শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯, ১০:৪৩ পূর্বাহ্ন

হবিগঞ্জ সোসাইটি ইউকে-এর জাঁকজমকপুর্ণ মিলন মেলা

হবিগঞ্জ সোসাইটি ইউকে-এর জাঁকজমকপুর্ণ মিলন মেলা

মারুফ চৌধুরী, লন্ডন থেকে ॥ “আনন্দ উৎসবে হোক মৈত্রীর বন্ধন” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে গত রবিবার ৮ সেপ্টেম্বর ইংল্যান্ডের বার্মিংহামের রয়াল সুইটে অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো হবিগঞ্জ সোসাইটি ইউকে আয়োজিত বহির্বিশ্বে হবিগঞ্জবাসীর সর্ববৃহৎ সামাজিক অনুষ্টান “ষষ্ঠ হবিগঞ্জ মিলনমেলা” ২০১৯ । প্রতি দুই বৎসর পর পর   অনুষ্টিতব্য মিলন মেলাটি এবার ষষ্ঠতম মেলা। পারষ্পরিক মেলবন্ধনই এ মেলার মূল উদ্দেশ্য। এই দিনটির জন্য হবিগঞ্জের ইউরোপ, যুক্তরাজ্যবাসী অপেক্ষা করেন দীর্ঘসময়। দুপুর ১২ঃ৩০ মিনিটে হলের বাইরে বর্নাঢ্য র‌্যালীর মাধ্যমে শত শত হবিগঞ্জবাসীর উপস্থিতিতে বাংলাদেশ সরকারের বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী এমপি প্রধান অতিথি হিসাবে অনুষ্ঠানে উপস্থিত হন। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ব্রিটিশ এমপি জেস পিলিপ্স, সহকারী বাংলাদেশ হাইকমিশনার মোহাম্মেদ নাজমুল হক এবং এনটিভি সিইও সাবরিনা হুসেইন।
হবিগঞ্জ সোসাইটির সৈয়দ ইকবালের প্রানবন্ত উপস্থাপনায় শুরুতে যথাক্রমে বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত ও ব্রিটিশ জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের শুভ সুচনা করা হয়।
শুরুতে সংগঠনের সভাপতি রানা চৌধুরী স্বাগত বক্তব্য রাখেন। সাধারণ সম্পাদক এম এ মোন্তাকিম সংগঠনের বিগত দিনের কার্যক্রমের উপর একটি রিপোর্ট পেশ করেন।
প্রধান অতিথি বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী এমপি প্রবাসীদের বিভিন্ন যৌক্তিক দাবী দাওয়ার উপর বিশেষ আলোকপাত করেন। তিনি বলেন, বাংলাদেশ বিমানকে একটি লাভজনক প্রতিষ্ঠানে পরিনত করতে বিমানকে আরো কাস্টমার সার্ভিস উপযোগী ও অন্যান্য দেশের বিমানের সাথে প্রতিদ্বন্দ্বীতাপূর্ন মনোভাব নিয়ে ইতিমধ্যে কাজ করতে শুরু করেছেন। তিনি বলেন, সিলেটের রানওয়েকে আরো সম্প্রসারণ করার পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে যাতে করে বোয়িং ৭৭৭ বিমান অনায়াসে উঠা-নামা করতে পারে এবং সিলেট থেকে সরাসরি ইউকে ফ্লাইট পরিচালনা করতে পারে।
তিনি বার্মিংহামবাসীর প্রানের দাবী মিডল্যান্ডসের সাথে সরাসরি সপ্তাহে অন্তত একটি ফ্লাইট যেনো চালু করতে পারেন সে ব্যাপারে ইতিমধ্যে তার মন্ত্রনালয়ের উপস্থিত সচিবকে পদক্ষেপ নিতে বলেন।
অনুষ্ঠানে ‘হবিগঞ্জ সোসাইটি ইউকে’ এর পক্ষ থেকে বিভিন্ন কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ এ্যাওয়ার প্রদান করা হয়। এবারের পদক প্রাপ্তদের মধ্যে ছিলেন পদক্ষেপ গনপাঠাগারের প্রতিষ্ঠাতা সহকারী অধ্যাপক মাজহারুল ইসলাম রুবেল (শিক্ষা), প্রতিক করীম (ব্যাংকিং), স্থানীয় বৃটিশ এমপি জেস পিলিপ্স ও বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী এমপি কে সংগঠনের পক্ষ থেকে সম্মাননা পদক প্রদান করা হয়।
