বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯, ১১:১৩ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
শহরে হাইব্রিড হীরা-২ নকল ধান বীজ তৈরির কারখানা আবিস্কার ॥ বিপুল পরিমাণ ক্যামিকেল, নকল বীজ ও প্যাকেট জব্ধ ॥ গুদাম সীলগালা হবিগঞ্জে সেমিনারে সিটিটিসি কর্মকর্তা ॥ জঙ্গীদের পরিবারের দুর্দশার চিত্র তুলে ধরলেও সচেতনতা আসতে পারে নবীগঞ্জে যুবতি অপহরণের অভিযোগে ১৪ বছর জেল লবন নৈরাজ্য ॥ হবিগঞ্জের বিভিন্ন স্থানে ২০ ব্যবসায়ীকে জরিমানা সমাপনী পরীক্ষা দিয়ে বাড়ি ফেরা হলো না নবীগঞ্জে ইয়াসমিনের নবীগঞ্জে ফরিদ গাজীর নবম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল বাহুবলে ইজিবাইক উল্টে ১ জনের মৃত্যু নবীগঞ্জে গণফোরামের প্রথম সভায় বক্তারা ॥ ড. রেজা কিবরিয়া সিলেট বিভাগের গর্ব তারেক রহমানের জন্ম বার্ষিকী উপলক্ষ্যে সদর উপজেলা বিএনপির মিলাদ মাহফিল সাংবাদিক সলিল এর পিতার পরলোকগমন ॥ শোক প্রকাশ
মাধবপুরে উত্তর বরগ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষকরা বিদ্যালয়ে আসেন খুশিমতো ॥ পাঠদানে স্থবিরতা

মাধবপুরে উত্তর বরগ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষকরা বিদ্যালয়ে আসেন খুশিমতো ॥ পাঠদানে স্থবিরতা

রিফাত উদ্দিন, মাধবপুর থেকে ॥ মাধবপুর উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলের প্রাথমিক শিক্ষার বেহাল অবস্থা বিরাজ করছে। সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তাদের সঠিক তদারকির অভাবে বিদ্যালয়ে কর্মরত শিক্ষকরা কখন আসেন, কখন যান তা কেউ বলতে পারে না। যে কোন সময় বেজে উঠে ছুটির ঘন্টা। ফলে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পাঠ গ্রহণ চরম ভাবে ব্যহত হচ্ছে। বিদ্যালয়ের প্রতি আগ্রহ হারাচ্ছে কোমলমতি শিশুরা। ক্রমান্বয়ে হ্রাস পাচ্ছে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি। শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় উপজেলার জগদীশপুর ইউনিয়নের উত্তর বরগ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা যায়, বিদ্যালয়টি তালাবদ্ধ। কয়েকজন শিক্ষার্থী বই খাতা নিয়ে মাঠে ছুটাছুটি করছেন। তাদের জিজ্ঞেস করলে জানা যায়, শিক্ষকরা তখনো আসেননি। পৌনে এগারোটায় প্রধান শিক্ষক নূরুল হক বিদ্যালয়ে উপস্থিত হন। সাংবাদিক পরিচয় জেনেই তিনি অন্যান্য শিক্ষকদের মোবাইল ফোনে দ্রুত বিদ্যালয়ে আসার জন্য তাগিদ দেন। কিছুক্ষণের মধ্যেই আরো দু’জন শিক্ষক হাজির হন। প্রধান শিক্ষক জানান, ওই বিদ্যালয়ে ৪ জন শিক্ষক দায়িত্ব পালন করছেন। আর শিক্ষার্থীর সংখ্যা ১১৮ জন। ওই সময় পর্যন্ত ৪র্থ ও ৫ম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের কেউ বিদ্যালয়ে আসেনি। তিনি বলেন, বিদ্যালয়ের চারপাশে পানি থাকায় শিক্ষকদের আসতে কিছুটা বিলম্ব হয়। শিক্ষার্থীরাও একই কারণে বিদ্যালয়ে কম আসে। দুপুর ১২টায় ওই বিদ্যালয় থেকে ফেরার পথে শিক্ষিকা মোস্তাফিজা আক্তারকে আসতে দেখা যায়। বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মোঃ সোয়াব মিয়া জানান, শিক্ষকরা প্রায়ই বিলম্বে বিদ্যালয়ে আসেন। এ ব্যাপারে তাদেরকে বার বার তাগাদা দেয়া হলেও কোন কাজ হয়নি। উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মমতা কর্মকার জানান, এ ব্যাপারে আজ রোববার তাদেরকে কারণ দর্শানো নোটিশ প্রদান করা হবে।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com