রবিবার, ০৫ এপ্রিল ২০২০, ০৫:৪৯ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
কর্মহীনদের খাদ্য সহায়তা প্রদান ও করোনা সচেতনতায় সকাল-সন্ধ্যা ছুটছেন এমপি আবু জাহির হবিগঞ্জে প্রশাসন ও আইনশৃংখলা বাহিনীর তৎপরতা অব্যাহত হবিগঞ্জ জেলা পরিষদের উদ্যোগে বানিয়াচঙ্গে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ ডাঃ মুশফিক হোসেন চৌধুরীর প্রচেষ্টায় ঢাকাস্থ জালালাবাদ এ্যাসোসিয়েশন এর উদ্যোগে চিকিৎসকদের মাঝে ১’শ পিপিই বিতরণ হবিগঞ্জ সদর উপজেলার চেয়ারম্যান মোতাচ্ছিরুল ইসলামের পক্ষ থেকে বিভিন্ন এলাকায় খাদ্রসামগ্রী বিতরণ হবিগঞ্জের এসএসসি ৯৯ ব্যাচের বন্ধুদের উদ্যোগে শ্রমজীবী মানষের মাঝে ত্রান সামগ্রী বিতরণ ওএমএস কার্যক্রমের আওতায় শহরের ৫টি দোকানে ৫ এপ্রিল থেকে ১০ টাকা কেজি চাল বিক্রি শুরু প্রশাসনের তৎপরতায় জনশূণ্য নবীগঞ্জ ত্রাণ বিতরণ হলেও বিপাকে দিনমজুর খেটে খাওয়া শ্রমজীবি মানুষ নবীগঞ্জের পৌর এলাকায় খাদ্য সামগ্রী বিতরণ শ্রীমঙ্গলে এক কিশোরী করোনা আক্রান্ত সন্দেহে এলাকায় লাল ঝান্ডা, ১৩৪ ব্যক্তি হোম কোয়ারেন্টাইনে
শহরের বদরুন্নেছা (প্রাঃ) হাসপাতালের মালিক দাবিদার বদরুন্নেছার বিরুদ্ধে এন্তার অভিযোগ

শহরের বদরুন্নেছা (প্রাঃ) হাসপাতালের মালিক দাবিদার বদরুন্নেছার বিরুদ্ধে এন্তার অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ভূমি দখল, জাল দলিল তৈরী, ভূয়া নামজারী, মিথ্যা মামলা ও কর্মকান্ড পরিচালনাসহ এন্তার অভিযোগ উঠেছে শহরের বদরুন্নেছা (প্রাঃ) হাসপাতালের মালিক দাবিদার বদরুন্নেছা খানমের বিরুদ্ধে। জানা যায়, শহরের মাস্টার কোয়ার্টারস্থ ৪ তলা বিশিষ্ট বদরুন্নেছা (প্রাঃ) হাসপাতাল ভবনের বাটোয়ারা দলিল (৪৮৯৫/১১ইং) মূলে প্রকৃত মালিক হলেন, লন্ডন প্রবাসী মোঃ আব্দুল মুবিন (১ম তলা ও অংশানুপাতিক জমি), মৃত আব্দুল মোছাব্বিরের ওয়ারিশান ডাঃ মোঃ আব্দুল হাদি ও বদরুন্নেছা খানম (২য় তলা ও অংশানুপাতিক জমি), আব্দুল ওয়াদুদ (৩য় তলা ও অংশানুপাতিক জমি) ও মৃত আব্দুল মুনিমের উত্তরাধিকারী তাহেরা খানম (৪থ তলা ও অংশানুপাতিক জমি)। এর মধ্যে ৩য় তলার একটি ইউনিট নিজ খরচে সম্পাদনের কারনে ১৫ বছর ভোগদখলের অধিকারী হন লন্ডন প্রবাসী আব্দুল মুবিন।