আলোচনা ও পদক বিতরণ পর্ব শেষে মধ্যাহ্ন ভোজ। পরে মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। হবিগঞ্জ শহরের পরিচিত সাংস্কৃতিককর্মী/সংগীত শিল্পী সবার প্রিয় মীর গোলাম মোস্তফা, রুবেল খান, রাজন চৌধুরী, সৈয়দ মাহবুবুর রহমান বুলু, ভাইয়ের বাউল, দেশাত্ববোধক গানে ছিলো পুরো হল মাতোয়ারা। সংগীত পরিবেশন করেন বিলাতের জনপ্রিয় সংগীত শিল্পী রোজী সরকার, নুরজাহান শিল্পী সহ আরো অনেকে। নাচে গানে সকলেই আনন্দ উল্লাসে বার্মিংহামের রয়াল সুইট হয়ে উঠে যেনো একটুকরো হবিগঞ্জ। অনুষ্ঠানের প্রথম পর্ব চলে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত। মাগরিবের নামাজের বিরতীর পর দ্বিতীয় পর্বে শুরু হয় বহুআকাংখিত র‌্যাফেল ড্র। এতে সর্বমোট ১৮ টি পুরষ্কার দেয়া হয়। এরমধ্যে উল্লেখযোগ্য প্রথম পুরস্কারটি অর্জন করেন গাউসুল আজম সুজন হবিগঞ্জের বিখ্যাত দি প্যালেস রিস্যুট-এ ৬ জনের থাকার সুযোগ। দ্বিতীয় পুরস্কারটি পেয়েছেন মারুফ চৌধুরী, সেটিও দি প্যালেস রিস্যুট-এ দুই জনের থাকার সুযোগ, তৃতীয় পুরস্কার রিটার্ণ টিকেট লন্ডন-ঢাকা পেয়েছেন মোহাম্মদ হারুন এবং চতুর্থ পুরস্কারটি পেয়েছেন ডা: আফজাল খান শামীম উমরা হজ্জের রিটার্ণ টিকেট লন্ডন-জেদ্দা। র‌্যাফেল ড্র এর পরে আবারও শুরু হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এবং টানা চলে রাত দশটা পর্যন্ত। রাতে ডিনারের মধ্য দিয়ে শেষ হয় “ষষ্ঠ মিলনমেলা”২০১৯।
মিলন মেলায় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গোলাম আনিস চৌধুরী, ফয়সল আহমেদ চোধুরী এমবিই, শামসুউদ্দিন আহমেদ এমবিই, জুবায়ের আহমেদ, গুলজার হুসেন বাবুল, মুর্শেদ আহমেদ, সালেহ বেলাল, সালেহ আজহার খান পাপ্পু, লুটন এলাইন্হস হবিগঞ্জের ফজিলত আলী খান, দেলোয়ার হুসেন চোধুরী হিরু, নাজিমুদ্দিন তালুকদার মিঠু, সজল, নাজিম, হবিগঞ্জ সোসাইটি ইউকের নেত্রীবৃন্দের মধ্যে সভাপতি রানা মিয়া চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক এম এ মুন্তাকিম, উপদেষ্ঠা শেখ ফতে এলাহী সুফি, কামাল হুসেন, এমএইচ চৌধুরী মিন্টু, সৈয়দ ইকবাল, মোহাম্মেদ শহীদুল ইসলাম (কহিনুর), শামশেদ বখত চৌধুরী, এএম চৌধুরী মাসুদ, জিয়া তালুকদার, আবু হায়দার চৌধুরী সুইট, আব্দুল বাছিত চৌধুরী অপু, রহমত আলী, সোহেল আহমদ চৌধুরী, মোহাম্মদ মারুফ, জয়নাল ইসলাম, হুসেইন ফেরদাউস, টি বি চৌধুরী, আতাউল গনি লিটন, নজরুল ইসলাম, হেলাল উদ্দিন মিরুল, শামিম বোরহানী, শাহেদ হাসান, দেলোয়ার হুসেইন, কাউসারুল ইসলাম সুমন, সৈয়দ নাসির আহমেদ প্রমুখ। প্রায় ৭’শ অতিথির আগমনে প্রানবন্ত মেলাটি হবিগঞ্জ সোসাইটির নতুন প্রত্যাশা ও আগামীতে আরো নতুন চমকের আশা নিয়ে সকলকে ধন্যবাদ দিয়ে শেষ হয়।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com