রবিবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২১, ০৯:৩৮ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
নবীগঞ্জে ৭ কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার মাধপুর পৌরসভায় নৌকার পরাজয়ের জন্য হাবিল-কাবিলকে দায়ী করলে শ্রীধাম চুনারুঘাটে প্রধানমন্ত্রীর উপহার ৭৪ পরিবারের কাছে ঘর হস্তান্তর আজমিরীগঞ্জে ২ জুয়াড়ী আটক মোবাইল কোর্টে সাজা প্রদান হবিগঞ্জ পৌরসভার মেয়র পদে দলীয় মনোনয়ন ফরম জমা দিলেন মোঃ নূরুল আমিন ওসমান দক্ষিণ তেঘরিয়া মিনিবার ডে-ফুটবল টুর্ণামেন্ট কমিটির উদ্যোগে অনুষ্ঠিত খেলার পুরস্কার বিতরণ সম্পন্ন নবীগঞ্জের নতুন ঘরসহ বাড়ী পেল ২৫ ভূমিহীন পরিবার পইলে সৈয়দ আহমদুল হক ব্যাডমিন্টন টুর্ণামেন্টের উদ্বোধন ও সৈয়দ সুমনকে সংবর্ধনা প্রদান মাধবপুরে ভূমিহীন ও গৃহহীন ৪৬ পরিবার পেল বাড়ির দলিল নবীগঞ্জে ইউনিয়ন হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সাধারন সম্পাদকের পিতার শ্রাদ্ধানুষ্টান সম্পন্ন
জুমার খুৎবায় আল্লামা মোস্তাফিজুর রহমান আজহারী ॥ জালিম বাদশাদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করাই হচ্ছে সর্বোত্তম জিহাদ

জুমার খুৎবায় আল্লামা মোস্তাফিজুর রহমান আজহারী ॥ জালিম বাদশাদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করাই হচ্ছে সর্বোত্তম জিহাদ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ হবিগঞ্জ শহরের মোহনপুর উত্তর জামে মসজিদের খতিব আল্লামা মোস্তাফিজুর রহমান আজহারী গতকাল শুক্রবার জুমার খুৎবায় বলেছেন-সত্যিকারের ঈমানদার হতে হলে সত্যের পথে মানুষকে আহবান করতেই হবে। সত্যের পথে মানুষকে আহবান করা এতোটা সহজ কাজ নয়। যুগে যুগে নবী রাসুল (সা:) গণ সত্যের পথে মানুষকে আহবান জানাতে গিয়ে নিগ”হীত হয়েছেন। এমন কোনো নবী রাসুল (স:) নেই যারা আল্লাহর দ্বীনের দিকে মানুষকে আহবান জানাতে গিয়ে নির্যাতনের শিকার হননি। একই সাথে অন্যায়কারী জুলুমকারী ফেৎনা সৃষ্টিকারী, ঘুষকোর, সুদকোরদের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে প্রতিবাদ করতে হবে। ইসলামের বিরুদ্ধে অবস্থানকারী ও সিদ্ধান্ত গ্রহণকারীদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। সাচ্চা ঈমানদারের পরিচয়ই হচ্ছে সৎকাজে মানুষকে আহবান করা এবং অন্যায় জুলুমের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করা। রাষ্ট্র প্রধানও যদি ইসলামের বিরুদ্ধে কোনো সিদ্ধান্ত নেন তাহলেও প্রতিবাদ জানাতে হবে। জালিম বাদশার বিরুদ্ধে জুলুমের সরাসরি প্রতিবাদ করা হচ্ছে সর্বোত্তম জিহাদ। আল্লামা আজহারী বলেন- সত্তোরের দশকে মিশরের বাদশা জামাল আবু নাসের ইসলামের বিরুদ্ধে অবস্থান নেন। হাজার হাজার মুসলমান বাদশার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ প্রতিরোধ গড়ে তুলেন। সেই জিহাদের সম্মুখ সারির নেতা ছিলেন হাসান আল বান্না। তাকে গুলি করে শহীদ করা হয়। তবুও মুসলমানরা থেমে থাকেননি। অবশেষে জামাল আবু নাসেরেরই পতন হয়েছে। মুসা আঃ এর জামানায় জালিম শাসক ছিলেন ইউসুফ বিন নেওয়াজ। তিনি তার মূর্তিকে পূজা করতে মানুষকে বাধ্য করেন। তখনকার যুবক আব্দুল্লাহ ইবনে তাইমিয়া ছিলেন আল্লাহর এক প্রিয় বান্দা। তিনি জালিম বাদশার বিরুদ্ধে অবস্থান নেন। অবশেষে আব্দুল্লাহ ইবনে তাইমিয়াকে শহীদ করা হয় সত্য, কিন্তু একজন শহীদের বিনিময়ে ত্রিশ হাজারেরও বেশি অগ্নি পুজারী আল্লাহর দ্বীন গ্রহণ করে আল্লাহর দ্বীনকে প্রসারিত করেন। তিনি বলেন- আলেম ওলামাদের উচিত অন্যায়ের প্রতিবাদ করা। কে কোন দল করে সেটা বিষয় নয়। যে সত্য কথা বলবে, সত্যের পথে থাকবে, সেই আমাদের আপন। অন্যায়ের প্রতিবাদ না করার কারণে আলেমদের বিচার করা হবে। অন্যায় কাজের নিরব দর্শক আলেমদেরকে বোবা শয়তান হিসাবে উল্লেখ করা হয়েছে। চাকুরী হারানোর ভয়ে, মতা হারানোর ভয়ে, দুনিয়ার লাভ লোকসানের হিসাব করে যেসব আলেম ওয়াজ নসিহত করেন তাদেরকে আল্লাহর কাঠগড়ায় দাড়াতেই হবে। আল্লামা মোস্তাফিজুর রহমান আজহারী সকলকে ইসলাম বুঝার ও আমল করার আহবান জানান।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com