বৃহস্পতিবার, ০১ অক্টোবর ২০২০, ০৭:৩৮ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
শহরে বিভিন্ন ব্যান্ডের বিপুল পরিমাণ ভারতীয় পন্যসহ চুনারুঘাটের যুবক আটক জেলা যুবলীগের আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিলে এমপি আবু জাহির ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র অবদান হবিগঞ্জবাসী ভুলতে পারবে না সিলেট স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা মামলায় হবিগঞ্জের যুবকসহ ৩ জন গ্রেফতার জাতীয়তাবাদী ওলামাদল এর ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন হবিগঞ্জ পৌরসভার কর মেলায় সাড়ে ৪০ লক্ষ টাকা আদায় হবিগঞ্জে নতুন করে ২ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হবিগঞ্জে সাড়ে ৩ লাখ শিশুকে ভিটামিন এ খাওয়ানো হবে হবিগঞ্জ জেলা যুবদলের সহ-সভাপতি মুরাদের পিতার ইন্তেকাল ॥ দাফন সম্পন্ন জি কে গউছের নাকে সফল অস্ত্রোপচার পরিবারের পক্ষ থেকে দোয়া কামনা নবীগঞ্জের জাহির হত্যা মামলায় আরও ৭ আসামীর জামিন না-মঞ্জুর
শহরের ইউনাইটেড শিশু জেনারেল হাসপাতালের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে সির্ভিল সার্জনের নিকট অভিযোগ

শহরের ইউনাইটেড শিশু জেনারেল হাসপাতালের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে সির্ভিল সার্জনের নিকট অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ হবিগঞ্জ শহরের ইউনাইটেড শিশু ও জেনারেল হাসপাতালের নার্স লুৎফা বেগমের ভুল চিকিৎসার কারণে নব জাতক শিশুর মৃত্যুর ঘটনায় হাসপাতাল কতৃপক্ষের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহনসহ যাবর্তীয় ক্ষতি পূরণের জন্য সিভিল সার্জন ও জেলা বিএমএ সভাপতির বরাবরে অভিযোগ করেছেন মৃত নবজাতকের পিতা সজল চক্রবর্তী। গত ১৫ ফেব্র“য়ারী লিখিত অভিযোগে তিনি উল্লেখ্য করেন দীর্ঘ দিন ধরে নবীগঞ্জ উপজেলার একজন স্বাস্থ্য সহকারি হিসেবে কাজ করে আসছেন। গত ৯ ফেব্র“য়ারী নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স্রের এমওএমসিএইচ ডাঃ নগেন্দ্র দাশের পরামর্শে তিনি তার স্ত্রী মিরা চক্রবর্তীকে সিজার করানো জন্য হবিগঞ্জ শহরের সবুজবাগস্থ ইউনাইটেড শিশু ও জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করান। ভর্তি পর রাত ১০ দিকে কর্তব্যরত ডাক্তার আরশাদ আলীর তত্ত্বাবধানে সিজারের মাধ্যমে তার স্ত্রী মীরা চক্রবর্তীর গর্ভে পুত্র সন্তান জন্ম লাভ করে। জন্মের পর কর্মরত ডাক্তার বাচ্চা ও মাকে সুস্থ্য বলে ঘোষনা দেন। পরের দিন ১০ ফেব্র“য়ারী তার স্ত্রীর নিয়মিত চিকিৎসক ডাঃ নগেন্দ্র কুমার দাশ ও হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালের চিকিৎসক ডাঃ দেবাশীষ দাশ বাচ্চা ও মা সুস্থ্য আছেন বলে জানান।
১১ ফেব্র“য়ারী সকাল ৭টার দিকে ২ দিন বয়সী সুস্থ্য বাচ্চাকে কর্মরত ডাক্তার বাহার নার্স লুৎফা বেগমকে একটি ইনজেকশন দেয়ার নির্দেশ দেন। এরপর লুৎফা বেগম বাচ্চার শরীরে একটি ইনজেকশন পুশ করেন। ইনজেকশন পুশ করার পর পরই তার শরীর নীল হয়ে যায়। এ অবস্থায় নার্স লুৎফা বেগমকে সাথে সাথে কি ইনজেকশন দেয়া হয়েছে জিজ্ঞেস করলে নার্স লুৎফা বেগম উত্তেজিত হয়ে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে ডাক্তার বাহারকে এ বিষয়টি জানানো হলে ডাক্তার বাহার নার্স লুৎফা বেগম কে জিজ্ঞেসাবাদ করলে নার্স লুৎফা বেগম ইনেজেকশ লুকানো চেষ্টা করেন। পরে সজল চক্রবর্তীর নবজাতক শিশুকে নিয়ে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে হাসপাতালের কর্মরত ডাক্তার দেবাশীষ দাশ তাকে সিলেট রাগীব আলী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন। সাথে সাথে তিনি তার বাচ্চাকে নিয়ে সিলেট রাগীব আলী হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্মরত চিকিৎসক তাকে জানান, বাচ্চাটি ২ ঘন্টা আগে মারা গেছে। পরবর্তীতে সজল চক্রবর্তীতে তার মৃত বাচ্চাকে নিয়ে ইউনাইটেড হাসপাতালে এসে কর্তৃপরে ভুল চিকিৎসায় তার বাচ্চা মারা গেছে বলে অভিযোগ করলে হাসপাতালের পরিচালক নাজমুল ইসলাম ও মইনুল ইসলাম তার সাথে দুর্ব্যবহার করেন। এ অবস্থায় তিনি ডাক্তার দেবাশীষ দাশ ও সাংবাদিকদের এ বিষয়টি অবগত করলে তারা সেখানে গিয়ে তদন্ত করে এ ঘটনার সতত্যা পান। এক পর্যায়ে হাসপাতালের পরিচালক নাজমুল ইসলাম ও মইনুল ইসলাম তাদের ভুল চিকিৎসায় তার ২ দিন বয়সী বাচ্চা মারা যাওয়ার কথা স্বিকার করেন। এ প্রেক্ষিতে পরের দিন বিভিন্ন দৈনিক পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ করে। এমনতাবস্থায় ইউনাইটেড শিশু জেনারেল হাসপাতালের বিরুদ্ধে তদন্তপূর্বক বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহন করে তার যাবতীয় ক্ষতিপূরণের দাবি জানান।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com