রবিবার, ০৭ মার্চ ২০২১, ০৯:১৫ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
আজ ঐতিহাসিক ৭ মার্চ হবিগঞ্জে ড্যান্ডি নেশায় ঝুঁকছে টোকাই শিশুরা প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলীর সাথে মেয়র সেলিমের শুভেচ্ছা বিনিময় নয়া জেলা প্রশাসক ইসরাত জাহানের দায়িত্ব গ্রহণ এমপি পুত্র ইফাত জামিলের আইন বিষয়ে ¯œাতকোত্তর ডিগ্রী অর্জন হবিগঞ্জ পৌর নির্বাচন ৭দিন আগে অনুষ্ঠিত হলেও শহরে বিরাজ করছে নির্বাচনী আমেজ! পোষ্টারে পোষ্টারে ছেয়ে আছে হবিগঞ্জ শহর ! এগুলো পরিস্কারের দায়িত্ব কার ? জন দূর্ভোগ ॥ নবীগঞ্জ-মুক্তাহার ব্রীজ বানিয়াচংয়ে প্রেমিকের ব্যবসা প্রতিষ্টানে প্রেমিকার অনশন ॥ সালিশে নিষ্পত্তির শর্তে মুরুব্বীদের জিম্মায় নবীগঞ্জে খোলা জায়গায় পশু জবাই করে বিক্রি ॥ পরিবেশ দুষিত হচ্ছেন পত্রিকায় লিখে কোন লাভ হবে না। কর্তারা তাদের ম্যানেজ নবীগঞ্জে অসহায় ব্যক্তির অর্ধশতাধিক গাছ কর্তন
বিদেশ পাঠানোর নামে প্রতারণা স্বামী পরিত্যক্তা যুবতীকে ধর্ষণ

বিদেশ পাঠানোর নামে প্রতারণা স্বামী পরিত্যক্তা যুবতীকে ধর্ষণ

স্টাফ রিপোর্টার \ চুনারুঘাট উপজেলার ইকরতলি সাদ্দাম বাজার গ্রামে আকলিমা খাতুন (২২) নামের এক স্বামী পরিত্যক্তা যুবতীকে বিদেশ পাঠানোর নামে ধর্ষণ করেছে একদল লম্পট। অসুস্থ অবস্থায় ওই যুবতী লম্পটদের বন্দিশালা থেকে পালিয়ে এসেছে। পরে তার মা কে নিয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছে।
মামলার বিবরণে জানা যায়, ৬ মাস আগে একই গ্রামের বারিক মিয়ার পুত্র নুর মোহাম্মদের সাথে রহমত আলীর কন্যা আকলিমার বিয়ে হয়। বিয়ের পর তাদের মাঝে বনিবনা না হওয়ায় গত ১ অক্টোবর তার স্বামী তাকে তালাক দেয়। এরপর থেকে আকলিমা তার পিত্রালয়েই বসবাস করছিল। এ সুযোগে আমুরোড গ্রামের রঙ্গু মিয়ার পুত্র মানবপাচারকারীর সদস্য মিজান মিয়া সুসম্পর্ক গড়ে তুলে আকলিমার সাথে। সে বিনা খরচে তাকে ওমান পাঠানোর প্রলোভন দেয়। আকলিমা তার কথায় বিশ্বাস করে মিজান মিয়ার প্রস্তাবে রাজি হয়। এক পর্যায়ে মিজান একটি ভূয়া ভিসা দিয়ে আকলিমাকে জানায় ১ নভেম্বর ফাইট। সে অনুযায়ী ১ নভেম্বর মিজান, শান্ত মিয়ার পুত্র রফিক আকলিমাকে ওমান নিয়ে যাবার কথা বলে বাড়ি থেকে বের করে নিয়ে আসে। শায়েস্তাগঞ্জের নতুন ব্রীজ এলাকায় আসার পর একটি কালো হাইয়েস গাড়িতে তুলে বিভিন্ন স্থানে আটকে রেখে ধর্ষণ করে। এদিকে আকলিমার মা মেয়ের কোন খবর না পেয়ে সন্ধান চালায়। এক পর্যায়ে গত ১৪ নভেম্বর কৌশলে আকলিমা তাদের বন্দিশালা থেকে পালিয়ে বাড়িতে আসে এবং বিষয়টি তার মাকে জানায়। তার মা মানবপাচার ও ধর্ষণের অভিযোগে হবিগঞ্জ কোর্টে একটি মামলা দায়ের করে।
এসআই কবিরুল ইসলাম গতকাল মঙ্গলবার ডাক্তারী পরীার জন্য আকলিমাকে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন। ডাক্তারী পরীা ও আদালতে জবানবন্দি শেষে তাকে তার মায়ের জিম্মায় দেয়া হয়েছে। এব্যাপারে এসআই কবির জানায় আসামীদের ধরতে অভিযান অব্যাহত আছে।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com