শুক্রবার, ৩১ Jul ২০২০, ০৩:১৬ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
আগামীকাল পবিত্র ঈদ উল-আযহা হবিগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক কার্যক্রম স্থগিত ॥ মাধবপুর ছাত্রলীগ কর্মী জাপ্পিকে বহিস্কার যুক্তরাষ্ট্র হবিগঞ্জ সদর সমিতির বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে এমপি আবু জাহির ॥ হবিগঞ্জকে শিক্ষানগরী হিসেবে পরিণত করতে চাই নবীগঞ্জে ঈদের জামাত হবে মসজিদে মসজিদে ভৈরবে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত আজমিরীগঞ্জের কৃষি কর্মকর্তার মৃত্যু হোয়াইট রোজ সমাজ কল্যাণ সংস্থার উদ্যোগে ঈদ খাদ্যসামগ্রী, নগদ অর্থ ও শাড়ি-লুঙ্গী প্রদান হবিগঞ্জ শহরের অনন্তপুরে ভূয়া আইনজীবি ও বিপুল পরিমাণ ইয়াবাসহ ৩ ব্যক্তি আটক বাহুবল মডেল থানার সীমানা প্রাচীর উঁচুকরণ ও কাঁটাতার স্থাপনের উদ্বোধন ॥ হবিগঞ্জকে মাদকমুক্ত করতে পুলিশ সুপারের যুদ্ধ ঘোষণা জেলা সচেতন নাগরিক কমিটির উদ্যোগে মাস্ক-সাবান ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ নবীগঞ্জে করোনা জয়ী প্যানেল মেয়র-১ সালাম মানবতার সেবায় দু:স্থদের পাশে
শায়েস্তাগঞ্জে ইউপি চেয়ারম্যান মুখলিছ কারাগারে ॥ বুলবুল খান বরখাস্ত

শায়েস্তাগঞ্জে ইউপি চেয়ারম্যান মুখলিছ কারাগারে ॥ বুলবুল খান বরখাস্ত

পাবেল খান চৌধুরী ॥ এক উপজেলায় মাত্র জন প্রতিনিধির মধ্যে ২ জনই বরখাস্ত। এর মধ্যে একজন অস্ত্র মামলায় হয়েছেন ১০ বছরের সাজাপ্রাপ্ত। বেশকিছু দিন কারাভোগ করে সম্প্রতি এসেছেন জামিনে। আর অন্যজন ত্রাণের চাল চুরির অপরাধ মামলায় আসামী হয়ে হাজতে গিয়েছেন। ২০১৪ সালে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হবিগঞ্জের জনসভায় শায়েস্তাগঞ্জকে উপজেলায় রূপান্তরিত করার ঘোষণা দেন। এ ঘোষণার পর ২০১৭ সালের ২০ নভেম্বর শায়েস্তাগঞ্জকে উপজেলা হিসেবে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেন। এর মধ্যে ৭নং নুরপুর ইউনিয়নকে দূ’ভাগে বিভক্ত করে আরো একটি ইউনিয়ন গঠন করে বর্তমান সরকার। জন সেবা সাধারণ মানুষের দুরগোড়ায় পৌছাতেই এ উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়। এরই ধারাবাহিকতায় নুরপুরকে বিভক্ত করে ব্রাক্ষণডুরা নামে আরো একটি নতুন ইউনিয়ন করা হয়। একটি পৌরসভা ও তিনটি ইউনিয়ন নিয়ে গঠন করা হয় শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা। মাত্র অল্পদিনের মধ্যেই শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভাকেও প্রথম শ্রেণীর পৌরসভায় রূপান্তরিত করা হয়। উপজেলা ঘোষণার কিছু দিনের মধ্যেই নিয়োগ দেয়া হয় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সহ উপজেলা পর্যায়ের বিভিন্ন কর্মকর্তাকে। পরবর্তীতে স্থানীয় সরকার নির্বাচনে ওই উপজেলার তিনটি ইউনিয়ন পরিষদে নির্বাচন অনুষ্টিত হয়। নির্বাচেন ৭নং নুরপুর ইউনিয়নে সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক উপ-প্রচার সম্পাদক মোঃ মুখলিছ মিয়া, ৮নং শায়েস্তাগঞ্জ ইউনিয়নে স্থানীয় আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক বুলবুল খান, ১১নং ব্রাহ্মণডুরা ইউনিয়নে শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক হোসাইন মোহাম্মদ আদিল জজ মিয়া চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। কিন্তু নির্বাচনের পর থেকে একে পর এক কর্মকান্ড চালিয়ে বুলবুল খান ও মুখলিছ মিয়া জেলা জোরে বিতর্কিত হয়ে উঠেন। জেলার সর্বত্র এই দুই জনপ্রতিনিধি ভিন্ন পরিচয়ে পরিচিতি লাভ করেন। তবে পুর্বে ২০১২ সালের ১৫ মার্চ র‌্যাব-৯ সদস্যরা গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে বুলবুলের বাড়ি থেকে অস্ত্রসহ তাকে আটক করে। পরে র‌্যাব বাদি হয়ে শায়েস্তাগঞ্জ থানায় অস্ত্র মামলা দায়ের করেন। নির্বাচনের পুর্বে ওই মামলাটি বিজ্ঞ আদালতে বিচারাধিন ছিল। মামলা চলমান অবস্থায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীক নিয়ে বুলবুল খান ৮নং শায়েস্তাগঞ্জ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। পরে বুলবুল খান অস্ত্র মামলায় ১০ বছরের সাজাপ্রাপ্ত হওয়ায় চেয়ারম্যান পদ থেকে তাকে গতকাল সাময়িক বহিষ্কার করা হয়। এবং কেন বহিস্কারাদেশ চুড়ান্ত করা হবে না এ মর্মে কারন দর্শাও নোটিম প্রদান করা হয়। এর পর আওয়ামীলীগও তাকে দল থেকে মৌখিক ভাবে বহিস্কার করে।
