মঙ্গলবার, ১৮ Jun ২০১৯, ০৩:৪৮ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
স্বপ্নময় যাত্রার নবদিগন্তে ॥ শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন আজ ইশতেহার ঘোষণাকালে মেয়র প্রার্থী টিটু নির্বাচন আদৌ সুষ্টু হবে কি-না এ নিয়ে আমি শংকিত ও আতংকিত উইন্ডিজকে উড়িয়ে বাংলাদেশের ইতিহাস সদর উপজেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভায় এমপি আবু জাহির ॥ আইনশৃঙ্খলা স্বাভাবিক রাখার স্বার্থে অপরাধীর শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে ধুলিয়াখাল-মিরপুর সড়কে কার চাপায় দিনমজুরের প্রাণহানী নবীগঞ্জে ইউসুফ চৌধুরীর উপর দুবর্ৃৃত্তদের হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন ॥ দোষীদের চিহ্নিত করতে প্রশাসনকে ৭ দিনে আল্টিমেটাম দলীয় নেতাকর্মী ও সমর্থকদের নিয়ে টিটু’র গণসংযোগ অব্যাহত হবিগঞ্জ পৌর নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী মিজানের গণসংযোগ অব্যাহত বিএনপি নেতা মেয়র প্রার্থী তনু’র গনসংযোগ বাংলাদেশ ছাত্রকল্যাণ ফেডারেশন হবিগঞ্জ জেলা শাখার কমিটি অনুমোদন
বানিয়াচঙ্গে ৭ দুর্ধর্ষ ডাকাত আটক ॥ ডাকাতি ছেড়ে দিলে আর মামলা দেয়া হবে না-পুলিশ সুপার

বানিয়াচঙ্গে ৭ দুর্ধর্ষ ডাকাত আটক ॥ ডাকাতি ছেড়ে দিলে আর মামলা দেয়া হবে না-পুলিশ সুপার

বানিয়াচং প্রতিনিধি ॥ হবিগঞ্জ-বানিয়াচং আঞ্চলিক মহাসড়কে এক সপ্তাহের ব্যবধানে দু’টি গণ-ডাকাতির ঘটনায় পুলিশ তৎপর হয়ে উঠেছে। কয়েকদিনে সাঁড়াশি অভিযান চালিয়ে ডাকাতির মামলার ৭জন  আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গত ৪ ডিসেম্বর শুটকি নদীর ব্রিজের কাছে সড়কে গাছ ফেলে ও ৮ ডিসেম্বর কালারডুবা ব্রিজের কাছে ডিঙি নৌকা ফেলে ব্যারিকেড সৃষ্টি করে ২৫ টি যানবাহনে ডাকাতি হয়। ঘন্টাব্যাপি চলে গণ-ডাকাতি। এ সময় মোবাইলফোন সেটসহ নগদ কয়েক লাখ টাকা লুটে নেয়। যাত্রীদের মারপিট ও ক’টি গাড়ি ভাংচুর করে ত্রাস সৃষ্টি করে। এরই প্রেক্ষিতে পুলিশ চিহ্নিত ডাকাতদের গ্রেফতারে মরিয়া হয়ে ওঠে। বৃহস্পতিবার রাতে সুবিদপুর ইউনিয়নের আতুকুড়া গ্রামের নজিরকে (২৯) গ্রেফতার করা হয়। শুক্রবার রাতে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে ওসি লিয়াকত আলীর নেতৃত্বে ইন্সপেক্টর (তদন্ত) বিশ্বজিৎ দেব সহ বানিয়াচং থানার একদল পুলিশ নয়াপাথারিয়া থেকে হবিগঞ্জ সদরের উচাইল সারিগাও গ্রামের নিলু মিয়ার পুত্র বাহার (২৮), বানিয়াচং সদরের আমীর খানী গ্রামের আলকাছ মিয়ার ছেলে রিয়াজ (৩০), মাধবপুর উপজেলার ফতেহপুর গ্রামের মৃত রঙ্গু মিয়ার ছেলে মারুফ (২২), একই উপজেলার বাখরনগর গ্রামের সুকুম আলীর ছেলে রুশন (২২) ও অপর অভিযানে আমীর খানী গ্রামের আবু শ্যামার ছেলে সাইফুল (৩০) ও ইকরাম গ্রামের মস্তু মিয়ার ছেলে সোহেলকে (২৬) গ্রেফতার করা হয়। পুলিশ জানায়, গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে বানিয়াচংসহ বিভিন্ন থানায় একাধিক ডাকাতির মামলা রয়েছে। সাংবাদিকদের ওসি লিয়াকত আলী Untitled-1 copy.jpg1জানান, চুরি ডাকাতি রোধে এ গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত থাকবে।
এদিকে গতকাল শনিবার সকাল ১১ টায়র দিকে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংকালে পুলিশ সুপার জয়দেব কুমার ভদ্র বলেন, শীতে ঘন কুয়াশার কারনে সম্প্রতি ডাকাতদের উৎপাত বেড়েছে। এ অবস্থায় পুলিশ শুক্রবার রাত থেকে জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে দেশীয় অস্ত্র ও লুন্ঠিত মালামালসহ আন্তঃজেলা ডাকাত দলের ৯ সদস্যকে আটক করেছে। তিনি বলেন, যেসব ডাকাত কোর্টে আত্মসমর্পণ করে ডাকাতি ছেড়ে দেবে তাদের বিরুদ্ধে আর কোন নতুন মামলা দেয়া হবে না। ভাল হয়ে গেলে জনগণকে সাথে নিয়ে তাদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করে দেয়া হবে। এছাড়া আটক ডাকাতরা জামিনে মুক্তি পেয়ে ডাকাতি ছেড়ে দিলে তাদের বিরুদ্ধেও কোন নতুন মামলা দেয়া হবে না। প্রেস ব্রিফিংয়ে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শহিদুল ইসলাম, সহকারি পুলিশ সুপার মাসুদুর রহমান মনির ও নবাগত সাজিদুর রহমান। ওসিদের মধ্যে ছিলেন সদর থানার ওসি মোঃ নাজিম উদ্দিন, লাখাই থানার ওসি মোজাম্মেল হক ও ডিবির ওসি মোক্তাদির চৌধুরী।
প্রেস ব্রিফিং শেষে দেশীয় অস্ত্র ও মালামাল সহ আটক বানিয়াচংয়ের রিয়াজ, বাহার মিয়া, মারুফ আহমেদ, রেশন মিয়া, ছয়ফুল মিয়া, হবিগঞ্জ সদর উপজেলার কুদ্রত আলী, শামীম মিয়া, জুয়েল মিয়া এবং লাখাই উপজেলার কাওসার মিয়া ও সোহেল মিয়াকে সাংবাদিকদের সামনে নিয়ে আসা হয়। আটককৃতদের বিরুদ্ধে হবিগঞ্জ জেলাসহ বিভিন্ন স্থ শতাধিক মামলা রয়েছে বলে জানানো হয়।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com