বুধবার, ২১ অগাস্ট ২০১৯, ১২:৫৮ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
মাধবপুরে চা-বাগানে কাকাতো ভাইয়ের হাতে জেঠাতো ভাই খুন যুক্তরাজ্যে গাড়ির নাম্বার প্লেটের রেজিষ্ট্রেশন নিয়ে জটিলতা ॥ আইনি লড়াইয়ে জয়ী হলেন এনটিভির ইউরোপ ব্যুরো চিফ ফারছু আহমেদ চৌধুরী শহরে প্রকাশ্যে ছাত্রলীগ নেতা আসিফ চৌধুরীকে কুপিয়ে ক্ষতবিক্ষত করেছে দূর্বৃত্তরা আজমিরীগঞ্জে হাওর থেকে যুবতীর বিকৃত লাশ উদ্ধার নবীগঞ্জে ছাতল বিলের ইজারা সমিতির সদস্যদের স্বাক্ষর জাল ইউএনও বরাবর অভিযোগ বানিয়াচঙ্গের এক মহিলাকে বিদেশ পাঠানোর নামে পাচারের অভিযোগ স্কুল-কলেজের সামনে বখাটেদের উৎপাত বন্ধে পুলিশকে কঠোর হওয়ার নির্দেশ হবিগঞ্জে ‘বিবর্তন বিজ্ঞান চক্র’র উদ্যোগে ২ দিনব্যাপী জ্যোতির্বিজ্ঞান বিষয়ক কর্মশালা সম্পন্ন মাধবপুরে গাছ থেকে পড়ে স্কুল ছাত্রের মৃত্যু বাহুবলে প্রবীন আওয়ামীলীগ নেতা আকবর আলী আর নেই
সিলেট বিভাগের ৪৫ শীর্ষ ডাকাত নজরদারীতে ॥ চুনারুঘাটে পুলিশের সাথে বন্দুক যুদ্ধে ডাকাত সোলাইমান নিহত

সিলেট বিভাগের ৪৫ শীর্ষ ডাকাত নজরদারীতে ॥ চুনারুঘাটে পুলিশের সাথে বন্দুক যুদ্ধে ডাকাত সোলাইমান নিহত

চুনারুঘাট প্রতিনিধি ॥ চুনারুঘাটে বন্দুক যুদ্ধে সোলাইমান মিয়া (৩০) নামের এক ডাকাত নিহত হয়েছে। এ সময় ৩ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। নিহত সোলাইমান মিয়া মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ উপজেলার কালিপুর গ্রামের আব্দুল লতিফের ছেলে। রোববার দিনগত রাত ৩টার দিকে চুনারুঘাট উপজেলার ডেউয়াতলী কালিনগর এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে। এ দিকে জেলায়   ডাকাতিসহ সকল অপরাধ দমনে মাঠে নেমেছে হবিগঞ্জ জেলা পুলিশের একাধিক টিম। তৈরী করা হয়েছে আন্তঃবিভাগীয় ডাকাত দলের তালিকা। আর এ তালিকায় রয়েছে সিলেট বিভাগের ৪টি জেলার শীর্ষ ৪৫ ডাকাতের নাম। পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যার নেতৃত্বে কড়া নজরদারী করছে হবিগঞ্জ জেলা পুলিশ। তালিকাভুক্ত ডাকাতসহ তাদের অন্যান্য সহযোগীদের ধরতে গত দিন যাবৎ জেলার হবিগঞ্জ সদর, বানিয়াচং, চুনারুঘাট, নবীগঞ্জ, বাহুবল, মাধবপুর ও শায়েস্তাগঞ্জে সাড়াশি অভিযানে নামে উল্লেখিত থানাগুলোর একাধিক টিম। ইতোমধ্যে আন্তঃবিভাগীয় বেশ কয়েকজন সন্দেহভাজন ডাকাতকে আটক করার কথাও শোনা যাচ্ছে। তবে এ ব্যাপারে পুলিশের পক্ষ থেকে কোন তথ্য পাওয়া যায়নি।
পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্বাহ গতকাল দুপুরে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে বলেন, রোববার রাতে কালিনগর এলাকায় একদল ডাকাত ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিল। গোপন সূত্রে এমন খবর পেয়ে চুনারুঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ নাজমুল হকের নেতৃত্বে পুলিশ অভিযান চালায়। ঘটনাস্থলে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ডাকাতরা হামলা চালায়। পুলিশও পাল্টা গুলি ছুড়ে। উভয় পক্ষের গোলাগুলিতে ডাকাত সোলাইমানসহ তিন পুলিশ সদস্য আহত হন। আহত ডাকাত সোলাইমানকে হবিগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশী পিস্তল, ৪ রাউন্ড গুলি, ১টি গুলির খোসা, ৩টি ছোরা, ১টি লোহার রড, ১টি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়েছে বলে পুলিশ সুপার জানান। প্রেস ব্রিফিংকালে উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফজলুল হক, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ রবিউল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ সেলিম আহমেদ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এস এম রাজু আহমেদ, চুনারুঘাট থানার ওসি শেখ নামজুল হকসহ পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটের কর্মকর্তাগণ।
এদিকে, গতকাল কামাইছড়া চেকপোস্টে অভিযান চালিয়ে পুলিশ ৩ জনকে আটক করেছে। তাদের নিকট থেকে ডাকাতি লুটে আনা ২টি মোবাইল ফোন, স্বর্ণালঙ্কার ও নগদ টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। তারা হচ্ছে মো. শাহীন, ইমরান হোসেন ও ইয়াছিন ওরফে কালা বাবু। এর মাঝে কালা বাবু দুর্ধর্ষ ডাকাত সর্দার। তার বিরুদ্ধে ৮টি ডাকাতি মামলা রয়েছে। গতকাল সোমবার বেলা আড়াইটায় নিজ কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে সংবাদ সম্মেলন করেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যাহ (বিপিএম-পিপিএম)।
প্রসঙ্গত, শনিবার দিবাগত গভীর রাতে দেউন্দি চা বাগানের ডাক্তার বাংলোতে দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটে। ডাকাতরা ধারালো অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে প্রথমে দারোয়ান রবি মুন্ডা ও সন্তোষকে জিম্মি করে রশি দিয়ে বেঁধে ফেলে। পরে বাংলোতে থাকা ডা. অনিমেষ গুলদার (৪৫), স্ত্রী সরমিস্ট কর্মকার ও ৪ বছরের ছেলে অরিত্র গুলদারের মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে ৫ লাখ টাকার মালামাল লুট করে।
খবর পেয়ে সিলেট বিভাগের ডিআইজি কামরুল ইসলাম, এডিশনাল ডিআইজি জয়দেব কুমার ভদ্র, হবিগঞ্জ পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যাহ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এসএম রাজু আহমেদ, চুনারুঘাট-মাধবপুর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার নাজিম উদ্দিন ও চুনারুঘাট থানার ওসি নাজমুল হক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এর আগেও চুনারুঘাটে একাধিক ডাকাতির ঘটনা ঘটলে এলাকায় আতঙ্ক সৃষ্টি হয়।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2013-2019 HabiganjExpress.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com