বৃহস্পতিবার, ০৪ মার্চ ২০২১, ০৯:০৯ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
সাতছড়িতে বিজিবির অভিযান রকেট লাঞ্চারের ১৮টি গোলা উদ্ধার হবিগঞ্জে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে ম্যারাথন এর উদ্বোধন সাতছড়ি উদ্যানে পূর্বের ৬ অভিযানে যা যা মিলেছে উদ্ধার হওয়া রকেট লাঞ্চারের গোলাগুলো খুব বিপজ্জনক আলোচনায় কাহালু ও চট্টগ্রামের ১০ ট্রাক অস্ত্র নোয়া হাটি সংবর্ধনা সভায় মেয়র সেলিম ॥ আমি হবিগঞ্জ পৌরবাসীর ভালবাসা কুড়িয়ে নিতে চাই হবিগঞ্জ পৌরসভার নব-নির্বাচিত ২ কাউন্সিলরকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী নবীগঞ্জে মাদকাসক্ত স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা ॥ হুমকির মুখে নিরিহ পরিবার পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়রের সঙ্গে ব্যাংকারদের শুভেচ্ছা বিনিময় নবীগঞ্জে শেখ মুজিব ঢাকা ম্যারাথন ২০২১ প্রতিযোগীতায় ॥ ২৩ বিজয়ী
কথা দিয়ে কথা রাখলেন শ্রীমঙ্গল র‌্যাব-৯ কমান্ডার এএসপি আনোয়ার হোসেন শামিম

কথা দিয়ে কথা রাখলেন শ্রীমঙ্গল র‌্যাব-৯ কমান্ডার এএসপি আনোয়ার হোসেন শামিম

কাউছার আহমেদ রিয়ন, শ্রীমঙ্গল থেকে ॥ মানবতার এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন শ্রীমঙ্গলে র‌্যাব-৯ কমান্ডার করোনা ঝড়ে যখন বিশ্ব কম্পমান, বাংলাদেশের প্রতিটি মানুষের মাঝে যখন করোনা আতঙ্ক, নিজেকে নিরাপদ রাখতে সবাই যখন ঘরমুখী তখন কে রাখে কার খবর।
সারাদেশের যানবাহন চলাচল সীমিত করা হয় তখন শ্রীমঙ্গল র‌্যাব ক্যাম্পের কমান্ডার এএসপি মোঃ আনোয়ার হোসেন ঘোষণা দেন যে শ্রীমঙ্গল ও হবিগঞ্জ এলাকায় কোন গর্ভবতী মায়ের প্রসবকালীন জটিলতা নিয়ে যানবাহনের সমস্যা হলে উনার ব্যক্তিগত মোবাইল নাম্বারে ফোন করার জন্য। তাহলে তিনি নিজ দায়িত্বে সেই গর্ভবতী মাকে হাসপাতালে নেয়ার জন্য গাড়ীর ব্যবস্থা করবেন। যেমনি কথা দিয়েছিলেন তেমনি ভাবে কথা রাখলেন। রবিবার রাতে শ্রীমঙ্গল উপজেলার দক্ষিণ উত্তরসূর এলাকা থেকে এক গর্ভবতী মায়ের প্রসবকালীন জটিলতা নিয়ে ফোন পান তিনি। ফোন পেয়েই ছুটে যান সেই মায়ের বাড়িতে। সেই মাকে তিনি নিজের কোলে তুলে নিয়ে যান শ্রীমঙ্গল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। সেখানে নেওয়ার পর ভূমিষ্ট হয় একপুত্র সন্তান। বর্তমানে মা ও নবজাতক ছেলে উভয়েই সুস্থ আছেন।
র‌্যাব কমান্ডার শামীম আনোয়ার এর এমন মানবিকতায় সত্যিই অবাক সেই দক্ষিণ উত্তসুর এলাকার মানুষ। আবেগ তাড়িত গর্ভবতী মায়ের ভাইপোর লেখা ফেইসবুক স্যাটার্স হুবহু তুলে ধরলাম।
“শ্রীমঙ্গল র‌্যাবকে ভগবান অনেক বড় পুরুষ্কার দেক!
গতকাল রাত আনুমানিক সাড়ে এগারটা। আমার পিসির প্রসব বেদনা ওঠে। রক্ত ভাঙা শুরু হয়। কিন্তু বাচ্চা প্রসব হইতেছিল না। তাই সবাই বল হসপিটালে নেওয়াই লাগবে। হসপিটালে নেওয়ার জন্য এত রাতে গাড়ি কোথায় পাব- চিন্তায় আমরা সবায় টেনসন করতে ছিলাম। অনেক চেষ্টা করেও গাড়ি পাই নাই। পরিচিত অনেক সিএনজি ড্রাইভারকে অনুরোধ করেও লাভ হয় নাই। তারা বলে এত রাতে যাইতে পারবে না। এমন সময় আমার প্রিয় বড় ভাই রাজু (উপজিলা চেয়ারম্যানের ছেলে) ভাই আমাকে শ্রীমঙ্গল র‌্যাব কমান্ডার, এএসপি আনোয়ার হোসেন শামিম ছারের নাম্বার দেয়। তিনি নাকি এরকম সব মানুষকে সাহায্য করেন। প্রথমে বিশ্বাস করি নাই। তবুও কল দিলাম। ওনি বললেন ২ মিনিটের মধ্যে রওনা হইতেছেন। বিশ্বাস করি নাই। পরে দেখি ওনি ঠিক সময় মতো তাড়াতাড়ি আসছেন।
আমরা আরো আশ্চর্য হইলাম, পিসির হাটার অবস্থা ছিল না। ওনি মুখে কিছু না বলে পিসিকে কোলে করে নিয়ে গাড়িতে তুলল। হাসপাতালে পৌছার পর রোগিকে কোলে নিয়ে আবার একবারে অপারেশন রুমে দিয়া আসছে।
আমার আশ্চর্য হইলাম, এই রুকম মানুষও কি পৃথিবীতে আছে!
(আমার পিসির গর্ভ থেকে ভাই হইছে, দুইজনই সুস্থ আছে। সবার আশীর্বাদ চাই)।”

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com