ লাশের অপেক্ষায় স্বজনরা বানিয়াচংয়ের বিভিন্ন বাজারে সেনাবাহিনীর জনসচেতনতামূলক প্রচারাভিযান শ্রীমঙ্গলে ৬৭ টি মামলায় ৭৫ হাজার টাকা জরিমানা নবীগঞ্জে সরকারের অর্থ সহায়তার তালিকায় নারী কাউন্সিলরের পরিবারের ৬ সদস্যের নাম শচীন্দ্র লাল সরকারের সমাধীতে জেলা সিপিবি, উদীচী, কিবরিয়া ফাউন্ডেশন, সচেতন নাগরিক কমিটি ও মাতৃছায়া কেজি এন্ড হাইস্কুলের পুষ্পস্তবক অর্পন দৈনিক খোয়াই পত্রিকার সার্কুলেশন ম্যানেজার সাইফুলের পিতার ইন্তেকাল নবীগঞ্জে ভাতিজার হাতে চাচা খুন শ্রীমঙ্গলে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে শ্রীমঙ্গল পৌরসভার কাউন্সিলর আব্দুল আহাদের মৃত্যু বানিয়াচঙ্গের হাওর থেকে অজ্ঞাত মহিলার লাশ উদ্ধার হবিগঞ্জে জমি নিয়ে সংঘর্ষে নিহত ১
বগলাখালে ছাত্র ও শায়েস্তানগরে শিশু ছাত্রীর পুকুরে ডুবে মৃত্যু

বগলাখালে ছাত্র ও শায়েস্তানগরে শিশু ছাত্রীর পুকুরে ডুবে মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার ॥ হবিগঞ্জ সদর উপজেলার রিচি ইউনিয়নের বগলাখাল গ্রামে রুকন মিয়া (৮) নামে এক স্কুল ছাত্র পানিতে ডুবে মারা গেছে। সে ওই গ্রামের মৌলদ মিয়ার পুত্র ও স্থানীয় প্রাইমারী স্কুলের প্রথম শ্রেণীর ছাত্র। গতকাল সোমবার বিকালে খেলতে গিয়ে বাড়ির পাশে একটি পুকুরে পড়ে যায়। পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।
niho taniaঅপরদিকে হবিগঞ্জ শহরের শায়েস্তানগরে ৬ষ্ট শ্রেণীর এক ছাত্রী পানিতে ডুবে মারা গেছে। তবে তার স্বজনদের অভিযোগ চিকিৎসার অবহেলায় তার মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে স্বজনরা হাসপাতালের কর্মচারিদের সাথে বাকবিতন্ডা ও ভাংচুর করেছে। গতকাল সোমবার বিকেলে ওই এলাকার বাবুল মিয়ার কন্যা জেকেএন্ড এইচ কে হাই স্কুলের ৬ষ্ট শ্রেণীর ছাত্রী তানিয়া আক্তার (১৩) ওই এলাকার আল ইদ্রিস স্কুলের পুকুরে গোসল করতে গিয়ে নিখোঁজ হয়। স্থানীয় লোকজন দীর্ঘক্ষণ খোজে পুকুর থেকে তাকে উদ্ধার করে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে এলে কর্তব্যরত ডাক্তার নির্ঝর ভট্টাচার্য্য তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ সময় তানিয়ার স্বজনরা তার মৃত্যুর কারণ হিসেবে চিকিৎসার অবহেলাকে দায়ী করে বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে পড়েন। তারা অভিযোগ করেন ডাক্তার ১০ মিনিট পর এসে রোগী দেখেন। প্রথমে ওই ডাক্তার তার রোমে ছিলেন না। তিনি হেলথ সহকারির মাধ্যমে রোগীকে পরীক্ষা নিরীক্ষা করান। ১০ মিনিট পর এসে তিনি তানিয়াকে মৃত ঘোষণা করেন। এতে স্বজনরা হাসপাতালে ভাংচুর শুরু করে। খবর পেয়ে সদর থানার এসআই সাহিদ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করেন। স্বজনরা আরো জানান, সময়মতো ডাক্তার এসে দেখলে তানিয়া হয়তো বেঁেচ যেতো। এব্যাপারে ডাক্তার নির্ঝর ভট্টাচার্য্য জানান, হাসপাতালে আনার আগেই রোগী মারা যায়।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com