শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১:০৭ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
হবিগঞ্জে মেডিক্যাল কলেজ, শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা বাল্লা স্থল বন্দর ও হবিগঞ্জ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ॥ জেলা আওয়ামীলীগের পক্ষ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ হবিগঞ্জের চিহ্নিত অপরাধী আশিকুর রহমান গ্রেফতার গ্রীসে সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত ॥ নবীগঞ্জের মমিনের ঘর বাঁধার স্বপ্ন পূরণ হলনা আজমিরীগঞ্জের কর্মকর্তাবৃন্দের সাথে বিভাগীয় কমিশনারের মতবিনিময় নবীগঞ্জের করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ১ জনের মৃত্যু ॥ আক্রান্ত ৩ জন মৃত্যুর পূর্ব মূর্হুত পর্যন্ত মানুষের মুখে হাসি ফুটানোর কাজ করে যেতে চাই-সৈয়দ মোঃ ফয়সল সুইডেনে কুরআন অবমাননার প্রতিবাদে বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের মানববন্ধন নবীগঞ্জে করোনায় আক্রান্ত হয়ে হবিগঞ্জ এলজিইডির উপ-সহকারী কর্মকর্তার বাবা মারা গেছেন হাজী মনু মিয়া ও ওমর ফারুক আনসারীর মৃত্যুতে ইউকে কমিউনিটি ব্যক্তিবর্গের শোক মারামারি মামলায় সাংবাদিক শাওন খানের জামিন লাভ
নবীগঞ্জে রাতে নিখোঁজ ব্যক্তির সকালে ক্ষতবিক্ষত দেহ উদ্ধার

নবীগঞ্জে রাতে নিখোঁজ ব্যক্তির সকালে ক্ষতবিক্ষত দেহ উদ্ধার

নবীগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ নবীগঞ্জ উপজেলার সাতাইহাল হযরত শাহ মুশকিল আহসান (রা.) মাজার এলাকায় মজনু মিয়া নামে এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করেছে দুর্বৃত্তরা। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে সিলেটে এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শনিবার ভোর সকালে অজ্ঞান ও রক্তাক্ত অবস্থায় তার দেহ স্থানীয় একটি জমিতে পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয়রা। মজনু মিয়া উপজেলার গজনাইপুর ইউনিয়নের সাতাইহাল মোকামবাড়ির মৃত রমজান আলীর পুত্র। পরিবারিক ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নবীগঞ্জ উপজেলার সাতাইহাল মোকামবাড়ির মজনু মিয়া (৩৫) গত শুক্রবার রাতে কাজে পাশ্ববর্তী পানিউমদা বাজারে যান। এরপর থেকে নিখোঁজ ছিলেন। সম্ভাব্য সকলস্থানে যোগাযোগ করার পরও মজনু মিয়ার কোনো সন্ধান পাননি পরিবারের সদস্যরা। শনিবার ভোর সকালে উপজেলার সাতাইহাল শাহ মুশকিল আহসান (রা.) মাজারের দক্ষিণ পাশে একটি জমিতে অজ্ঞান রক্তাক্ত অবস্থায় মজনু মিয়ার নিথর দেহ পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয় লোকজন। পরে পরিবারের সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে বাহুবল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক আশংকাজনক অবস্থায় তাকে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ও পরবর্তীতে তাকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল এ প্রেরণ করা হয়।
এলাকার লোকজনের ধারণা, রাতে কে বা কারা মজনু মিয়াকে হাত বা বেধে মাথায় কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। তাঁর শরীরের বিভিন্নস্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।
মজনু মিয়ার পরিবারের লোকজন জানান, মজনু মিয়া এখনো অজ্ঞান অবস্থায় রয়েছেন এবং থানায় অভিযোগ দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।
এ প্রসঙ্গে নবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আজিজুর রহমান বলেন, অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com