বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ০৫:৪১ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
করোনা আক্রান্ত এমপি আবু জাহিরকে হেলিকপ্টারে সিএমএইচ-এ নেয়া হয়েছে চুনারুঘাটে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন ॥ ৪ ব্যক্তিকে কারাদন্ড আজমিরীগঞ্জে উপজেলা চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ভাইস চেয়ারম্যানের মামলা নবীগঞ্জের দিনারপুরে সরকারি গাছ কর্তন ॥ অভিযোগের তীর চেয়ারম্যান-মেম্বারের দিকে এমপি আবু জাহিরের সুস্থতা কামনায় জেলা তাঁতী লীগের মিলাদ ও দোয়া মাহফিল মাধবপুরে রাষ্টু খুন ॥ আতংকে রয়েছে কয়েক গ্রামের লোকজন ইসলামি ব্যাংকের এক গ্রাহকের ২ লাখ ৪৪ হাজার টাকা উধাও জেলা তাঁতীদলের বিক্ষোভ সমাবেশ কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের আগমন উপলক্ষে জেলা জাতীয় পার্টির পরামর্শ সভা মহানবী (সাঃ) এর ব্যঁঙ্গচিত্র প্রকাশের প্রতিবাদে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাত সমন্বয় পরিষদের মানববন্ধন ও বিক্ষোভ
যুবলীগ সভাপতি ও তার ভাইকে জড়িয়ে মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করার প্রতিবাদে সভা

যুবলীগ সভাপতি ও তার ভাইকে জড়িয়ে মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করার প্রতিবাদে সভা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ হবিগঞ্জ জেলা যুবলীগ সভাপতি ও তার ভাইকে জড়িয়ে মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করার প্রতিবাদে সভা করেছেন এলাকাবাসী। গতকাল শনিবার বিকেলে শহরের নোয়াহাটি এলাকায় এ প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। অমূল্য রায়ের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন সুজিত বণিক। প্রতিবাদ সভায় লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সুধাংশু সূত্রধর। বক্তব্য রাখেন বিমল দত্ত, গৌতম রায়, সজল দাশ ও সুভাষ আচার্য্য প্রমুখ।
বক্তারা বলেন, ২৫ বছরেরও বেশি সময় ধরে জেলা যুবলীগ সভাপতি আতাউর রহমান সেলিম ও তাদের পরিবার ওই এলাকায় সুনামের সাথে বসবাস করে আসছেন। তিনি ওই এলাকার উন্নয়নসহ সামাজিক কর্মকাণ্ডে সব সময় সহযোগিতা করছেন। ওই এলাকায় প্রকৌশলী, আইনজীবী, ব্যবসায়ী, চিকিৎসকসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ বসবাস করে থাকেন। ওই এলাকাটি সনাতন ধর্মাবলম্বীদের এলাকা হিসেবে পরিচিত। ওই এলাকায় ভাড়াটিয়াসহ প্রায় ৪৫৭টি পরিবার বসবাস করে। এরই ধারাবাহিকতায় এলাকায় শান্তি শৃংখলা রক্ষায় এলাকাবাসি কমিউনিটি পুলিশিংয়ের মাধ্যমে নিজস্ব তহবিল সংগ্রহ করে পাহারাদার নিয়োগের ব্যবস্থা করেছেন। এখানে কোনো চুরি, ডাকাতি ও অসামাজিক কাজ হয় না বললেই চলে। সম্প্রতি করোনা পরিস্থিতিতে অনেক ভাড়াটিয়া চলে গেলে কমিউনিটি সার্ভিসটি অক্ষুন্ন রাখতে এলাকাবাসী বৈঠকের মাধ্যমে প্রত্যেকের আর্থিক স্বচ্ছলতা অনুযায়ী ২শ, ১শ ও ৫০ টাকা হারে চাঁদা নির্ধারণ করা হয়। প্রতিমাসে ৩৭ হাজার টাকা চাঁদা উত্তোলন করা হয় এবং পাহারাদার ও সংগ্রহকারীর বেতন ও অন্যান্য খরচ বাবদ খরচ হয় ৩৬ হাজার টাকা। অবশিষ্ঠ টাকা এলাকার সামাজিক ও সেবামূলক কার্যে ব্যয় করা হয়। কিন্তু আমার হবিগঞ্জ পত্রিকায় গত ১২ সেপ্টেম্বর ও ৩ আগষ্ট যুবলীগ সভাপতি আতাউর রহমান সেলিম ও তার ভাই এমদাদুর রহমান বাবুলকে জড়িয়ে ব্যক্তিগত আক্রোশে মিথ্যা ও বানোয়াট সংবাদ প্রকাশ করে। তারা বলেন, এতে আতাউর রহমান সেলিম ও তার পরিবারকে হয়রানির চেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে একটি কুচুক্রি মহল। বক্তারা উক্ত সংবাদের প্রতিবাদ ও নিন্দা জানান।
অন্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন শ্রীকান্ত দেব, অমিয় চন্দ্র রায়, বিন্দু দাশ, বিমল বণিক, অমল পাল, রমাকান্ত দাশ, অসীম চৌধুরী, অমৃত লাল সূত্রধর, গোপাল সূত্রধর, রবি সরকার, প্রণয় চৌধুরীসহ দুই শতাধিক মানুষ।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com