কিন্তু বাটোয়ারানামা সম্পাদনের পর থেকেই লন্ডন প্রবাসী আব্দুল মুবিনের অংশ গ্রাস করার পাঁয়তারা শুরু করেন বদরুন্নেছা খানম। এরই ধারাবাহিকতায় তিনি ভাড়া চুক্তি না করেই ১ম তলার অর্ধাংশ ও ২য় তলার অর্ধাংশে নিজ নামে হাসপাতাল স্থাপন করেন তিনি। একইভাবে তিনি ৩য় তলার মালিক আব্দুল ওয়াদুদের অর্ধাংশও দখল করে নেন। আব্দুল ওয়াদুদ এর প্রতিবাদ করলে তার পুত্র মোকাদ্দিম নিশুর বিরুদ্ধে একাধিক মিথ্যা মামলা দায়ের করেন বদরুন্নেছা। এসব মামলায় নিশুকে কারাবরনও করতে হয়। শুধু তাই নয়, বদরুন্নেছার অত্যাচারে দেশ ছেড়ে দনি আফ্রিকায় গিয়েও রেহাই পাননি তিনি। সেখানেও কিডন্যাপের শিকার হন নিশু। এক পর্যায়ে বোন ও ভগ্নিপতি নিশুকে মুক্তিপন দিয়ে ছাড়িয়ে এনে দেশে ফেরত পাঠান। পরে আব্দুল ওয়াদুদ উপায়ন্তর না দেখে এলাকা ছেড়ে নারায়নগঞ্জে বসবাস শুরু করেন।
এদিকে, লন্ডন প্রবাসী আব্দুল মুবিন তার অংশ বদরন্নেছার কবল থেকে উদ্ধার করতে না পেরে জুবেদ আলী নামক এক ব্যক্তিকে পাওয়ার অব এটর্নী প্রদান করেন। পরে গত ১১ নভেম্বর ২০১৫ইং তারিখে ৬৯০৯/১৫ ও ৬৯১০/১৫ দলিল মূলে ফজল করিম ইমরান নামে এক ব্যক্তির কাছে ওই ভূমি বিক্রি করে দেন জুবেদ। কিন্তু বদরুন্নেছা খানম ৮৬৬/১৬, ৮৬৭/১৬ ও ৮৬৮/১৬ নং জাল দলিল করে ওই জায়গা দখল করে ফজল করিম ইমরানকে দিয়ে উচ্ছেদ করেন এবং তার বিরুদ্ধে একাধিক মিথ্যা মামলা দায়ের করেন। শুধু তাই নয়, আব্দুল ওয়াদুদের মালিকানাধীন ভূমিটি জালিয়াতির আশ্রয় নিয়ে নিজের নামে নামজারি করেন। এনিয়ে মোকদ্দমা (নং-৬৯/১৮) হলে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) তারেক মোহাম্মদ জাকারিয়া নামজারি স্থগিত করেন।
অপরদিকে, লন্ডন প্রবাসি আব্দুল মুবিনের পাওয়ার অব এটর্নী প্রাপ্ত জুবেদ আলী প্রতিকার চেয়ে বদরুন্নেছার জালিয়াতির বিরুদ্ধে আদালতের মামলা (সি.আর নং-২৬৭/১৯) দায়ের করেন। পরে মামলাটি সিআইডি তদন্ত করে বদরুন্নেছার বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগ প্রাথমিক ভাবে প্রমানিত হয়েছে মর্মে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করে।
জানা যায়, বদরুন্নেছা খানম এক সময় মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে নার্স হিসেবে কর্মরত ছিলেন। কিন্তু হবিগঞ্জে এসে নিজেকে তিনি চিকিৎসক পরিচয় দিয়ে সরকারী বিভিন্ন দপ্তর ও সামাজিক ভাবে সুবিধা গ্রহন করে থাকেন। তার বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ অর্জনের বিভিন্ন অভিযোগ আয়কর বিভাগ তদন্ত করছে।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com