বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯, ০২:২০ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
শোকসভা ও ঈদ সামাগ্রী বিতরণকালে এমপি আবু জাহির ॥ ফাঁসির মুখোমুখি করেও বঙ্গবন্ধুকে দেশপ্রেম থেকে দূরে সরাতে পারেনি পাকিস্তানীরা

শোকসভা ও ঈদ সামাগ্রী বিতরণকালে এমপি আবু জাহির ॥ ফাঁসির মুখোমুখি করেও বঙ্গবন্ধুকে দেশপ্রেম থেকে দূরে সরাতে পারেনি পাকিস্তানীরা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ফাঁসির মুখোমুখি করেও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে দেশপ্রেম থেকে দূরে সরাতে পারেনি পাকিস্তানীরা। শুধু আওয়ামী লীগের নন, তিনি ছিলেন বাঙালি জাতির নেতা। বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে আমরা পরাধীনই থেকে যেতাম। স্বাধীন বাংলাদেশে পুনরায় পাকিস্তান কায়েমের লক্ষ্যে তাঁকে সপরিবারে হত্যা করা হয়। এরপর জাতির পিতার হত্যাকারীদের বিচার বানচাল করতে কালো আইন রচনা করেন জিয়াউর রহমান। পরবর্তীতে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে খুনীদের বিচার করেছে। যে খুনীরা পালিয়ে বেড়াচ্ছে তাদেরকেও বিচারের মুখোমুখি করা হবে ইনশাল্লাহ।
সর্বকালের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুুর রহমানের ৪৪তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে শনিবার বিকেলে হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবে ইউনিটি ক্লাব অব হবিগঞ্জের উদ্যোগে শোকসভা এবং ঈদ খাদ্য সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে এসব কথা বলেন হবিগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট মোঃ আবু জাহির এমপি।
তিনি আরো বলেন, যতই ষড়যন্ত্র করা হোক, বাঙালি জাতির মন থেকে কখনো জাতির পিতার নাম মুছে দেয়া সম্ভব না। বঙ্গবন্ধুর প্রতি যারা সম্মান দেখাতে চায় না, এই দেশে থাকার অধিকার তাদের নেই। বর্তমান সরকার সব সময় দেশের সাধারণ মানুষদের পাশে থাকে। ঈদ উপলক্ষে অস্বচ্ছল মানুষদের কাছে পৌঁছে দেয়া হয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার। তবে সরকারের পাশাপাশি সমাজের ধনাঢ্য ব্যক্তিদেরও উচিত অস্বচ্ছল মানুষদের পাশে দাঁড়ানো। এ সময় ইউনিটি ক্লাব অব হবিগঞ্জের ঈদ খাদ্য সামগ্রী বিতরণ কার্যক্রমের প্রসংশা করেন তিনি।
সংগঠনের সভাপতি শাহ জয়নাল আবেদীন রাসেলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক রামীম ইমামের পরিচালনায় সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন হবিগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আমিতাভ পরাগ তালুকদার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এসএম ফজলুল হক, হবিগঞ্জ পৌরসভার সাবেক চেয়ারম্যান শহীদ উদ্দিন চৌধুরী, জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি আলহাজ¦ মোঃ আরব আলী, চাঁদের হাসি হাসপাতালের চেয়ারম্যান জাফর আলী খান, জেলা পরিষদ সদস্য অ্যাডভোকেট সুলতান মাহমুদ, ক্লাবের প্রধান পৃষ্টপোষক কাউছার আহমেদ রুমেল, জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি সাইদুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক মহিবুর রহমান মাহী, ইউনিটি ক্লাব অব হবিগঞ্জের সাংগঠনিক সম্পাদক নূরুজ্জামান জাকী প্রমুখ।
সভার শুরুতেই ১৫ই আগস্ট শাহাদাত বরণকারী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ সকল শহীদদের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনায় দাঁড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। মোনাজাত পরিচালনা করেন হবিগঞ্জ কেন্দ্রীয় ঈদগাহের প্রধান খতিব মাওলানা গোলাম মোস্তফা নবীনগরী। পরে হবিগঞ্জ শহরের শতাধিক অস্বচ্ছল লোকজনের হাতে সংগঠনের পক্ষ থেকে ঈদ খাদ্য সামগ্রী তুলে দেন এমপি আবু জাহির।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com