শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯, ১০:৫১ পূর্বাহ্ন

সাতছড়ির অস্ত্রের খনি থেকে বিপুল পরিমাণ গোলাবারুদ উদ্ধার

সাতছড়ির অস্ত্রের খনি থেকে বিপুল পরিমাণ গোলাবারুদ উদ্ধার

আবু হাসিব খান চৌধুরী পাবেল ॥ চুনারুঘাটের সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানের গহিন অরণ্যে বের হচ্ছে একের পর এক অস্ত্র ও গোলাবারুদ। এ যেন অস্ত্রের খনি। জাতীয় উদ্যানের গহীণ অরণ্য থেকে চতুর্থ দফা অভিযানের ২য় দিনে গতকালও বিপুল পরিমাণ গুলি উদ্ধার করেছে র‌্যাব-৯। একের পর এক অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় স্থানীয় বাসিন্দা ও পর্যটকদের মধ্যে সৃষ্টি হয়েছে এক অজানা আতংক। মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছেন সাতছড়িতে ভ্রমনে আসা পর্যটকরা। গতকাল শুক্রবার দুপুর ১ টায় অরণ্যের গহীণে নতুন দুটি বাংকার খুঁড়ে ৭.৬২ এমএম এর ৮ হাজার ৩শ ৬০ রাউন্ড গুলি, ৭.৬২ থ্রি নট থ্রি রাইফেলের ১শ ৫২ রাউন্ড গুলি, নাইন এমএম পিস্তলের ৫শ ১৭ রাউন্ড গুলি, ১২.৭ এমএম ট্যাংক ও বিমান বিধ্বংসী ৪শ ২৫ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়। সর্বমোট ৯ হাজার ৪শ ৫৪ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করে র‌্যাব।
বাংকার থেকে মোট ৮০টি ম্যাগজিনও উদ্ধার করা হয়। এর মধ্যে এলএমজি রাইফেলের ২টি, এসএমজির ২০টি, এসএলআর এর ৬টি, থ্রি নট থ্রির ৪টি, পিস্তলের ২৯টি, জি থ্রি রাইফেল ১২টি ম্যাগজিন উদ্ধার করা হয়। এছাড়াও ৫টি ওয়ারলেস সেট ও রেডিও ১টি সহ মোট ১১টি বক্স পাওয়া যায়। এর মধ্যে ৫টি বক্সে ১২.৭ এমএমের গুলি, বাকি ৬ টিতে ৭.৬২ এমএমের গুলি পাওয়া যায়।
র‌্যাব-৯ এর কমান্ডিং অফিসার রিয়াদ হাসান রব্বানী গতকাল শুক্রবার দুপুরে সাতছড়ির পাহাড়ি টিলায় এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান। তিনি আরো জানান, আমাদের অভিযান অব্যাহত আছে। এ সময় উপস্থি ছিলেন শ্রীমঙ্গল ক্যাম্পের কমান্ডিং অফিসার এ এন এ মোসাব্বীর জি ডি পি।
DSC09936 copyপ্রসঙ্গত, সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানে গত ১ জুন রাত থেকে দুই শতাধিক র‌্যাব সদস্য, ডগ স্কোয়াড ও বোমা বিশেষজ্ঞ দল নিয়ে অভিযান শুরু করে। একে একে আবিস্কার করে ১৫টি বাংকার। এসব বাংকার থেকে ৩, ৪ ও ৯ জুন উদ্ধার করা হয় ২২২টি কামান বিধ্বংসী রকেট, ২৪৮টি রকেট চার্জার, ১টি রকেট লঞ্চার, ৪টি ৭ দশমিক ৬ মিলিমিটার মেশিনগান, ৫টি মেশিন গানের অতিরিক্ত খালি ব্যারেল, ১২ দশমিক ৭ মিলিমিটারের ১৩শ’ ৭৬ রাউন্ড বুলেট, ৭ দশমিক ৬ মিলিমিটারের ১২ হাজার ৩শ রাউন্ড বুলেটসহ বিপুল পরিমাণ গোলাবারুদ। ১৯ জুন রাতে ১ম দফা অভিযান শেষ ঘোষণা করা হয়। ২য় দফায় ২৯ আগস্ট থেকে ২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে ৯টি এসএমজি, ১টি এমএমজি, ১টি বেটাগান, ১টি ৭.৬২ মি.মি. অটো রাইফেল, ৬টি এসএলআর, ২টি এলএমজি, ১টি ¯œাইপার টেলিস্কোপ সাইড ও ২ হাজার ৪শ’ রাউন্ড গোলাবারুদ উদ্ধার করা হয়। ৩য় দফায় ১৫ থেকে ১৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে ১১২টি ট্যাংক বিধ্বংসী রকেট গোলা ও ৪৮টি রকেট চার্জার উদ্ধার করে র‌্যাব। গত বৃহস্পতিবার মাটি খুড়ে ৪র্থ দফায় ৩টি মেশিন গান, ৪টি ব্যারেল, ৮টি ম্যাগজিন, ২৫০ রাউন্ড গুলির ধারণক্ষমতা সম্পন্ন ৮টি বেল্ট ও উচ্চক্ষমতা সম্পন্ন একটি রেডিও ছেফ উদ্ধার করা হয়। এদিকে চুনারুঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ অমূল্য কুমার চৌধুরী জানান, অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় ৫টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এর মধ্যে প্রথম দফায় উদ্ধারকৃত অস্ত্র ও বিস্ফোরকের বিষয়ে দায়ের করা দুটি মামলা তদন্তের জন্য সিআইডিতে হস্থান্তরের প্রক্রিয়া চলছে।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com