শুক্রবার, ০৫ মার্চ ২০২১, ১০:৪৪ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
নবীগঞ্জে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড ১৫ লাখ টাকার ক্ষতি মাধবপুরে গাছ এবং বৈদ্যুতিক খুঁটি ॥ প্রাণ বাঁচাল শিশু ও বৃদ্ধসহ ৪০-৫০ জন বাস যাত্রীর চুনারুঘাটের স্ত্রী-বিজয়নগরের স্বামী বিপুল গাঁজাসহ ভৈরব রেলওয়ে পুলিশের খাঁচায় হবিগঞ্জে আরো ৭০৩ জন করোনা টিকা নিয়েছেন চুনারুঘাট এসোসিয়েশন ইউকে ও শায়েস্তাগঞ্জ সমিতি ইউকের ভার্চুয়াল শোক সভা ও দোয়া মাহফিল হবিগঞ্জে জাতীয় জীবন বীমা দিবস উপলক্ষে র‌্যালী নব নির্বাচিত মেয়র সেলিমের সাথে আইনজীবীদের শুভেচ্ছা বিনিময় শহরের মাদক ব্যবসায়ী সৈয়দ আলী কারাগারে ॥ রিমান্ডের আবেদন কাঁচা সুপারি দিয়ে পান খেয়ে এক ব্যক্তির মৃত্যু মাধবপুরে মাদক বিরোধী জনসচেতনতার লক্ষ্যে বিটং পুলিশিং এর সভা অনুষ্টিত
মাধবপুরে মোবাইলে জনপ্রতিনিধি ব্যবসায়ী কাছে চাঁদা দাবির হিরিক

মাধবপুরে মোবাইলে জনপ্রতিনিধি ব্যবসায়ী কাছে চাঁদা দাবির হিরিক

মাধবপুর প্রতিনিধি ॥ মাধবপুরে কয়েক দিন ধরে মোবাইল ফোনে জনপ্রতিনিধি, ব্যবসায়ী ও পেশাজীবির কাছে অবসর প্রাপ্ত মেজর পরিচয় দিয়ে জনৈক ব্যক্তি পার্টির চাঁদা বাবদ মোবাইল ফোনে মোটা অংকের চাঁদা চেয়েছে। চাঁদা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে স্ত্রী সন্তান সহ তাদের বড় ধরনের ক্ষতি হবে বলে হুমকি দিয়েছে। ফলে জনপ্রতিনিধি, ব্যবসায়ী ও পেশাজীবিরা আতংকিত হয়ে পড়েছে। এ ঘটনায় অনেকেই থানায় সাধারণ ডাইরী করেছে।
জিডি সূত্রে জানা গেছে, গত ২১ জুন রাতে ০১৭৯৯৮২৭০৭৫ ফোন থেকে মেয়র হীরেন্দ্র লাল সাহার মোবাইল ফোনে (০১৭১৫২৪০৩১৬) অবসরপ্রাপ্ত মেজর জিয়াউল ইসলাম জিয়া পরিচয়ে জনৈক ব্যক্তি ১০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। টাকা না দিলে স্বামী স্ত্রী সন্তান ও তার ক্ষতি হবে বলে হুমকি দেয়। এর আগে একই দিন সন্ধ্যায় মেয়রের স্ত্রী এডভোকেট প্রীতি রানী দেবের মোবাইল ফোনে চাঁদা চেয়ে ভয়ভীতি প্রদর্শন করেন। একই দিন মাধবপুর বাজারের ব্যবসায়ী মনোজ কুমার মোদক, কাজী আক্তার উদ্দিন ও কাউন্সিলর দুলাল মোদকের কাছে একই কায়দায় ওই পরিচয়ে চাঁদা চেয়ে হুমকি দিয়েছেন। তাছাড়া ব্যবসায়ী কায়সার খাঁনের কাছেও একই কায়দায় চাঁদা দাবি করেছেন। উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল আজিজ, সিলেট উসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কর্মরত মাধবপুরের সন্তান ডাঃ সারোয়ার আলম, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন তালুকদারের ব্যবহৃত মোবাইল ফোনে অনুরূপ চাঁদা দাবি করেন। উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মজিব উদ্দিন তালুকদার ওয়াশিম জানান-আব্বা (আলাউদ্দিন তালুকদার বেনুর) মোবাইলে ফোন দিয়ে ১০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। তিতাস ডায়গস্টিক সেন্টার ও হাসপাতালের পরিচালক জন্টু মিয়া জানান- ডাঃ সারোয়ার আলমের কাছে অনুরূপ চাঁদা দাবি করেছে। থানার এস.আই মমিনুল ইসলাম জানান- আমরা এ চক্রটিকে খুজে বের করতে কাজ শুরু করেছি। আশা করি অচিরেই তাদের সনাক্ত করে আইনের আওতায় নিয়ে আসতে পারব।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com