মঙ্গলবার, ০৯ মার্চ ২০২১, ০৬:৩৩ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
সাতছড়িতে রকেট লাঞ্চারের ১৮টি গোলা নিস্ক্রিয় করলো সেনাবাহিনী মতবিনিময় সভায় নবাগত জেলা প্রশাসক ॥ দেশ ও জাতির উন্নয়ন অগ্রযাত্রায় সাংবাদিকদের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ আবু জাহির এমপি’র সাথে নবনির্বাচিত হবিগঞ্জ পৌর পরিষদের সৌজন্য সাক্ষাৎ নারী দিবসের চেতনায় সবাইকে উজ্জীবিত হওয়ার আহ্বান জেলা প্রশাসকের ৪নং ওয়ার্ডের মুরুব্বীয়ানদের সাথে মেয়র সেলিমের শুভেচ্ছা বিনিময় নূর মডেল কেজি এন্ড হাই স্কুলের শিক্ষা সফর সম্পন্ন নবীগঞ্জ উপজেলা মাসিক আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্টিত বিদায়ী জেলা প্রশাসককে তাসনুভা-শামীম ফাউন্ডেশনের সম্মাননা স্মারক প্রদান হবিগঞ্জে আরো ৫৩৪ জন করোনা টিকা নিয়েছেন মাধবপুরে আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালিত
নবীগঞ্জে চোখঁ নষ্ট দাবী করে মামলা ॥ শহরে চা বিক্রি করায় রহস্য ঘণিভুত

নবীগঞ্জে চোখঁ নষ্ট দাবী করে মামলা ॥ শহরে চা বিক্রি করায় রহস্য ঘণিভুত

মোঃ আলমগীর মিয়া, নবীগঞ্জ থেকে ॥ নবীগঞ্জ পৌর শহরে এক চা বিক্রেতার চোঁখ নষ্ট হওয়ার অভিযোগ এনে গত ২৪ মে নবীগঞ্জ থানায় মামলা করে শহরে চা বিক্রি করার ঘটনায় এলাকায় রসালো আলোচনার ঝড় বইচে। মামলার বাদী সুশেন দাশ তার একটি চোখঁ নষ্ট দাবী করলেও শহরে প্রকাশ্যে চা বিক্রি করতে দেখে জনমনে মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়।
এছাড়া বিরোধপূর্ন জায়গা কোর্টের নিষেধজ্ঞা থাকার পরও মামলার ভয় দেখিয়ে কাজ করেন ওই ব্যক্তি।
এদিকে উক্ত মামলাকে মিথ্যা দাবী করে আসামী রতন দেব জানান, তাদের আক্রমনের শিকার হয়ে তিনি গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা নেন। এ ব্যাপারে মামলা দায়ের করলে সুশেন দাশ নিজের অপরাধ ঢাকঁতে গিয়ে তাদের উপর এই মিথ্যা মামলা দায়ের করেছেন। সুত্রে জানা যায়, বিগত ২ মে নবীগঞ্জ পৌর শহরের শিবপাশা এলাকায় জমিজমা নিয়ে বিরোধের জেরধরে সুশেন দাশ ও রতন দেব’র মধ্যে শহরের আনোয়ার ম্যানশন-২ এর সামনে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে প্রায় ৫ জন গুরুতর আহত হয়। স্থানীয় লোকজন রতন দেবসহ আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে তাদেরকে ভর্তি প্রাথমিক চিকিৎসা এবং সুশেন দাশ ও সুবিনয় দাশকে সিলেট প্রেরন করা হয়। ভর্তির দু’দিন পরই তাদেরকে হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেয়া হয়। এদিকে সুশেন দাশ বাড়িতে এসে শহরের ওসমানী সড়কে নিয়মিত চা বিক্রি করে আসছেন। এ ঘটনায় স্থানীয় শালিসের মাধ্যমে নিস্পত্তি না হওয়ায় গত ৪ মে রতন দেব থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। ওই মামলার জবাবে সুশেন দাশ গত ২৪ মে থানায় অপর একটি মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় তার একটি চোখঁ সম্পুর্ণ নষ্ট হয়ে গেছে মর্মে অভিযোগ করেন। এ ব্যাপারে রতন দেব জানান, সুশেন দাশের চোখঁ নষ্ট হয়ে থাকলে হাসপাতালে ভর্তির দু’দিনের মাথায় ছাড়পত্র দেয়া হতো না। এছাড়া শহরের ব্যস্থতম ওসমানী সড়কে নষ্ট চোঁখ নিয়ে সুশেন চা- বিক্রি করা অসম্ভব হতো না। তিনি ওই মামলাকে মিথ্যা ও সাজানো দাবী করেন। এ ব্যাপারে সুশেন দাশ জানান, প্রতিপক্ষের আঘাতে তার চোখঁ নষ্ট হয়েছে। ডাক্তার উন্নত চিকিৎসার জন্য পরামর্শ দিয়েছেন। অপর দিকে এক চোখঁ অন্ধ দাবীদার সুশেন দাশের চা বিক্রির ঘটনায় তার অভিযোগ নিয়ে নানা সমালোচনা ঝড় বইছে। তবে মেডিকেল সার্টিফিকেট আসলেই আসল রহস্য উন্মোচিত হবে বলে অনেকেই মনে করেছেন।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com