অপর দিকে করোনা মহামারীর সময়ে ৭নং নুরপুর ইউনিয়নে ত্রাণ ও ভিজিডির চাল আত্মসাতের অভিযোগে বরখাস্ত হন চেয়ারম্যান মুখলিছ মিয়া। এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধেও একটি মামলা দায়ের করা হয়। এ মামলায় তিনি সম্প্রতি হবিগঞ্জের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নূরুল হুদা চৌধুরীর আদালতে হাজির হয়ে জামিন প্রার্থনা করলে আদালত তার জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরণ করেন। বর্তমানে তিনিও কারাগারে রয়েছেন। তবে বির্তকের উর্ধ্বে উঠে কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ তালুকদার ইকবাল, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ গাজিউর রহমান ইমরান, নারী ভাইস চেয়ারম্যান মোছাঃ মুক্তা আক্তার ও ব্রাহ্মণডুরা ইউপি চেয়ারম্যান হোসাইন মোহাম্মদ আদিল জজ মিয়া।
এদিকে মঙ্গবাল (১৪ জুলাই) স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় স্থানীয় সরকার বিভাগের উপসচিব মোহাম্মদ ইফতেখার আহমেদ চৌধুরী স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে চেয়ারম্যান বুলবুল খাঁনকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।
অপরদিকে গত ৪ ফেব্রুয়ারী হবিগঞ্জের বিশেষ ট্রাইব্যুনাল-৪ এর বিচারক শাহিদুল আমিনের আদালতে অস্ত্র মামলায় জামিন আবেদন করেন চেয়ারম্যান বুলবুল খান। বিচারক তার জামিন নামঞ্জুর করে ১০ বছরের কারাদন্ড প্রদান করেন। এর পর থেকে বুলবুল খান কারাগারেই ছিলেন। গত রোববার জামিনে বের হয়ে আসেন। বুলবুল খান উপজেলার নিশাপট গ্রামের ছুরুক খানের ছেলে।
মামলার বিবরণ সূত্রে জানা গেছে, ২০১২ সালের ১৫ মার্চ র‌্যাব-৯ এর সদস্যরা গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে বুলবুলের বাড়ি থেকে অস্ত্রসহ তাকে আটক করে। পরে র‌্যাব বাদি হয়ে শায়েস্তাগঞ্জ থানায় মামলা করে। পুলিশ মামলাটি তদন্ত করে একই বছর আদালতে চার্জশিট প্রদান করে।
এদিকে উপজেলার নূরপুর ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে গত ৮মে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইয়াসিন আরাফাত রানা অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় সরকারি ত্রাণ বিতরণ করার জন্য সেখানে দেওয়া ২ হাজার কেজি চালের মধ্যে পাওয়া যায় ১ হাজার ৭০০ কেজি চাল। যেহেতু ৩০০ কেজি চাল পাওয়া যায়নি, তাই ওই ১ হাজার ৭০০ কেজি চাল জব্দ করেন তিনি। এছাড়াও সরকারি ত্রাণের পাশাপাশি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ভিজিডির চাল বিতরণেও অনিয়মের প্রমাণ পাওয়া যায়। যেমন জানুয়ারি থেকে চাল বিতরণের কোনো মাস্টার রোলও সেখানে ছিল না।
পরে গত ১২ মে স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন স্থানীয় সরকার বিভাগের ইউনিয়ন পরিষদ-১ শাখার উপ-সচিব মোহাম্মদ ইফতেখার আহমেদ চৌধুরী স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে তাকে চেয়ারম্যানের পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।
এদিকে সদ্য গড়ে উঠা একটি উপজেলার ৪ জন জপ্রতনিনিধির মধ্যে ২ জন জনপ্রতিনিধি বরখাস্ত হয়ে কারাগারে থাকায় ওই দুটি ইউনিয়নের সাধারণ মানুষ তাদের কাঙ্খিত সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। এলাকাবাসীর দাবী অপকর্ম এবং গরীবের হক আত্মসাতকারীদের স্থায়ীভাবে বহিস্কার।
এ ব্যাপারে শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ তালুকদার ইকবাল বলেন, ইউনিয়ন চেয়ারম্যান বুুলবুল খানের বরখাস্তের বিষয়টি আমরা গতকালকে মাত্র জেনেছি। বিষয়টি নিয়ে দলীয়ভাবে সভা ডেকে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। এছাড়া যারা দলের ভাবমূর্তিক্ষুন্ন করেছেন তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হবে। ইতিমধ্যে নুরপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মুখলিছ মিয়াকেও দল থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com