বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ১০:৩৬ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত প্রাঙ্গণে বিপুল পরিমাণ মাদক ধ্বংস শহরে টমটম স্ট্যান্ডের দখল নিয়ে সংঘর্ষে নিহত ব্যবসায়ী রশিদের দাফন সম্পন্ন শায়েস্তাগঞ্জের ২ পা হারানো স্কুল ছাত্রী নদীকে মানবিক সহায়তা নবীগঞ্জে অবৈধ যানবাহন আটকে পুলিশের অভিযান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ডাব্লিউএইচও এর কো-চেয়ারম্যান মনোনীত হওয়ায় হবিগঞ্জ পৌর স্বেচ্ছাসেবকলীগের আনন্দ র‌্যালী বাহুবল সন্তান নিয়ে পালিয়ে যাওয়া পিতার কবল থেকে শিশু উদ্ধার তাসনোভা-শামীম ফাউন্ডেশন ও মরহুম আব্দুল মালেক এন্ড আয়াত আলী স্মৃতি সংঘের যৌথ উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ হবিগঞ্জে বাড়ছে ঠান্ডা জনিত রোগ এক সপ্তাহে ৩৫০ শিশু আক্রান্ত হবিগঞ্জে নতুন করে ৪ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত শেখ হাসিনা দেশকে এমনভাবে গড়তে চান যেন সারাবিশ্ব অবাক হয়ে দেখে-এমপি আবু জাহির
মাধবপুরে রাষ্টু খুন ॥ আতংকে রয়েছে কয়েক গ্রামের লোকজন

মাধবপুরে রাষ্টু খুন ॥ আতংকে রয়েছে কয়েক গ্রামের লোকজন

স্টাফ রিপোর্টার ॥ মাধবপুরে আতংকের নাম উজ্জ্বল ও তার লোকজন। চুরি, ছিনতাই, মাদক, দাদন ব্যবসা, নারী নির্য়াতন ও দখলবাজীসহ এহেন কাজ নেই যা এ বাহিনী করে না। তাদের ভয়ে কয়েক গ্রামের সাধারণ তটস্ত। কেউ প্রতিবাদ করলেই তাদের উপর নেমে আসে অত্যাচার ও নির্যাতন। মিথ্যা মামলা দিয়ে করা হয় হয়রানী। অনৈতিক কাজ করে শূন্য থেকে অল্প দিনেই বিপুল অর্থ সম্পদের মালিক উজ্জ্বল। চুরি, ডাকাতি, মাদক, নারী নির্যাতন ও খুনসহ ডজনখানেক মামলা ও সাধারন ডায়েরী থাকলের এসবের তোয়াক্কা না করে বীরদর্পে কর্ম চালিয়ে যাচ্ছে। এলাকায় শতাধিক মানুষ দাদন ব্যবসার ফাঁদে পড়ে নিঃস্ব হয়ে এখন পথে বসেছে। মাধবপুর পৌর শহরের ১নং ওয়ার্ডের গুনি মিয়ার ছেলে উজ্জ্বল। কয়েক বছর আগের তাদের সামান্য ভিটে বাড়ী ছাড়া তেমন কিছুই ছিল না। এখন তার হাতে কোটি কোটি টাকা, অগাধ সম্পদের মালিক। তাদের বাড়ীর পাশ দিয়ে কয়েক গ্রামের মানুষ যাতায়াত করার সুবাদে প্রায়ই পথচারীদের নির্যাতন করে থাকে। তাদের অত্যাচারে অতীষ্ট হয়ে ২০১৩ সালে মাধবপুর পৌরসভার মেয়রসহ কয়েকটি গ্রামের কয়েক শতাধিক মানুষ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। প্রশাসনকে ম্যানেজ করে ফেলায় এর তেমন কোন প্রতিকার না হওয়ায় পরবর্তীতে উজ্জ্বল তার ৭ সহোদরসহ কয়েক অপরাধী নিয়ে একটি সিন্ডিকেট গঠন করে। এক পর্যায়ে গড়ে তোলে দাদন ব্যবসার সিন্ডিকেট। এ সিন্ডিকেটের মাধ্যমে অসহায় লোকদেরকে ফাঁদে ফেলে সাদা স্টামে স্বাক্ষর রেখে অনেকের ভিটে মাটি জায়গা-জমি নিজের নামে লিখে নেয়। অনেককে ভয়ভীতি ও মারধোর করে টাকা-পয়সা হাতিয়ে নেয়। ১৪ অক্টোবর সন্ধ্যা রাতে উজ্জ্বল ও তার লোকজনের অত্যাচার ও নির্যাতন থেকে বাঁচতে কয়েকটি গ্রামের হাজারো জনতা জড়ো হয়ে প্রতিবাদ সভা করে। সভা শেষে বাড়ী ফেরার পথে প্রতিবাদী লোকজনের উপর হামলা করা হয়। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি শান্ত করে। এরই মধ্যে উজ্জ্বলের প্রতিবন্ধি ভাই রাষ্টু মিয়া নিজবাড়ীতে রহস্যজনক খুন হয়। রাষ্টু খুনের ঘটনায় ৪৬ জনের নাম উল্লেখ করে আরো ১০০জনকে অজ্ঞাত করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়। মামলা দায়েরের ফলে কয়েক গ্রামের সাধারন মানুষ পালিয়ে বেড়াচ্ছে। তাদের অত্যাচার ও মিথ্যা মামলার ফাঁদ থেকে বাচঁতে আন্দিউড়া ও বহরা ইউনিয়নের চেয়ারম্যানসহ কয়েকশত মানুষ স্বাক্ষরিত একটি আবেদন দিয়েছেন সিলেট রেঞ্জের ডিআইজি ও হবিগঞ্জের পুলিশ সুপারের নিকট। আবেদনে স্বাক্ষরকারীরা রাষ্টু হত্যার সুষ্টু ও নিরেপেক্ষ তদন্ত দাবি করেছেন। ঘটনার পর পরই উজ্জ্বল ও তার লোকজন মোটরসাইকেল নিয়ে স্বশস্ত্র মহরা দেয়া শুরু করে। এতে এলাকার নারী ও শিশুরা ভয়ে আতংকে রয়েছে।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com