বৃহস্পতিবার, ২৮ মে ২০২০, ০৪:৩২ পূর্বাহ্ন

জেএসসির ইংরেজিতে দু’টি প্যাসেজ

জেএসসির ইংরেজিতে দু’টি প্যাসেজ

জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষায় ইংরেজি প্রথমপত্রের কাঠামো আংশিক পরিবর্তন করা হয়েছে। এবার এই বিষয়ে আগের তিনটি প্যাসেজের পরিবর্তে দু’টি প্যাসেজ রাখা হয়েছে।

এছাড়া চারু ও কারুকলা এবং শারীরিক শিক্ষা বিষয়ের সময় ৩০ মিনিট বাড়ানো হয়েছে।

এবারের জেএসসি পরীক্ষায় এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে।

রোববার সচিবালয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত জাতীয় শিক্ষাক্রম সমন্বয় কমিটির (এনসিসিসি)সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়।

সভা শেষে শিক্ষা সচিব কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেন, জেএসসি পরীক্ষায় ইংরেজি প্রথমপত্রের প্রশ্নপত্রে আগে তিনটি আনসিন প্যাসেজ থেকে উত্তর দিতে হতো। ২০১৩ সাল থেকে একটি সিন এবং একটি আনসিন প্যাসেজ থেকে উত্তর করবেন।

পরীক্ষার্থীদের কথা বিবেচনা করে তিনটি আনসিন প্যাসেজের পরিবর্তে এ সিদ্ধান্ত বলে জানান শিক্ষা সচিব।

তিনি আরও বলেন, চারু ও কারুকলা বিষয়ে দু’টি চিত্রাঙ্কন করতে হবে। সেজন্য চারু ও কারুকলাসহ শারীরিক শিক্ষা বিষয়ের পরীক্ষার সময় দুই ঘণ্টা থেকে বাড়িয়ে আড়াই ঘণ্টা নেয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। এতে পরীক্ষার্থীরা ভাল করবে বলে জানান শিক্ষা সচিব।

জেএসসিতে এবারই প্রথম চারু ও কারুকলা এবং শারীরিক শিক্ষা বিষয় অন্তর্ভূক্ত করা হয়।

শিক্ষা সচিব বলেন, পরীক্ষার সময় বাড়ানোর ফলে শিক্ষা ব্যবস্থাপনায় আরও শৃঙ্খলা আসবে।

চারু ও কারুকলার জন্য এরইমধ্যে ৬০০ শিক্ষককে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে জানিয়ে শিক্ষা সচিব জানান, একটি প্রকল্পের মাধ্যমে আরও প্রশিক্ষণ দেয়া হবে।

তবে অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের দাবি থাকলেও জেএসসির গণিতে মানবণ্টন ও প্রশ্ন কাঠামোর কোনো পরিবর্তন হচ্ছেনা।

শিক্ষা সচিব জানান, পাটি গণিতে ২৪ নম্বর, বীজ গণিতে ৩০, জ্যামিতিতে ৩৬ এবং পরিসংখ্যানে আগের ১০ নম্বর মানবণ্টন থাকছে।

শিক্ষা সচিব বলেন, গণিতে ভালভাবে শিখতে না পারলে শিক্ষার্থীরা পিছিয়ে যাবে। আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে বীজ গণিত ও জ্যামিতিতে শিক্ষার্থীদের দক্ষতা বৃদ্ধির জন্যই আগের কাঠামোতেই প্রশ্নপত্র ও মানবণ্টন থাকছে।

আগামী ৪ নভেম্বর অষ্টম শ্রেণির জন্য জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষার আগে চতুর্থবারের মতো এ মানবণ্টন করা হলো।

এসএসসি- এইচএসসি’র উচ্চতর গণিতে ব্যবহারিক

২০১৫ সালের এসএসসি এবং ২০১৭ সাল থেকে এইচএসসি পরীক্ষায় উচ্চতর গণিতে শিক্ষার্থীদের ব্যবহারিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে বলে জানান শিক্ষা সচিব।

উচ্চতর গণিতে তাত্ত্বিক অংশে ৭৫ এবং ব্যবহারিক ২৫ নম্বর রেখে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। তবে মন্ত্রীর অনুমোদন নিয়ে তা চূড়ান্ত করা হবে।

সভায় আন্তশিক্ষা সমন্বয় সাব-কমিটির সভাপতি ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান তাসলিমা বেগম, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ফাহিমা খাতুনসহ সংশ্লিষ্ট বিষয়ের বিশেষজ্ঞরা উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com